Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৪ আশ্বিন ১৪২৫, ৮ মুহাররাম ১৪৪০ হিজরী‌

ভারতে বাংলাদেশবিরোধী বিক্ষোভ পণ্য রফতানি বন্ধের হুমকি

প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১১:৪৬ পিএম, ১ জুলাই, ২০১৬

ইনকিলাব ডেস্ক : বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দু নির্যাতন বন্ধ না হলে ভারত থেকে সব ধরনের পণ্য রফতানি বন্ধ করে দেয়ার হুমকি দিয়েছে দেশটির হিন্দুত্ববাদী দু’টি সংগঠন হিন্দু সংহতি ও হিন্দু জাগরণ মঞ্চ। তারা বলেছে, হিন্দুদের ওপর অত্যাচার বন্ধ না হলে বাংলাদেশে এক বস্তা নুনও যাবে না। গত বৃহস্পতিবার কলকাতা কলেজ স্কোয়ার থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত বাংলাদেশে হিন্দু হত্যার প্রতিবাদ বিক্ষোভ ও সমাবেশে এ হুমকি দেয়া হয়।
এর আগে বুধবার কলকাতার বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনারের কাছে স্মারকলিপি দেয় হিন্দু সংহতি। সংগঠনটির সভাপতি তপন ঘোষ স্মারকলিপিতে বাংলাদেশ সরকারের কাছে সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার বন্ধ করার আবেদন জানান।
হিন্দু জাগরণ মঞ্চ (দক্ষিণবঙ্গ)-এর সাধারণ সম্পাদক স্বরূপ দত্ত বলেন, এই প্রতিবাদ মিছিলের মধ্য দিয়ে আন্দোলন শুরু হলো। পরবর্তী পর্যায়ে যা আরো তীব্র হবে। তিনি বলেন, ‘ভারতে বহু বাংলাদেশী চিকিৎসার জন্য আসেন, আমরা তার বিরুদ্ধে নেই। আমরা দুই বাংলার সুসম্পর্কের বিরোধী নই। কিন্তু বাংলাদেশে হিন্দুদের বিরুদ্ধে যেভাবে অত্যাচার চলছে তার প্রতিবাদটুকুও হবে না?’
আর হিন্দু সংহতি স্মারকলিপিতে বলেছে, ‘বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের ওপর এবং মুক্তচিন্তার
মানুষদের ওপর যেভাবে আক্রমণ নেমে আসছে তার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। পাকিস্তান থেকে আলাদা হওয়ার পরই বাংলাদেশে হিন্দুরা ইসলামিক মৌলবাদীদের দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছেন। তবে সম্প্রতি হিন্দুদের ওপর আক্রমণ আরো তীব্র হয়েছে। হিন্দু পুরোহিতদের কুপিয়ে খুন, হিন্দু মহিলাদের ওপর যৌন অত্যাচারের ঘটনা নিত্যনৈমিত্তিক হয়ে দাঁড়িয়েছে।
এ পরিস্থিতিতে আমরা বাংলাদেশ সরকারের কাছে আবেদন জানাচ্ছি সংখ্যালঘু হিন্দুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য। কারণ এই প্রবণতা যদি চলতে থাকে তাহলে সীমান্তবর্তী অঞ্চলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করা কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। আমরা বাংলাদেশের শুভবুদ্ধিসম্পন্ন মানুষের কাছেও আবেদন রাখছি এ ধরনের ঘটনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদের সুর তুলে ধরার জন্য। সূত্র : দৈনিক যুগশঙ্খ।



 

Show all comments
  • সবুজ ২ জুলাই, ২০১৬, ১২:৫০ পিএম says : 0
    আমরা কি কিছুই করতে পারি না।
    Total Reply(0) Reply
  • হুমায়ন ২ জুলাই, ২০১৬, ১২:৫৪ পিএম says : 0
    প্রতিটি হত্যাকাণ্ডের বিচার আমরাও চাই। তবে ভারতের পণ্য না হলেও আমাদের চলবে।
    Total Reply(0) Reply
  • রেজাউল ২ জুলাই, ২০১৬, ১২:৫৬ পিএম says : 0
    যখন ভারতে মুসলমান নির্যাতন হয়, তখন এরা কোথায় থাকে ?
    Total Reply(0) Reply
  • Sujon ২ জুলাই, ২০১৬, ১২:৫৬ পিএম says : 0
    lagbe na apnader product
    Total Reply(0) Reply
  • kamal ২ জুলাই, ২০১৬, ২:২০ পিএম says : 0
    tahole to tora (indian ra) na kheye morbi,,, ......... sob .............
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ