Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ২৬ চৈত্র ১৪২৬, ১৪ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

ফেসবুকের সিওও শেরিলের বাগদান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৫:১০ পিএম

দ্বিতীয় বিয়ে করতে চলেছেন ফেসবুকের চিফ অপারেটিং অফিসার শেরিল স্যান্ডবার্গ (৫০)। লস অ্যাঞ্জেলসভিত্তিক কৌশলগত পরামর্শদাতা প্রতিষ্ঠান কেলটন গ্লোবালের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা টম বের্নথালের (৪৬) সাথে তার বাগদান হয়েছে বলে সোমবার নিজেই ঘোষণা দিয়েছেন শেরিল। খবর নিউইয়র্ক টাইমস।

নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডলে বাগদত্তার সঙ্গে তার একটি সাদা-কালো একটি ছবি পোস্ট করে বিষয়টি জানিয়েছেন ফেসবুকের এই নির্বাহী। লিখেছেন, ‘এনগেজড!!! টম বের্নথাল, তুমি আমার সবকিছু। এর চেয়ে আর বেশি ভালোবাসতে পারব না তোমাকে।’ ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বাগদত্তা বের্নথালের দিকে অপলক দৃষ্টিতে চেয়ে আছেন শেরিল স্যান্ডবার্গ।

ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী ও তার দীর্ঘ দিনের বন্ধু মার্ক জুকারবার্গ তাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে লিখেছেন, ‘অভিনন্দন, তোমরা দু’জন দু’জনের জন্য চমৎকার এবং আমি তোমাদের দু’জনের জন্য খুবই আনন্দিত।’

পিপল ম্যাগাজিনের খবরে বলা হয়েছে, ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে পর্বতে একসঙ্গে ঘুরতে বেরিয়ে আলোচনায় আসেন এই জুটি। এতে আরও বলা হয়, বাগদান অনুষ্ঠানে বের্নথাল স্যান্ডবার্গকে যে আংটি পরিয়েছেন তাতে মোট পাঁচটি হীরার টুকরো বসানো রয়েছে। যা তাদের পাঁচ ছেলেমেয়ের চিহ্নস্বরূপ।

স্যান্ডবার্গের আগের পক্ষের দুটি সন্তান রয়েছে। অপরদিকে বের্নথালের রয়েছে তিন সন্তান। ২০১৫ সালে আকষ্মিক দুর্ঘটনায় মারা যান স্যান্ডবার্গের স্বামী ডেভিড গোল্ডবার্গ। গত বছর স্যান্ডবার্গের আগের পক্ষের স্বামীর ভাইয়ের মাধ্যমে একে অপরের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সুযোগ পান এই জুটি। এরপর তারা এক বছর ধরে ডেটিং করে আসছেন।

নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, ৪৬ বছর বয়সী টম বের্নথাল এর আগে আমেরিকান টেলিভিশন এনবিসিতে কাজ করেছেন। সেখান থেকে তিনি টেলিভিশন প্রযোজক হিসেবে ‘অ্যামি আওয়ার্ড’ জেতেন।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সাবেক ছাত্রী শেরিল স্যান্ডবার্গ এর আগে কাজ করেছেন বিশ্বব্যাংক, গুগলসহ বিভিন্ন খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানে। ১৯৬৯ সালে ওয়াশিংটন ডিসিতে জন্ম নেয়া এই নারী ২০১৭ সালে টাইম সাময়িকীর করা বিশ্বের ১০০ প্রভাবশালী মানুষের তালিকায় স্থান করে নেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফেসবুক

৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
২১ জানুয়ারি, ২০২০
৬ জানুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন