Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৭, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

অবশেষে সেই উন্মত্ত থাই সেনা কর্মকর্তা নিহত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১:৩০ এএম

থাইল্যান্ডের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের নাখন রাচাসিমা শহরে এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে অন্তত ২০ জনকে হত্যার পর থাইল্যান্ডের উন্মত্ত সেনা সদস্যকে হত্যা করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, কোরাট শহরের টার্মিনাল ২১ শপিং মলে ১৭ ঘণ্টা লুকিয়ে থাকার পর তাকে হত্যা করা হয়। রবিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে তাকে হত্যার কথা নিশ্চিত করেছে থাই পুলিশ প্রধান চাকথিপ চাইজিনদা।
স্থানীয় সময় শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে সুরাথামপিথাক সেনানিবাসে নিজের সিনিয়র কর্মকর্তা ও অপর দুইজনকে হত্যা করে অস্ত্র ও গোলাবারুদ চুরি করে একটি চোরাই গাড়ি নিয়ে টার্মিনাল ২১ শপিং মলে ঢুকে পড়ে জুনিয়র সেনা কর্মকর্তা জাকরাপান্থ থমা (৩২)। সে সময় শপিংমলটিতে কয়েক হাজার মানুষ ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। রাতভর শপিং মলে তান্ডব চালিয়ে অন্তত ২০ জনকে হত্যা করে। নিরাপত্তা বাহিনী বেশ কয়েকবার চেষ্টা চালিয়েও তাকে নিরস্ত্র করতে ব্যর্থ হয়।
শনিবার রাতে লেফটেন্যান্ট জেনারেল থানিয়া কিয়াৎসার্ন মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন’কে বলেন, আমাদের বিশ্বাস সে (হত্যাকারী) কোরাত শপিংমলের ২১ নম্বর টার্মিনালের ভেতর আছে। তবে সেখানে কাউকে জিম্মি করা হয়েছে কি-না তা নিশ্চিত নয়।
পুলিশ সূত্রকে উদ্ধৃত করে থাই সংবাদমাধ্যম ব্যাংকক পোস্ট জানিয়েছে শপিংমলের বেজমেন্টে একটি দোকানের পাশে রবিবার সকালে ওই সেনা সদস্যকে হত্যা করা হয়।
থাইল্যান্ডের প্রাদেশিক স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা রবিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, নির্বিচার গুলিবর্ষণে অন্তত ২০ জন নিহত ও অপর ৪২ জন আহত হয়েছে।
বন্দুকধারীকে থাই সেনাবাহিনীর সার্জেন্ট মেজর জ্যাকাপান্থ থমা হিসেবে শনাক্ত করেছে দেশটির পুলিশ। হামলার উদ্দেশ্য এখনও জানা যায়নি। অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া ছবি এবং ভিডিওতে আতঙ্কিত লোকজনকে প্রাণ বাঁচাতে ঘটনাস্থল থেকে চারদিকে ছোটাছুটি করতে দেখা যায়।
স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটের দিকে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে এই হামলার দৃশ্য সরাসরি সম্প্রচার করেন ওই সেনাসদস্য। শপিংমল এলাকায় হামলা শুরুর দিকে রাইফেল হাতে নিয়ে একটি সেলফি তোলেন তিনি। ফেসবুক লাইভের ক্যাপশনে লিখেন, অনেক বেশি ক্লান্ত।
এই পোস্টের কিছুক্ষণ পরই ফেসবুক লাইভ বন্ধ হয়ে যায়। এ ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: থাইল্যান্ড


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ