Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

হাতিয়ার মেঘনায় অস্ত্র গুলিসহ ৬ দস্যু আটক, অপহৃত দুই জেলে উদ্ধার

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৬:১৪ পিএম

হাতিয়ার মেঘনা নদীতে অভিযান চালিয়ে ৬জলদস্যুকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। এসময় অপহৃত ২জেলে, ১টি মাছ ধরার বোট, ২টি এলজি, ৬রাউন্ড গুলি, ৪টি সাউন্ড গ্রেনেড, ১৪টি ককটেল ও ৪টি ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে।
বুধবার ভোরে আজাহার মেম্বারের ঘাট সংলগ্ন মেঘনা নদীতে থেকে তাদের আটক করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো, সুবর্ণচর উপজেলার সফি আলম সর্দারের ছেলে ইউছুফ (৩৬), একই এলাকার জেবল হকের ছেলে নবী আলম (৫৫), আবুল কালামের ছেলে আবুল বাসার(৩৬),হাতিয়া উপজেলার নলেরচরের আলী আহম্মদের ছেলে হেঞ্জু মিয়া(৩৫),একই এলাকার ওবায়দুল হকের ছেলে হারুন (৫০) ও ভোলার দৌলতখান উপজেলার মফিজুল ইসলামের ছেলে নূরে আলম (৩৫)।
উদ্ধারকৃত জেলেরা হলো, নোয়াখালী সদর উপজেলার নূরুল হকের ছেলে আব্দুর রহিম ও একই উপজেলার নূরুল ইসলামের ছেলে আনোয়ার হোসেন বাদশা।
কোস্টগার্ড জানায়, মঙ্গলবার নোয়াখালী-সন্দীপের সীমান্তবর্তী মেঘনা নদীতে একটি মাছ ধরার বোটে হামলা চালিয়ে ১০জন জেলেকে অপহরণ করে জলদস্যু বাহিনী। এরমধ্যে ৮জেলকে ছেড়ে দিলেও বোটসহ দুই জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায় তারা। এমন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার ভোরে হাতিয়ার আজাহার মেম্বারের ঘাট সংলগ্ন মেঘনা নদীতে অভিযান চালানো হয়। এসময় কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে দস্যু বাহিনী তাদের উপর হামলার চেষ্টা করলে দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে ৬দস্যুকে আটক করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে অপহৃত দুই জেলে, একটি মাছ ধরার বোট, দুইটি এলজি, ছয় রাউন্ড গুলি, চারটি সাউন্ড গ্রেনেড, চৌদ্দটি ককটেল ও চারটি চোরা উদ্ধার করা হয়েছে।
কোস্টগার্ড হাতিয়ার স্টেশন অফিসার লে. বিশ^জিৎ বড়–য়া বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত দস্যুদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অপহৃত জেলে উদ্ধার
আরও পড়ুন