Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২১, ১৩ মাঘ ১৪২৭, ১৩ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

ব্যাংকে নৈতিকতা এককভাবে কাজ করতে পারে না

বিআইবিএম অডিটোরিয়ামে ড. আতিউর রহমান

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০৩ এএম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ার প্রফেসর এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেছেন, ব্যাংকে নৈতিকতা এককভাবে কাজ করতে পারে না। এটা নির্ভর করে সার্বিক সমাজের নৈতিকতা ও মূল্যবোধের ওপর।
গতকাল বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) অডিটোরিয়ামে ১৯তম নুরুল মতিন মেমোরিয়াল লেকচার ‘ইথিকস ইন ব্যাংকিং’ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিআইবিএম গভর্নিং বোর্ডের চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিআইবিএম’র মহাপরিচালক ড. মো. আখতারুজ্জামান। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বিআইবিএম’র প্রফেসর এবং পরিচালক (গবেষণা, উন্নয়ন এবং পরামর্শ) ড. প্রশান্ত কুমার ব্যানার্জ্জী।

মূল প্রবন্ধে ড. আতিউর রহমান বলেন, বাংলাদেশে দারিদ্র্যতা দ্রæত কমে যাচ্ছে। এমডিজি’র লক্ষ্যগুলো ভালোভাবে অর্জন করেছি। এখন এসডিজি’র কয়েকটি লক্ষ্য ভালো অগ্রগতি হয়েছে। ২০৩০ সালের মধ্যে এসব লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব। মানব উন্নয়ন সূচকে পার্শ্ববর্তী উচ্চ আয়ের দেশগুলোর তুলনায় ভালো অর্জিত হয়েছে। ২০১৯ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি বাংলাদেশের। চলমান উচ্চ প্রবৃদ্ধি ধরে রাখতে পারলে আগামী বছরে বিশ্বের মধ্যে সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

তিনি বলেন, উচ্চ এবং উন্নয়নশীল যে কোন অর্থনীতিতে অর্থায়নের মূল বিষয় হলো বিশ্বাস। এ বিশ্বাস স্থাপন করা সম্ভব হলেই ব্যাংক, নন -ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং ক্যাপিটাল মার্কেটে বিনিয়োগ করবে। তবে এক্ষত্রে আর্থিক ঝুঁকিগুলো মূল্যায়ন করতে হবে।
গভর্নর ফজলে কবির বলেন, আর্থিক অর্ন্তভুক্তিতে বাংলাদেশ ব্যাংক অগ্রাধিকার দিচ্ছে। এ কারণে কেন্দ্রীয় ব্যাংক শক্ত আর্থিক অবকাঠামো বিনির্মাণে গুরুত্ব দিচ্ছে যাতে আর্থিক ঝুঁকি হ্রাস পায়। যাতে দারিদ্র্য বিমোচন ও মানুষের জীবন যাত্রার মান অনেকাংশে বেড়ে যায়।
উল্লেখ্য, এএফএম নুরুল মতিন ১৯২৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৫১ সালে তদানিন্তন স্টেট ব্যাংক অব পাকিস্তানের গবেষণা বিভাগে প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে ১৯৬৩ সালে তাঁর চাকুরী ঐ ব্যাংকের অপারেশন বিভাগে স্থানান্তরিত হয়। তাঁর দীর্ঘ ব্যাংকিং জীবনে তিনি স্টেট ব্যাংক অব পাকিস্তানে নির্বাহী পরিচালক, ইক্যুইটি পার্টিসিপেশন ফান্ড এর নির্বাহী পরিচালক, বাংলাদেশ শিল্প ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও চেয়ারম্যান এবং পরবর্তীতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর সহ বহু ঊর্দ্বতন পদমর্যাদায় দায়িত্ব পালন করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিআইবিএম

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন