Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

বসন্ত বরণে প্রস্তুত মেলা প্রাঙ্গণ

নুর হোসেন ইমন | প্রকাশের সময় : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

আর মাত্র একদিন পরেই প্রকৃতিতে আসছে বসন্ত। মাঘের হিম হাওয়া ম্লান হয়ে আগামীকাল ফাগুণের এক তারিখ। তাই বাতাসে ভাসছে বসন্তের আগমণী গান। প্রকৃতিও নিজের মত করে সেজে নিচ্ছে বসন্তের সাজ। বাঙালীর প্রাণের মেলা অমর একুশে গ্রন্থমেলা বসন্ত আসলে নতুন উদ্যম পায়। তারই আভাস দেখা গেছে বই মেলার বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। মঙ্গলবার মেলা প্রঙ্গণ সরজমিনে পদক্ষিণ করে দেখা যায়, শাড়ি আর হলুদ ফুলের টায়রায় সেজে কিশোরী-তরুণীরা সৌরভ ছড়াচ্ছে বসন্তের। হলুদ রংয়ের পাঞ্জাবি পরে নিজেদের উপস্থিতি জানান দিচ্ছেন তরুণরাও।

শীতের আড়মোড়া ভাঙা তরুণ-তরুণীদের পদচারণে গতকাল মঙ্গলবার মেলায় অন্যরকম আমেজ তৈরী হয়। প্রকৃতিপ্রেমিরা বলছেন, প্রতিবছর প্রকৃতির এই সময়ে পরিবেশ পাল্টে যায়। নেই তীব্র শীত, আবার গরমের অস্থিরতা নেই। বাঙালীর বইমেলা শুধু বইকেনার আয়োজন নয়, বরং এটা একটা উৎসবও। এবারের পহেলা বসন্ত ও ভালোবাসা দিবস ছুটির দিনে পড়েছে। তাই ঢল সামাল দিতে বাড়তি প্রস্তুতি নিতে দেখা গেছে কর্তৃপক্ষকে।

গতকাল বিকেল তিনটায় মেলা আরম্ভের পূর্বেই গেটের সামনে দর্শনার্থীদের ভীড় দেখা যায়। গেট খোলার সাথে সাথেই বেশ উৎসাহ-উদ্দীপনার সাথে মেলায় প্রবেশ করেন তারা। এ যেন বসন্তের দোলা লেগেছে তাদের গায়। সেইসাথে বিক্রিও শুরু হয়ে যায়। লেখক, দর্শনার্থী আর প্রকাশকদের সাথে কথা বলার পাশাপাশি মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে এমন চিত্রই ফুটে ওঠে। এভাবেই জমে উঠেছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা।
ঢাবি জিয়া হলের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ও সাংস্কৃতিক কর্মী তাওহিদুল ইসলাম নাবিল বলেন, মেলা প্রাঙ্গণে প্রবেশের পরপরই চারদিকে বসন্তের আবহ দেখা যাচ্ছে। ব্যস্ততার কারণে এতদিন মেলায় আসতে না পারলেও আজকে মেলায় এসে অন্যরকম লাগছে। চারদিকে বাসন্তি ফুলের সমারোহ ছিলো।

ভেঙে পড়লো গ্রামীণফোন টাওয়ার: গতকাল অমর একুশে গ্রন্থমেলা উপলক্ষে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মুঠোফোন অপারেটর গ্রামীণফোনের নির্মিত একটি টাওয়ার ভেঙে পড়ে। তবে এ ঘটনায় কারও হতাহত হওয়ার কোনো খবর পাওয়া যায়নি। বাংলা একাডেমির বিক্রয়, বিপণন ও পুনর্মুদ্রণ বিভাগের পরিচালক ও অমর একুশে গ্রন্থমেলা উদ্যাপন কমিটির সদস্যসচিব জালাল আহমেদ এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বলেন, ক্রেতা-দর্শনার্থীদের সুবিধার্থে মেল প্রাঙ্গণে অস্থায়ী ভিত্তিতে দুটি সিগন্যাল টাওয়ার নির্মাণ করে গ্রামীণফোন। বিকেল চারটার দিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে খাবারের স্টলের পাশে স্থাপিত টাওয়ারটি হঠাৎ ভেঙে পড়ে। তবে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। গ্রামীণফোনের প্রকৌশলীরা সমস্যাটির দ্রুত সমাধানে কাজ করছেন।

আইপিডিসি সুদমুক্ত বইঋণ: এদিকে বইপ্রেমীদের জন্য বিনা সুদে বই ঋণ ‘সুবোধ’ নিয়ে এসেছে দেশের প্রথম বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড। নতুন বইয়ের ঘ্রাণে, সুবোধ জাগুক প্রাণে স্লোগানকে সামনে রেখে ১০ ফেব্রুয়ারি বাংলা একাডেমী প্রাঙ্গণে সুবোধের স্টল উদ্বোধন করা হয়। অফারটি উপভোগ করা যাবে বইমেলার পুরো সময়টাতে। সুবিধাটি পেতে জাতীয় পরিচয়পত্র, বিকাশ-এর মোবাইল অ্যাপ চালু থাকতে হবে। মেলায় নিকটস্থ আইপিডিসি’র স্টলে ঋণ গ্রহণ সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্যসহ সকল সহযোগিতা পাওয়া যাবে। এছাড়াও তাৎক্ষণিকভাবে লোন পাওয়ার সুবিধাও রয়েছে এই স্টলে । মেলায় বই কেনার জন্য প্রত্যেকে সর্বোচ্চ তিন হাজার টাকা লোন পাবে। যা পরিশোধ করতে পারবে তিন মাসের কিস্তিতে। অনুমোদিত এই লোনটি সর্বোচ্চ তিনটি লেনদেনের মাধমে গ্রহণ করতে পারবে। আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেড-এর এমডি এবং সিইও মমিনুল ইসলাম বলেন, এবারের মেলায় বইপ্রেমীদের বই পড়ার উচ্ছ্বাস কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিতে এবং বর্তমান প্রজন্মের কাছে বই পড়ার আগ্রহ ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে আইপিডিসি এই ঋণ সুবিধা নিয়ে এসেছে। আশা করছি, বইমেলা থেকে প্রিয় লেখকের পছন্দের বই কিনতে ‘সুবোধ’ দারুণ সহায়ক হবে এবং আমাদের গ্রাহকরা আরও একবার ‘বই পড়া, ভারী মজা’র দিনে ফিরে যেতে পারবেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বই মেলা

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯

আরও
আরও পড়ুন