Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭ আশ্বিন ১৪২৭, ০৪ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ভারতীয়রা প্রতি বছর ৩২ হাজার কোটি টাকা নিয়ে যাচ্ছে -সমাবেশে ঢাকসু ভিপি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

বেকারদের কর্মসংস্থান, বেকার ভাতা দেয়া, চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ করা, আবেদন ফি কমানোসহ ছয় দফা দাবিতে সমাবেশ ও আলোচনা সভা করেছে বেকার মুক্তি আন্দোলন। গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সামনে এ সমাবেশ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর বলেন, সরকারি হিসাব অনুযায়ী দেশে চার কোটি ৮২ লাখ বেকার। শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা এক কোটি। যুবকদের বেকারত্বের হার ১৭ বছরে ৬ দশমিক ৩২ শতাংশ থেকে ২৯ দশমিক ৮ শতাংশে পৌঁছেছে। তিনি বলেন, উন্নয়নের নামে গত ১০ বছরে পাচার হয়েছে ৬ লাখ কোটি টাকা। দেশে চাকরিরত পাঁচ লক্ষাধিক ভারতীয় প্রতিবছর ৩২ হাজার কোটি টাকা নিয়ে যাচ্ছে। এ হিসাবের বাইরেও হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার হচ্ছে। অথচ সরকার দেশে বেকারদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেনি।
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, দেশে বেকার সৃষ্টি করছে সরকার। বেকারদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির ব্যাপারে কোনো আগ্রহ নেই। এ সরকার উন্নয়নের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা অপচয় করছে। কিন্তু কোনো উন্নয়নই দৃশ্যমান হচ্ছে না। তিনি আরো বলেন, দেশের শিক্ষিত বেকারদের যদি হেলথ কেয়ার বিষয়ক প্রশিক্ষণ দিয়ে বিদেশ পাঠানো হয়। তাহলে প্রতিজন মাসে যে আয় করবে তা একজন সাধারণ শ্রমিককের পাঁচ বছরের আয়ের সমান। তাই শিক্ষিত বেকারদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে।

বেকার মুক্তি আন্দোলনের ছয় দফা দাবিগুলো হলো নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী নতুন এক কোটি ৫০ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টির ব্যাপারে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে সরকারকে তা জাতির সামনে স্পষ্ট করতে হবে, দেশের চার কোটি ৮২ লাখ বেকারকে যোগ্যতা অনুযায়ী বেকার ভাতার আওতায় নিয়ে আসতে হবে, সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সময়সীমা ৩৫ বছর করতে হবে, চাকরিতে আবেদন ফি সর্বোচ্চ ১০০ টাকা করতে হবে, বিভাগীয় এবং জেলা শহরে নিয়োগ পরীক্ষার কেন্দ্র করতে হবে, নিয়োগ বাণিজ্য- স্বজনপ্রীতি নিয়োগ ব্যবস্থা এবং ভেরিফিকেশনের নামে হয়রানি বন্ধ করতে হবে, তরুণ উদ্যোক্তাদের বিনা জামানতে ১০ লাখ টাকা প্রারম্ভিক ঋণ সুবিধা গ্রহণ করতে হবে।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক রাষ্ট্রদ‚ত শাকিব আলী, মৌলিক বাংলা সমন্বয়ক ফরিদ আহমেদ, বেকার মুক্তি আন্দোলনের তরিকুল ইসলাম প্রমুখ।

 



 

Show all comments
  • Abm Julhas ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪২ এএম says : 0
    ভারত শুধু বাংলাদেশকে বাঁশ আর বাঁশ দিয়ে যাবে দেশের কিছু মানুষ আছে তাদেরকে মনে করে বন্ধু আসলে তারা বন্ধু না শত্রু
    Total Reply(0) Reply
  • নাজমুন নাহার রুমা ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪২ এএম says : 0
    এটা তো পুরোনো কথা, আফসোস এটাই সবাই চুপ
    Total Reply(0) Reply
  • Nazirul Islam ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪৩ এএম says : 0
    আরো বেশী নিতো শুধুমাত্র স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি ক্ষমতায় তাই বেশি নিতে পারছে না।
    Total Reply(0) Reply
  • Amanur Rahman Aman ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪৩ এএম says : 0
    ওদের ও তো হক আছে
    Total Reply(0) Reply
  • Sebratali Montahaak ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪৩ এএম says : 0
    মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বলে কথা।
    Total Reply(0) Reply
  • Foysal Hasan ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪৩ এএম says : 0
    বিএমপির মত জাতীয়তাবাদি দল।এই দরনে বড় দরনে খতি নিয়ে কর্ম সূচি বা হরতাল দেয়না।অথচ খালেদা জিয়ার মুক্তিচায়। বিএনপি বা খালেদা জিয়া দেশের সার্থে না লাগলে। জনগন কেন তাদের পাসে দারাবে
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ