Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

আলুর কোল্ড স্টোরেজে ১৭০ মণ মিষ্টি

প্রকাশের সময় : ৩ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বি এম হান্নান, চাঁদপুর থেকে : চাঁদপুরে আলুর কোল্ড স্টোরেজে অবৈধভাবে সংরক্ষণ করা ১৭০ মণ মিষ্টির সন্ধান পেয়েছে কোস্টগার্ড। জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত তাৎক্ষণিক ১০ মিষ্টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা করে ১ লাখ টাকা জরিমানা করে। সেই সাথে আনুমানিক সাড়ে দশ লাখ টাকার মিষ্টি ধ্বংস করা হয় বলে ভ্রাম্যমাণ আদালত জানায়। শহরের বাণিজ্যিক এলাকা পুরানবাজার পূবালী আইস অ্যান্ড কোল্ড স্টোরেজে গত ২৯ জুন (বুধবার) এ ঘটনা ঘটে।
শহরের একমাত্র কোল্ড স্টোরেজে ‘কেঁচো খুড়তে গিয়ে সাপ’ অর্থাৎ ইলিশের পোনা জাটকা খুঁজতে গিয়ে মিষ্টির সন্ধান পাওয়ায় জেলার প্রায় অর্ধশতাধিক কোল্ড স্টোরেজের দিকে সন্দেহের তীর দানা বাঁধছে। সচেতন শহরবাসী মনে করেন, অসাধু মিষ্টি ব্যবসায়ীদের অপতৎপরতা রোধ করতে এখনই অন্যান্য কোল্ড স্টোরেজে অভিযান পরিচালনা করা জরুরি হয়ে পড়ছে।
নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক পূবালী আইস অ্যান্ড কোল্ড স্টোরেজের এক কর্মকতা জানান, প্রতি বছর ঈদ সামনে রেখে ব্যবসায়ীরা মিষ্টি সংরক্ষণ করে থাকেন। এছাড়া বাজারে দুধের দাম কম থাকলেই মিষ্টি তৈরি করে ব্যবসায়ীরা কোল্ড স্টোরেজে রাখেন।
চাঁদপুর কোস্টগার্ড স্টেশন কমান্ডার সাব লেফটেন্যান্ট এম আতাহার আলী জানান, পূবালী আইস অ্যান্ড কোল্ড স্টোরেজে বিপুল পরিমাণ জাটকা সংরক্ষণ রয়েছে এমন গোপন খবরের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালায় কোস্টগার্ড। কিন্তু সেখানে জাটকা না থাকলেও প্রায় ১২০টি প্লাস্টিকের ড্রামভর্তি মিষ্টি সংরক্ষণ অবস্থায় পাওয়া যায়। জেলা প্রশাসককে অবহিত করে মিষ্টিগুলো জব্দ করা হয়।
খবর পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সঞ্জয় কুমার মোহন্ত ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চাঁদপুরের সহকারী পরিচালক দেবাশীষ রায় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হয়।
ভোক্তা অধিকার আইন ২০০৯-এর ৪৩ ধারায় কোল্ড স্টোরেজে মিষ্টি রাখা চাঁদপুরের দশটি মিষ্টি বিক্রয় প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা আদায় এবং সমুদয় মিষ্টি ধ্বংস করার জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত রায় দেয়। রাত ৯টা পর্যন্ত ১১৩ ড্রামে রক্ষিত প্রায় ১৭০ মণ মিষ্টি কয়লাঘাট ডাকাতিয়া নদীতে ফেলে বিনষ্ট করা হয়। কৃষ্ট ক্যাফে, ক্যাফে ঝিল, প্যারাডাইজ সুইটস্, মিষ্টি মেলা, শ্রী কৃষ্ণ ঘোষ, খায়ের মুন্সী, যোগল ঘোষ, সুরেশ ঘোষ, করুণাময়ী মিষ্টান্ন ভাÐার ও বালিয়ার ইত্যাদি মিষ্টি বিতান এসব ব্যবসায়ীর মিষ্টি কোল্ড স্টোরেজে রাখা ছিল।



 

Show all comments
  • রুবেল খাঁন। ১৪ নভেম্বর, ২০১৭, ৫:১০ এএম says : 0
    অসামাজিক কার্যকলাপের জন্য উপযুক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য ধন্যবাদ ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ