Inqilab Logo

বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৫ মাঘ ১৪২৮, ১৫ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

কেন্দ্র দখল নয়, পাহারা দিব : ইশরাক

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩১ জানুয়ারি, ২০২০, ৭:০৪ পিএম

ভোটারদের নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন। তিনি বলেন, কেন্দ্র দখল নয়, ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারেন, সেজন্য আমরা ভোট কেন্দ্র পাহারা দিব। শুক্রবার দুপুরে গুলশানের বে টাওয়ারে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসের পলিটিক্যাল কাউন্সিলরের ব্রেন্ট ক্রিসটেনসন এর সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

বিদেশী কূটনীতিকদের সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে জানতে চাইলে ইশরাক বলেন, এটা পূর্ব নির্ধারিত সৌজন্য সাক্ষাত। আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সাথেও এরকম সাক্ষাত করেছেন উনি। আমি আমার বক্তব্য জানিয়েছি, আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী তাঁর বক্তব্য জানিয়েছেন। এই সাক্ষাতকার নিয়ে উদ্বিঘœ হওয়ার কিছু নাই।

তিনি বলেন, উনি আমার কাছে জানতে চেয়েছেন, নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি কেমন এবং আগামীকাল কি কি শঙ্কা আমাদের রয়েছে। আমি ইভিএম-এর বিষয়টা বলেছি এবং ঢাকার বাইরে থেকে বিভিন্ন জেলায় কমিটি করে সরকার দলীয় সন্ত্রাসীদের ঢাকায় জড়ো করা হচ্ছে, কেন্দ্র দখলের একটা পাঁয়তারা করা হচ্ছে- এই বিষয়গুলো নিয়ে তাদের সাথে আমরা কথা বলেছি।

বৈঠকে কয়েকদিন আগে গোপীবাগের নির্বাচনী প্রচারণার মিছিলের ওপর স্থানীয় আওয়ামী লীগের কর্মীদের হামলার বিষয়টিও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধির সঙ্গে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে আলোচনা হয়েছে বলে জানান তিনি। ইশরাক জানান, ভোটের দিন দক্ষিণ ও উত্তরে বিভিন্ন কেন্দ্রে তাদের পর্যবেক্ষক টিম যাবেন। রুদ্ধদ্বার এই বৈঠকে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সও ছিলেন।

ভোটের দিনটা কেমন যাবে প্রশ্ন করা হলে ইশরাক হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, কালকের দিনটা কেমন যাবে সেটা কেবল মহান আল্লাহতাআলা বলতে পারবেন। আমরা খালি পূর্ব অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি যে, কি কি ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকা- সরকারি দলের প্রার্থীদের পক্ষ থেকে চালানো হতে পারে। আমি দেখেছি যে, বেশিরভাগ জরিপগুলোতে ধানের শীষ ৮০ পারসেন্টে এগিয়ে আছে। এগুলো দেখে হয়ত তারা (সরকারি দল) জোর-জবরদস্তি করে কেন্দ্র দখল করার চেষ্টা করবে। আমাদের যে একটা গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে তা ওরা রুখতে চাচ্ছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের একজন সিনিয়র নেতা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের বলেছেন কেন্দ্র দখল করার জন্য। এটা কেমন কথা? এসব উষ্কানিমুলক কথা। এর আগেও আমার উপর হামলা চালানো হল বিনা উষ্কানিতে। আমি বলতে চাই, এবার কিন্তু দখলদারিত্ব মেনে নেয়া হবে না, ভোটাররা মেনে নেবে না। আমরা কেন্দ্র পাহারা দেবো, দখলমুক্ত করে ভোটারদের ভোট দেয়ার জন্য পরিবেশ তৈরি করব। আপনারা কতগুলো কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে করছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা প্রায় ৪০০ কেন্দ্রের মতো ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছি। কিন্তু এর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

গতকাল বিএনপি'র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভি আহমেদের ওপর হামলার ঘটনার উল্লেখ করে ইশরাক বলেন, গণমাধ্যমে এসব খবর গুরুত্ব সহকারে প্রকাশিত হচ্ছে না। জনগণকে জানাতে হবে আমাদের সাথে কি হচ্ছে। আমি ইসলামি ব্যাংক সেন্ট্রাল হসপিটালে রিজভি আহমেদকে দেখতে গিয়েছিলাম। উনি গুরুতর আহত, পায়ে কোপ মারা হয়েছে, শরিরের কয়েক জায়গায় ব্যান্ডজ। অথচ এ নিয়ে গণমাধ্যমে তেমন কোন সাড়া পরেনি।

তিনি সাংবাদিকদের সঠিক সংবাদ পরিবেশনের অনুরোধ জানিয়ে বলেন, গণমাধ্যম আমাদের শেষ আস্থাস্থল। বাংলাদেশের আর কোন প্রতিষ্ঠানের উপর আমাদের আস্থা নেই। আপনারা সঠিক তথ্যটা জনগণের সামনে তুলে ধরবেন- এটাই আমার অনুরোধ।

খবর এসেছে পুরনো মামলার কথা বলে বিভিন্ন ওয়ার্ডে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান চালাচ্ছে এ বিষয়ে আপনি কিছু জানেন কিনা বা নির্বাচন কমিশনের কোনো অভিযোগ দিয়েছেন কিনা জানতে চাইলে বিএনপির এই মেয়র প্রার্থী বলেন, আমরা সবই জানি। সব তথ্যই আমাদের কাছে এসেছে। এই পর্যন্ত আমরা রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অনেক অভিযোগ দিয়েছি, কমিশনে অভিযোগ দিয়েছি। কিন্তু এর কোনো প্রতিকার পাইনি। তাই আমি মনে করি এখন আর তাদের কাছে এগুলো জানিয়ে কোন লাভ হবেনা। এর পেছনে আমি সময় অপচয় করতে চাচ্ছি না। এখন শুধু আগামীকালকের ভোট নিয়ে ভাবছি। পোলিং এজেন্ট নিশ্চিত করা এবং ভোটাররা যাতে নির্বিঘেœ ভোটকেন্দ্রে যেতে পারে সে ব্যবস্থার বিষয় নিয়েই ভাবছি।

ভোটারদের কেন্দ্রে গিয়ে ভোট প্রদানের আহবান জানিয়ে ইশরাক বলেন,সকলে নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিবেন। কোন ভয়-ভীতিকে গ্রাহ্য করবেন না। আপনাদের সহায়তা করার জন্য প্রত্যেকটি কেন্দ্রে আমাদের কর্মী থাকবে। এছাড়াও আমি আমার গোপীবাগস্থ প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে একটি কন্ট্রোল রুম স্থাপন করেছি। নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা পর্যন্ত এই কন্ট্রোল রুম খোলা থাকবে। সাবইকে অনুরোধ করবো, যে কোন প্রয়োজনে এই কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করবেন। ইশরাক হোসেন গোপীবাগ জামে মসজিদে জুম্মার নামাজ শেষে জুরাইন কবরস্থানে শায়িত বাবা সাদেক হোসেন খোকার কবর জিয়ারত করেন ইশরাক হোসেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সিটি নির্বাচন

১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ