Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৭, ২১ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

সংসদ নির্বাচনের সময় ইভিএমে ত্রুটি ছিল

সাংবাদিকদের সিইসি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩১ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

অবশেষে ইভিএমের ত্রুটির কথা স্বীকার করলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম ন‚রুল হুদা। তিনি বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণে ব্যবহৃত ইভিএমের ত্রুটি ছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার মোহাম্মদপুরে ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজে অনুষ্ঠিত ‘ইভিএমে মক ভোটদান প্রদর্শনী অনুষ্ঠান’ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) নিয়ে ভালো প্রস্তুতি রয়েছে দাবি করে সিইসি বলেন, প্রথমবার (জাতীয় সংসদ নির্বাচনে) ইভিএমে অনেক ত্রুটি ছিল। এরপর সেগুলো সংশোধন করে আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি।

সিইসি বলেন, আমাদের কমিশনার শাহাদাত হোসেন চৌধুরী ইভিএম দেখভাল করেন। এবার আমরা আগের ভুলগুলো সংশোধন করে দক্ষতার সঙ্গে প্রস্তুতি নিয়েছি। ‘বিভিন্ন মহলে ইভিএম নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। বিষয়টিকে ইসি কীভাবে দেখছে’ গণমাধ্যমকর্মীদের এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ইভিএম নিয়ে আমরা পুরোপুরি সন্তুষ্ট। কারণ, ভোটাররা এর মাধ্যমে ভোট দিতে পারছেন। তারা ভোট দেওয়ার একটা সহজ পদ্ধতি খুঁজে পেয়েছেন। যারা ভোট পরিচালনা করছেন, তারাও বলছেন এটি একটি সহজ পদ্ধতি। তবে যেহেতু এটি একটি নতুন প্রযুক্তি, তার জন্য মানুষের সন্দেহও থাকে। এতে তারা অভ্যস্ত হয়ে গেলে তখন সহজ হয়ে যাবে। যেকোনও নতুন বিষয় এলে বুঝতে একটু কষ্ট হয়। আজ যারা ভোট দিতে এসেছেন, তারা খুবই সন্তুষ্ট হয়েছেন। প্রচারটা হবে মানুষের ব্যবহারের ওপর।

ইভিএমে ভোট দেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে ন‚রুল হুদা বলেন, ভোট দেওয়ার পদ্ধতি নিয়ে বিলবোর্ড, সিনেমা হল, মসজিদ, বণিক সমিতি, মহল্লার বিভিন্ন সোসাইটিসহ সবখানেই ব্যাপক প্রচার চালানো হচ্ছে। লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে। এর বাইরে মিডিয়ায়ও অনেক প্রচার হয়েছে। লিফলেটটা যদি একজন শিক্ষিত লোক দেখেন, তিনি বুঝতে পারবেন।

‘ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিতে দেরি হবে কিনা’ এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ইভিএমে বিলম্ব হওয়ার কোনও কারণ নেই। তবে বিলম্ব হবে। সহজও হবে। বিলম্ব হলেও চারটার পরে যদি কিছু ভোটার থেকে যান, তাদের আমরা নিয়ে নেবো। কেউ এসে ভোট না দিয়ে চলে যাবেন না। তিনি আরও বলেন, ঢাকা শহরটা হচ্ছে একটা চ্যালেঞ্জিং শহর। এখানে ৫৪ লাখ ভোটার ও ১৫টি সংসদীয় আসনের ওপর আমরা এই ইভিএমে ভোট নিচ্ছি। এটি একটি সাহসী পদক্ষেপ।

এর আগে নির্বাচন কমিশন ভবনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর সমর্থনে সমাবেশ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, নির্বাচন কমিশনকে না জানিয়ে আওয়ামী লীগের এমন সমাবেশ করা উচিত নয়নি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিইসি


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ