Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ০৮ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

মৃত্যুর পর কবরবাসীগণ কি তার জীবিত আত্মীয়স্বজনদের মনে করতে পারেন?

মাহফুজ উজ্জল
ধলপুর, যাত্রাবাড়ী

প্রকাশের সময় : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৭:২৯ পিএম

উত্তর : নতুন কেউ মারা গেলে এবং তার রুহ নেক মানুষের ঠিকানায় গেলে তাকে পরিচিত মৃত ব্যক্তির রুহসমূহ চিনতে পারে। তারা পরস্পরে আলোচনা করে, সাক্ষাতে খুশি হয়, দুনিয়ায় রয়ে যাওয়া আত্মীয় স্বজনের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এতে বোঝা যায়, মৃত ব্যক্তিরা জীবিত আত্মীয় স্বজনদের কথা মনে করতে পারে। জন্ম মৃত্যু বিয়ে ইত্যাদির খবরও নেয়। কেউ মারা গেছে অথচ এখানে আসেনি, বুঝতে পেরে কষ্ট অনুভব করে বলে, ইন্নানিল্লাহ। সে হয়তো সিজ্জিনে চলে গেছে। যেখানে অবিশ্বাসী ও পাপীদের রুহ চলে যায়। এ বিষয়ে ইবনুল কাইয়িম আল জাওজিয়া রচিত রুহ কিতাবে দীর্ঘ আলোচনা আছে। 

উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
[email protected]

 

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
[email protected]



 

Show all comments
  • Md. Zainal Abedin ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৩ পিএম says : 0
    Is there any ref. in Holly Quran or in Authentic Hadith?
    Total Reply(0) Reply
  • মুহাম্মদ মুজাফফর মিয়া ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৬:৩৬ এএম says : 0
    এক ব্যক্তির মৃত্যু পর তার নামাজে জানাজা দুই বার পড়া জায়েজ আছে কি, না?
    Total Reply(0) Reply
  • Sharif Sanaullah ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৬:৪৫ এএম says : 0
    তাহলে জীবিত মানুষ মৃত মানুষের পক্ষ থেকে রুহানি দোয়া কি পেতে পারে ?
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Ashraful Islam ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১:০০ পিএম says : 0
    It is wonderful effort of Daily Inqilab. I appreciate this program.
    Total Reply(0) Reply
  • Md. Kaiyum Hussain ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৫:২৮ পিএম says : 0
    Answer gulur sathe Quran othoba hadicher reference hole valo hoy. --thanks.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মৃত্যু

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন

আমি শরিয়তের হুকুম আহকাম মোতাবেক চলার চেষ্টা করি। পারিবারিক বাধা সত্বেও দাড়ি টুপি ব্যবহার করছি। ১ বছর আগে পারিবারিকভাবে বিয়ে করি। বিয়েতে আমি পরিপূর্ন শরিয়ত মানার চেষ্ঠা করেছি এতে পরিবারের সবাই নারাজ হয়। বড় বোন জামাইয়ের নারাজির কারণে মা-বাবাও খুশি নন। পর্দার খেলাফ এবং আমার কর্মক্ষেত্র দূরে হওয়ায় আমার স্ত্রীকে আমার কাছে নিয়ে আসি। এইজন্য আমার মা আমার প্রতি অসন্তুষ্ট। তিনি আমার স্ত্রীকে ফোনে গালিগালাজ করে। বড় ভাই নেশাগ্রস্থ ও অন্যান্য অপরাধের সাথে যুক্ত থাকার পরেও তারা তাকেই বেশী আশ্রয় প্রশ্রয় দেয়। মাস শেষে টাকা নেওয়ার জন্য ফোন করা ছাড়া আমার সাথে তারা কোনো যোগাযোগ রাখে না। এই অভিমানে আমিও যোগাযোগ কম করি এবং ৬ মাস যাবৎ বাড়ি যাওয়া বন্ধ করে দেই। এতে তাদের কোন ভ্রুক্ষেপ নেই। যদিও তাদের জন্য আমার কষ্ট হচ্ছে। এমতাবস্থায় আমার করণীয় কি?

উত্তর : তাদের জন্য আপনার কষ্ট হওয়াটা আপনার ভালো মানুষির চিহ্ন। এটি সন্তান হিসাবে, ভাই হিসাবে, পরিবারের সদস্য হিসাবে আপনার প্রশংসনীয় অনুভূতি। এটুকুর জন্য ইনশাআল্লাহ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ