Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

আ.লীগের জিম্মায় ইউপি সদস্য

সিলেট ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

পুলিশের হাতে আটক সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম ছাড়া পেয়েছেন। তার মুক্তিতে আন্দোলনে নেমেছিল উপজেলা ছাত্রলীগ। এ ঘটনায় সিলেটে তোলপাড় চলছে।
জানা যায়, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ থানার যৌথ অংশে ধুপড়িয়া বিল নিয়ে সৃষ্ট ঘটনায় দুর্নীতি, প্রভাব বিস্তার ও উত্তেজনা সৃষ্টির দায়ে গত মঙ্গলবার রাতে আটক করা হয় আব্দুল কাইয়ুমকে। আটকের পর তার মুক্তির দাবিতে গভীর রাতে মিছিল করে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ। পরবর্তীতে গতকাল সকাল থেকে আন্দোলন বিক্ষোভ করে সড়কে অগ্নিসংযোগ করে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এ সময় ফেঞ্চুগঞ্জ সেতুর দু’পাশে যানবাহন আটকে যায়। পরে আব্দুল কাইয়ুমকে মুক্তি দেয় ফেঞ্চুগঞ্জ থানা পুলিশ।

এ ব্যাপারে ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ওসি আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান জানান, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ দায়িত্ব নিয়েছে আব্দুল কাইয়ুমের ওপর আনিত অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখে নিরসন করবে তাই উনাকে আপাতত ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

এদিকে, আব্দুল কাইয়ুমকে আটক ও পরবর্তীতে ছেড়ে দেয়ার ঘটনায় ভিন্ন বক্তব্য দিচ্ছে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ফেঞ্চুগঞ্জ থানা। আটকের পরপর ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ওসি আবুল বাসার মোহাম্মদ বদরুজ্জামান বলেন, কেউ পুলিশের উপস্থিতিতে আইনশৃঙ্খলা অবনতি ঘটাতে চাইলে তাকে আটক করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা পুলিশের দায়িত্ব। অথচ পরক্ষণে ওসি বলেন, উপজেলা আ.লীগ দায়িত্ব নেয়ায় কাইয়ুমকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। আ.লীগের লিখিত জিম্মানামার ভিত্তিতে আব্দুল কাইয়ুমকে ছাড়া হয়েছে। ওই জিম্মানামাটি সাংবাদিকদের দেখাতে অসম্মতি জানিয়ে ওসি বলেন, অফিসিয়াল বাধ্যবাধকতা আছে তাই দেখাতে পারছি না।
অপরদিকে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত আলী বলেন, আমি বা আ.লীগের কোনো নেতা জিম্মানামায় স্বাক্ষর করিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আ.লীগ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ