Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১২ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

আদম তমিজি হকের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ

ব্রিটিশ নাগরিকের লিগ্যাল নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৩০ এএম

চুক্তি লঙ্ঘন এবং প্রতারণার ফলে ৪২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে ‘হক গ্রপ’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক আদম তমিজি হককে লিগ্যাল নোটিস দেয়া হয়েছে। বৃটিশ নাগরিক জেরেমি ইউলিম্যানের পক্ষে সুপ্রিমকোর্ট বারের ব্যারিস্টার সাকিব মাহবুব এ নোটিস দেন। দুবাইয়ে বাড়ি কেনার জন্য আদম তমিজি হক বৃটিশ নাগরিকের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন এবং পরে চুক্তি ভঙ্গ করেন-মর্মে উল্লেখ করা হয় লিগ্যাল নোটিসে। ২০১৮ সালের শুররুত ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের হয়ে মেয়র পদে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করতে চেয়েছিলেন তমিজি হক। কিন্তু দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় তিনি নির্বাচন করতে পারেননি।
লিগ্যাল নোটিসে দাবি করা হয়,দুবাইয়ে বাড়ি কিনবেন বলে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পর সেই বাড়ির মালিকের কিস্তি পরিশোধ করা পূর্ব পর্যন্ত ভাড়াটিয়া হিসেবে থাকার অনুমুতির নিয়েছিলেন তমিজি। কিন্তু তিনি ওই বাড়ির মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে বাড়ি ত্যাগ করেন। পরে বাড়ির মালিক গিয়ে দেখেন তার ঘরের মূল্যবান জিনিসপত্র খোয়া গেছে। কিন্তু আদম তমিজির কোনো হদিস পাচ্ছেন না তিনি। নোটিসে উল্লেখ করা হয়, আদম তমিজি হক দুবাইয়ে একটি বিলাসবহুল ভিলা বাড়ি ৬৬.৪ কোটি টাকা দামে কিস্তিতে কেনার জন্য বৃটিশ নাগরিক জেরেমি উইলিম্যানের সঙ্গে ২০১৯ সালের ২৮ আগস্ট চুক্তি করেন। চুক্তিতে উইলম্যানকে ৮৪টি সমান কিন্কিকে মূল্য পরিশোধের সিদ্ধান্ত হয়। ইতোমধ্যে, বিক্রয়মূল্যের সম্পূর্ণ অর্থ পরিশোধের আগেই তমিজি হক ওই বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে থাকার জন্যও চুক্তিবদ্ধ হন। তবে কিছু কিস্তি দেয়ার পরই আদম তমিজি হক কিস্তি পরিশোধ বন্ধ করে দেন। চলে আসেন দুবাই ছেড়ে। পরে উইলিম্যান জানতে পারেন যে, আদম তমিজি হক দুবাইয়ে তার সমস্ত ব্যাংক একাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছেন। উইলিম্যান বাড়িটি সরেজমিনে পরিদর্শন করতে গিয়ে দেখতে পান যে, তার অনুমোদন বা সম্মতি ছাড়াই ওই বাড়ি থেকে দামি আসবাবপত্র, ইলেকট্রনিক আইটেম এবং ফিটিংস সরিয়ে ফেলাসহ পুরো সম্পত্তি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করা হয়েছে। অথচ চুক্তি অনুসারে সমস্ত কিস্তি পরিশোধ না হওয়া পর্যন্ত বাড়ির মালামাল উইলিম্যানের মালিকানায় থাকার কথা ছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ব্রিটিশ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ