Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

গুলশান হামলার অস্ত্র সরবরাহকারীদের শেকড় খুঁজে বের করা হবে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ৪ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম | আপডেট : ১২:২৫ এএম, ৪ জুলাই, ২০১৬

বিশেষ সংবাদদাতা : গুলশানের স্প্যানিশ রেস্টুরেন্টে সন্ত্রাসী হামলাকে ‘অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক’ হিসেবে বর্ণনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা সন্ত্রাসীদের অস্ত্র ও গোলাবারুদ সরবরাহ করেছে সেই অপরাধীদের অবশ্যই শেকড় খুঁজে বের করা হবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, রেস্টুরেন্টে ভয়ঙ্কর পরিকল্পিত এ হামলার জন্য যারা সন্ত্রাসীদের অস্ত্র ও গোলাবারুদ সরবরাহ করেছে আমরা অবশ্যই সেই অপরাধীদের শেকড় খুঁজে বের করব।
জাপানের স্টেট মিনিস্টার ফর ফরেন অ্যাফেয়ার্স সিইজি কিহারা গতকাল রোববার সকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তার সরকারি বাসভবন গণভবনে সাক্ষাৎ করতে গেলে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন। বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের একথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সন্ত্রাসীরা এর আগে গুপ্তহত্যা চালিয়েছে এবং পুরোহিত, ফাদারস ও ভিক্ষুদের টার্গেট করেছে। অপরাধে জড়িত অনেক সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী এবং জাপানের স্টেট মিনিস্টার ঐকমত্য প্রকাশ করেন যে, বাংলাদেশ ও জাপান ঐক্যবদ্ধভাবে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করবে। এ প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা ফ্রান্স, বেলজিয়াম, জাপান ও ভারতে সন্ত্রাসী হামলার কথা উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, গুলশানে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত জাপানি নাগরিকদের মৃতদেহের ময়নাতদন্ত শেষে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে। দক্ষতার সঙ্গে পরিস্থিতি সামাল দেয়ার জন্য জাপানের স্টেট মিনিস্টার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান। বাংলাদেশ ও জাপানের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করে তিনি বলেন, পারস্পরিক স্বার্থে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব আবুল কালাম আজাদ এবং বাংলাদেশে জাপানের রাষ্ট্রদূত মাসাতো ওয়াতানাবে এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

জন কেরির ফোন : মার্কিন প্রেসিডেন্টের সহানুভুতি জ্ঞাপন
বাংলাদেশে সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা ও সহানুভূতি জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।
আজ সন্ধ্যায় বারাক ওবামার পক্ষ থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফোন করে এই তথ্য জানান বলে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানিয়েছেন।
মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষ থেকে জন কেরি বলেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গি নির্মূলে বাংলাদেশকে যে কোনো ধরনের সহযোগিতা করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সব সময় প্রস্তুত রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধন্যবাদ জানিয়ে জন কেরিকে বলেন, অনুসন্ধানমূলক তথ্য দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে পারে।
জন কেরিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলার জন্য তাঁর সরকার পুলিশের ‘কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট’ গঠন করছে।
সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকার জন্য বারাক ওবামাকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

 



 

Show all comments
  • রাকিব ৪ জুলাই, ২০১৬, ৩:২৫ এএম says : 0
    কোনো ধরমই এভাবে মানুশ হত্ত্যা করার অনুমতি দেয় না।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গুলশান হামলার অস্ত্র সরবরাহকারীদের শেকড় খুঁজে বের করা হবে : প্রধানমন্ত্রী
আরও পড়ুন