Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

নাদালেকে বিদায় করে সেমিতে থিয়েম

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩০ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০৫ এএম

আপাতত রজার ফেদেরারের ২০টি পুরুষ এককের গ্র্যান্ড স্ল্যাব জয়ের রেকর্ড ছোঁয়া হলো না রাফায়েল নাদালের। চলমান অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার ফাইনালে রুদ্ধশ্বাস এক লড়াইয়ে শীর্ষ বাছাই এই তারকাকে হারিয়ে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছেন ডোমিনিক থিয়েম। চার সেটের লড়াই হাড্ডাহাড্ডি হলেও তিন সেটই টাইব্রেকারে জিতে শেষ চারে জায়গা করে নেন স্বাগতিক এই পাঁচ নাম্বার বাছাই।

গতকাল মেলবোর্ন পার্কের রড লেভার অ্যারেনায় ফেভারিট হিসেবেই নামেন নাদাল। কিন্তু প্রথম দুই সেট টাইব্রেকারে জিতে জয়ের পথে অনেকটাই এগিয়ে যান থিয়েম। অবশ্য তৃতীয় সেট ৬-৪ গেমে জিতে হুঙ্কার দিয়ে রাখেন ১৯টি গ্র্যান্ড সø্যাম জয়ী স্প্যানিশ নাদাল। কিন্তু শেষ সেটে অনেক ঘাম ঝরিয়েও আর পারলেন না। ৪ ঘন্টা ১০ মিনিটের ম্যাচটি থিয়েম জিতে নেন ৭-৬ (৩), ৭-৬ (৪), ৪-৬ ও ৭-৬ (৬) গেমে।

একই দিন তিনবারের গ্র্যান্ড সø্যামজয়ী স্তানিসøাস ভাভরিঙ্কাকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো গ্র্যান্ড সø্যামের সেমি-ফাইনালে ওঠেন জেভেরেভ। সাত নম্বর বাছাই এই অস্ট্রিয়ান ২০১৪ সালের চ্যাম্পিয়নকে হারান ১-৬, ৬-৩, ৬-৪, ৬-২ গেমে। আজই সেমি-ফাইনালে পাঁচ নম্বর বাছাই থিয়েমের প্রতিপক্ষ জার্মানির আলেক্সান্ডার জেভেরেভ। দুই জনই প্রথমবারের মতো খেলতে যাচ্ছেন প্রতিযোগিতাটির শেষ চারে। পুরুষ এককের অন্য সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হবেন রেকর্ড ২০ বারের গ্র্যান্ড সø্যামজয়ী ফেদেরার ও প্রতিযোগিতার রেকর্ড সাতবারের চ্যাম্পিয়ন নোভাক জোকোভিচ।

নারী এককে শেষ চারে উঠেছেন রোমানিয়ার সিমোনা হালেপ ও স্পেনের গার্বিনে মুগুরুসা। মাত্র ৫৩ মিনিটে এস্তোনিয়ার অনেত কোনতাভিয়েতকে ৬-১, ৬-১ গেমে হারান চার নম্বর বাছাই হালেপ। আর দুটি গ্র্যান্ড সø্যাম জেতা মুগুরুসা রাশিয়ার আনাস্তাসিয়া পাভলুচেঙ্কোভাকে হারান ৭-৫, ৬-৩ গেমে। আজই নারী এককের দ্বিতীয় সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হবেন তারা। দিনের প্রথম সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হবেন শীর্ষ খেলোয়াড় অ্যাশলি বার্টি ও যুক্তরাষ্ট্রের সোফিয়া কেনিন।

অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মুখোমুখি দুই ফেভারিট রজার ফেদেরার ও নোভাক জোকোভিচ। গত উইম্বলডন ফাইনালের ইতিহাসে দীর্ঘতম ম্যাচটাই খেলেছিলেন এই দু’জন। সেবার শিরোপাটা জেতা হয়নি সুইস কিংবদন্তির। ওটা উঠেছিল সার্বিয়ান তারকার হাতে। ফেদেরার প্রায় চার থেকে পাঁচবার জয়ের সুবাস পেয়েও পারেননি জোকোভিচের দুর্দান্ত প্রতিরোধের জন্য। উইম্বলডন ফাইনালের ইতিহাসে শেষ সেটে টাইব্রেকের মধ্য দিয়ে শিরোপার নিষ্পত্তি হওয়ার নজির দেখা গেল সেবারই প্রথম। ৭-৬ (৭/৫), ১-৬, ৭-৬ (৭/৪), ৪-৬, ১৩-১২ (৭/৩) গেমে জয়ী হয়েছিলেন জোকোভিচ। সে ম্যাচ শেষে ড্রেসিং রুমে গিয়ে ফেদেরার কেঁদেও ছিলেন। সেই যন্ত্রণাকে এবার শক্তিতে রূপান্তরিত করতে চান ফেদেরার। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিতে আবারও মুখোমুখি হচ্ছেন ‘বিগ থ্রি’ এর দুজন। ম্যাচের আগে আত্মবিশ্বাসী ফেদেরার জানিয়েছেন, এবার জোকোভিচকে হারাতে পারবেন তিনি, ‘আমার বিশ্বাস আমি নোভাক জোকোভিচকে হারাতে পারব।’ এবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে পাঁচটি ম্যাচ খেলেছেন, প্রথম দুটি ম্যাচ দিলে বাকি তিন ম্যাচেই ভক্তদের রক্তচাপ বাড়িয়ে দিয়েছিলেন ‘ফেড এক্সপ্রেস’। হারতে হারতে জিতেছেন সেই তিন ম্যাচ। তৃতীয় রাউন্ডে জন মিলম্যান, চতুর্থ রাউন্ডে হাঙ্গেরির খেলোয়াড় মার্টন ফুকসোভিকস আর সবশেষ কোয়ার্টারে যুক্তরাষ্ট্রের টেনিস স্যান্ডগ্রেনকে হারাতেও নিজের তো বটেই স্ত্রী, ভক্ত-সমর্থকদেরও ঊর্দ্ধশ্বাস বাড়িয়েছিলেন চরম আকারে। এমন কঠিন ম্যাচ খেলতে খেলতেই সাহস বেড়ে গেছে ‘বুড়ো’ ফেদেরারের। সেটাই উল্লেখ করেছেন তিনি, ‘আমি যদি এমন ম্যাচগুলো জিতে বের হয়ে আসতে পারি, বিশেষ করে মিলম্যানের ম্যাচটা যেভাবে জিতলাম, এমনভাবে ম্যাচ জিতলে মনের মধ্যে বিশ্বাস আসে। আর আমি হারের আগে হেরে বসি না। আমি সব সময় বিশ্বাস করি ম্যাচ হারার আগে হারব না।’

ফেদেরার ও জোকোভিচ দুজনই এখনও অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে অপরাজিত। ফেদেরারের মতে কোর্টের কাছ থেকে সুবিধাই পাচ্ছেন তারা, ‘এখানকার কন্ডিশনের সঙ্গে আমরা মানিয়ে নিতে পেরেছি। কোর্টের স্পিড এখানে বেশ ভালো বলেই মনে হচ্ছে, আমাদের খেলতে সাহায্য করছে।’

গত ১৬ বছরের মধ্যে ১৩ বারই অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতেছেন হয় নোভাক জোকোভিচ, নয় ফেদেরার। বাকি তিনবার জিতেছেন মারাত সাফিন (২০০৫), রাফায়েল নাদাল (২০০৯) ও স্ট্যান ভাভরিঙ্কা (২০১৪)।


ফেদেরারের মতে, বছরের শুরুতেই একটা বড় শিরোপা জিতলে বাকি বছরটা ফর্মে থাকা সহজ হয়ে যায়। যে কাজটা জোকোভিচও পারেন, ‘নোভাক এখন যা করছে আমি দশ বছর ধরে সেগুলো করেছি। বছরের শুরুতে ট্রফি জিতলে বছরটা দুর্দান্ত ভাবে শুরু করা যায়। আমরা দুজনই এই কাজটা বেশ কয়েকবার করতে পেরেছি ক্যারিয়ারে।’



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টেনিস

৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
১০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
২৮ মার্চ, ২০২০
২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন