Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আলহাজ মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) মাদরাসা শিক্ষার উন্নয়নে আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন

ঈসালে ছাওয়াব মাহফিলে এ এম এম বাহাউদ্দীন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৮:৫৭ পিএম | আপডেট : ১০:১৯ পিএম, ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আলহাজ মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) মাদরাসা শিক্ষার উন্নয়নে আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। এদেশে ইসলামকে টিকিয়ে রাখতে হলে মাদরাসা শিক্ষা ও আলেম ওলামাদের ইজ্জতকে বুলন্দ করতে হবে এটা মরহুম মাওলানা এম এ মান্নান উপলব্দি করতে পেরেছিলেন। বাংলাদেশকে মুসলিম বিশ্বে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন মরহুম মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) । গতকাল বৃহস্পতিবার বাদ মাগরিব মহাখালিস্থ মসজিদে গাউছুল আজম কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সাবেক সভাপতি, মসজিদে গাউছুল আজম কমপ্লেক্স ও দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) এর ১৪ তম ঈসালে ছাওয়াব মাহফিলে সভাপতিত্বের বক্তব্যে জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সভাপতি ও দৈনিক ইনকিলাবের সম্পাদক এ এম এম বাহাউদ্দীন এসব কথা বলেন।

ঈসালে ছাওয়াব মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মহাসচিব প্রিন্সিপাল মাওলানা শাব্বির আহমদ মোমতাজী, জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক প্রিন্সিপাল মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, দারুননাজাত সিদ্দিকীয়া কামিল মাদরাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা জহিরুল ইসলাম, জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ঢাকা মহানগরীর সেক্রেটারি মাওলানা আবু জাফর মো.ছাদেক, নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি মাওলানা আব্দুল হাই, মাওলানা আ ন ম হেলালুদ্দিন, মাওলানা এ বি এম আব্দুস ছালাম,মাওলানা এজহারুল হক, ফরিদপুর জেলা সভাপতি মাওলানা আবু ইউসুফ মৃধা, প্রিন্সিপাল মাওলানা আমিনুর রহমান, মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ পাটওয়ারী, মাওলানা মো. যোবায়ের, মাওলানা আবু জাফর মো.সালেহ, মাওলানা মো. আব্দুল খালেক, মাওলানা মো. ছফিউল্লাহ, মাওলানা মো. মোস্তাফিজুর রহমান ও মাওলানা শামসুল হক কাশেমী।

এ এম এম বাহাউদ্দীন বলেন, মরহুম মাওলানা এম এ মান্নান একজন বড় মাপের অলি ছিলেন। তিঁনি এদেশের আলেম সমাজের অধিকার প্রতিষ্ঠায় অতন্দ্র প্রহরী ছিলেন। এদেশে দ্বীন প্রতিষ্ঠায় যথযথা খেদমত এবং ইসলামের প্রচার প্রসারে মরহুম এম এ মান্নানের অবদানের কথা দেশবাসি সারাজীবন স্মরণ করবে। মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন মহাখালি হোছাইনিয়া মাদরাসার মুহাদ্দিস মাওলানা মাহবুবুর রহমান।

চট্টগ্রাম ব্যুরোর দোয়া মাহফিল
চট্টগ্রাম ব্যুরো জানান, দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক মন্ত্রী মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.)-এর ১৪তম ইন্তেকাল বার্ষিকীতে গতকাল বৃহস্পতিবার বাদ আছর চট্টগ্রাম ব্যুরোর উদ্যোগে দোয়া মাহফিল নগরীর এনায়েত বাজার শাহী জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। এতে মোনাজাত পরিচালনা করেন মসজিদের সহকারী ইমাম হাফেজ মাওলানা রকিবুল ইসলাম। দোয়া ও মোনাজাতে মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.)-এর রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়। দৈনিক ইনকিলাব সম্পাদক আলহাজ এ এম এম বাহাউদ্দীনের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু এবং দৈনিক ইনকিলাব ও জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। এতে চট্টগ্রাম ব্যুরোর সাংবাদিক ও কর্মকর্তাগণ ছাড়াও বিপুল সংখ্যক মুসল্লি শরিক হন।

ফরিদগঞ্জে আলোচনা সভা ও দোয়ার মাহফিল
ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, আলেমকুল শিরমণি বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের সাবেক সভাপতি, সাবেক ত্রাণ ও পূনর্বাসন মন্ত্রী লাখ আলেমের ওস্তাদ, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন ইসলামী চিন্তাবিদ মরহুম মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) এর ১৪তম ইন্তেকাল বার্ষিকীতে তারই স্মৃতিধন্য ঐতিহ্যবাহী ফরিদগঞ্জ মজিদিয়া কামিল মাদরাসা মিলনায়তনে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
প্রিন্সিপাল ড. মাওলানা এ কে এম মাহবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে ও ছাত্র জমিয়তের জিএস মুহা. মাকছুদুল আমিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মাহফিলে মরহুমের অসামান্য অবদানের উপর আলোচনা পেশ করেন ভাইস প্রিন্সিপাল মুফতি এইচ এম আনোয়ার মোল্লা, প্রধান মুহাদ্দিস আলহাজ মমিনুল ইসলাম খান, প্রধান ফকীহ মাওলানা ইকবাল হোসাইন, জমিয়াতুল মোদার্রেছীন ফরিদগঞ্জ উপজেলা সেক্রেটারী প্রিন্সিপাল মাওলানা মিজানুর রহমান আখন্দ।

সভাপতির বক্তব্যে ড. মাওলানা এ কে এম মাহবুবুর রহমান বলেন, মরহুম মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) ছিলেন আওলাদে অলী, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন ইসলামি ব্যক্তিত্ব, মাদরাসা, কলেজ, স্কুলের শিক্ষক সমাজের অবিসংবাদিত নেতা, বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা। আরবি, ইংরেজী ও ফারসি ভাষায় ছিল সমান দক্ষতা। এ দেশের আলেম সমাজ ও মাদরাসা ছাত্রদের জন্য অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব। দৈনিক ইনকিলাব ও গাউসুল আজম কমপ্লেক্সের প্রতিষ্ঠাতা। তার অবদান কেয়ামত পর্যন্ত এ দেশের মানুষ স্মরণ করবে। মিলাদ মাহফিল শেষে মরহুমের সু-উচ্চ মাকাম নসিবের জন্য দোয়া পরিচালনা করেন প্রিন্সিপাল ড. মাওলানা এ কে এম মাহবুবুর রহমান।



 

Show all comments
  • মোহাম্মদ মোশাররফ ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১০ পিএম says : 0
    বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, সাবেক ধর্ম ও ত্রাণমন্ত্রী, মসজিদে গাউছুল আজম ও দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) কেবল একটি নাম নয়, একটি চেতনা, একটি নেতৃত্ব এবং একটি সাধনার প্রতীক। তিনি ছিলেন তীক্ষè মেধার অধিকারী প্রথিতযশা মহাক্কেক।
    Total Reply(0) Reply
  • নাজারেথ স্বনন ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১০ পিএম says : 0
    মরহুম মাওলানা এম এ মান্নান (রহ) ছিলেন এক খানদানী ঐতিহ্যের অধিকারী ক্ষণজন্মা ব্যক্তিত্ব, একটি ইতিহাস ও চেতনা।
    Total Reply(0) Reply
  • ** হতদরিদ্র দীনমজুর কহে ** ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:৪৫ পিএম says : 0
    আমি তার রুহের মাগফিরাত কামনা করি।আল্লাহ যেন তাকে বেহেস্তের সর্বাচ্ছ মাকাম দান করেন।
    Total Reply(0) Reply
  • রিদওয়ান বিবেক ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১০ পিএম says : 0
    তিনি ছিলেন বর্ণাঢ্য জীবন সংগ্রামের অধিকারী একজন সফল মানুষ। অসাধারণ প্র্রতিভাধর ব্যক্তি। জাতি, ধর্ম, দেশ ও সমাজের প্রতি তিনি জীবনভর কর্তব্য করেছেন। মানুষের জন্য অবদান রেখেছেন নানা অঙ্গনে, নানাভাবে। বড় মনের মানুষেরা তাঁকে কোনোদিন ভুলবে না।
    Total Reply(0) Reply
  • কামাল ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১১ পিএম says : 0
    তিনি তাঁর ভাষাজ্ঞান, ব্যক্তিত্বের আকর্ষণ ও সঙ্গ-সহবতের ভব্যতার গুণে আরব শাসক এবং দায়িত্বশীলদের সাথে ব্যক্তিগত বন্ধুত্ব স্থাপনে সক্ষম হয়েছিলেন। দেশের স্বার্থে মধ্যপ্রাচ্যের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে পেরেছিলেন, যা অনেক ক্ষেত্রে তাঁর জন্য সমস্যা ও অনেকের ঈর্ষার কারণ হয়ে দেখা দিত। একজন স্বপ্নচারী অথচ বাস্তববাদী, আধ্যাত্মিকতায় বিশ্বাসী অথচ বিষয়বুদ্ধি ও ব্যবস্থাপনায় অনন্য ব্যক্তিত্ব হিসেবে মরহুম মাওলানা প্রজন্মের উদ্দীপনা।
    Total Reply(0) Reply
  • কামাল রাহী ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১১ পিএম says : 0
    মাওলানা মান্নান এদেশের সকল পর্যায়ের আলেম উলামাদের ঐক্যবদ্ধ করতে চেষ্টা করে গেছেন। সে চেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। মাওলানা মান্নান জাতীয় সকল ক্ষেত্রেই অবদান রেখে গেছেন। মরহুমের গড়া সকল প্রতিষ্ঠানগুলোকে জারি রাখা সকলের নৈতিক দায়িত্ব।
    Total Reply(0) Reply
  • কামাল রাহী ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১১ পিএম says : 0
    মাওলানা মান্নান এদেশের সকল পর্যায়ের আলেম উলামাদের ঐক্যবদ্ধ করতে চেষ্টা করে গেছেন। সে চেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। মাওলানা মান্নান জাতীয় সকল ক্ষেত্রেই অবদান রেখে গেছেন। মরহুমের গড়া সকল প্রতিষ্ঠানগুলোকে জারি রাখা সকলের নৈতিক দায়িত্ব।
    Total Reply(0) Reply
  • মেহের আলী ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১১ পিএম says : 0
    প্রখ্যাত আলেম, মোহাক্কেক মরহুম মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেব কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত বহুসংখ্যক মসজিদ-মাদরাসা এবং দৈনিক ইনকিলাব ইসলামী অঙ্গনে বিপ্লব সৃষ্টি করেছে। রাজনীতি সমাজনীতি কূটনীতি ও শিক্ষক নেতৃত্বসহ সকল ক্ষেত্রে নজর কাড়া ভূমিকা রেখেছেন।
    Total Reply(0) Reply
  • কে এম শাকীর ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১২ পিএম says : 0
    মরহুম মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেবকে আল্লাহতায়ালা উচ্চপর্যায়ের শিক্ষা, মেধা, প্রজ্ঞা, দূরদর্শিতা দিয়ে ছিলেন। মাদরাসা শিক্ষকসহ সমগ্র শিক্ষক সমাজের হৃদয়ের স্পন্দন ছিলেন তিনি। মরহুম মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেব দেশে ও ইসলামী বিশ্বের সকল রাষ্ট্র প্রধানদের সাথে সুসম্পর্ক বজায় রাখতেন। তিনি সকল প্রতিকূলতা দক্ষতার সাথে মোকাবিলা করেছেন। প্রকৃত অর্থে মরহুম মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেবের তুলনা তিনি নিজেই।
    Total Reply(0) Reply
  • জাহিদ খান ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১২ পিএম says : 0
    মরহুম মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেবের সারাজীবনের ত্যাগ ও কর্ম পরিসর আলোচনা করে শেষ করা যাবে না। মরহুমের বিশেষ অবদানের মধ্যে রয়েছে শত শত মাদরাসা প্রতিষ্ঠা, লাখ লাখ মাদরাসা শিক্ষকদের জন্য প্রতিষ্ঠিত জমিয়াতুল মোদার্রেছীন এবং ইসলামী অঙ্গনের জন্য প্রতিষ্ঠিত দৈনিক ইনকিলাব।
    Total Reply(0) Reply
  • আলাউদ্দিন সৌরভ ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১২ পিএম says : 0
    মরহুম মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেব মাদরাসা শিক্ষকদের একমাত্র সংগঠন বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে মাদরাসা শিক্ষা ও শিক্ষকদের উন্নয়নে আজীবন সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করে গেছেন। তিনি ছিলেন একজন নিরহংকার ব্যক্তিত্ব ও নেতা।
    Total Reply(0) Reply
  • বনি আমিন ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১:২৭ এএম says : 0
    মাওলানা হযরত মুহাম্মদ আবদুল মান্নানের জীবনের অন্যতম শ্রেষ্ঠ কীর্তি হলো দৈনিক ইনকিলাব। পাকিস্তান সৃষ্টিতে দৈনিক আজাদের যে ভূমিকা ছিল, বাংলাদেশ সৃষ্টিতে দৈনিক ইত্তেফাক যে মূল্যবান অবদান রেখেছে বাংলাদেশে ইসলামী চিন্তা-চেতনা সংহতকরণে দৈনিক ইনকিলাবের অবদান অনুরূপ।
    Total Reply(0) Reply
  • তরুন সাকা চৌধুরী ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১:২৮ এএম says : 0
    মুসলিম চেতনাবোধে উদ্বুদ্ধ দৈনিক সংবাদপত্রের মালিকানা এবং ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশের দুজন মাওলানা অনন্য অবদান রেখেছেন। একজন হলেন দৈনিক আজাদ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা আকরাম খাঁ। দ্বিতীয় ব্যক্তি হলেন ইনকিলাব প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা আবদুল মান্নান।
    Total Reply(0) Reply
  • রিদওয়ান বিবেক ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১:২৮ এএম says : 0
    বাংলাদেশ সৃষ্টির পর ইসলামী চেতনাভিত্তিক ইনকিলাবের ন্যায় পত্রিকার সফলতা ছিল প্রায় অসম্ভব এবং অপ্রত্যাশিত। মাওলানা আবদুল মান্নান এ অসম্ভবকে সম্ভব করেছেন। সর্বগ্রাসী হতাশার দিগন্তে ইসলামী চেতনাসম্পন্নদের নিকট মাওলানা আবদুল মান্নান উজ্জ্বলতম জ্যোতিষ্ক।
    Total Reply(0) Reply
  • মাহের মিহি ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১:২৯ এএম says : 0
    দৈনিক ইনকিলাবের মাধ্যমে দ্বীনি চেতনাসম্পন্নদের আশা-আকাক্সক্ষা, স্বপ্ন ও কল্পনা বিমূর্ত হয়ে উঠে। যে কাজ সম্পাদন করা ও সাফল্য অর্জন করা লাখ লাখ পাশ্চাত্য শিক্ষিত ইসলামী চেতনাসম্পন্নদের পক্ষে সম্ভব হয়নি, সে কাজের কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন মাওলানা আবদুল মান্নান।
    Total Reply(0) Reply
  • Jahangir Alam ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১:২৯ এএম says : 0
    বাংলাদেশে মাদ্রাসা শিক্ষিতদের মধ্যে রাজনৈতিক অঙ্গনে সফলতম ব্যক্তিত্ব হলেন মাওলানা আবদুল মান্নান। তিনি এক সময় ছিলেন পাকিস্তান মুসলিম লীগের সেক্রেটারি জেনারেল যখন প্রেসিডেন্ট ছিলেন ফিল্ড মার্শাল মুহাম্মদ আইয়ুব খাঁন। বাংলাদেশ সৃষ্টির পর মাদ্রাসা শিক্ষিতদের মধ্যে যিনি সর্বপ্রথম মন্ত্রিত্বের আসন অলংকৃত করেছেন তাদের মধ্যে একজন হলেন মাওলানা আবদুল মান্নান।
    Total Reply(0) Reply
  • Jafrul Kabir ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১:২৯ এএম says : 0
    মাওলানা আবদুল মান্নান একজন দীর্ঘ হস্তবিশিষ্ট উদার প্রাণ ব্যক্তি। মাদ্রাসা এবং বিপদগ্রস্তদের জন্য তিনি একজন অকুণ্ঠ দাতা। শুধু দেশে নয়, বিদেশেও তার দানশীলতা অনেকের দৃষ্টি আকর্ষণ করত। দিল্লীর লাল কেল্লার নিকটে শাহ্ ওয়ালীউল্লাহ দেহলবীর মাজার জিয়ারতে গিয়েছিলেন মাওলানা আব্দুল মান্নান।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: এ এম এম বাহাউদ্দীন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ