Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০৩ মাঘ ১৪২৭, ০২ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

উত্তর কোরিয়ায় চীন ফেরত ব্যাক্তিকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:২৪ পিএম

করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে এক ব্যাক্তিকে প্রকাশ্যে গুলি করে মারল কিম প্রশাসন। জানা গেছে সম্প্রতি ওই ব্যাক্তি চীন থেকে উত্তর কোরিয়ায় এসেছিল এবং সন্দেহ করা হয়েছিল যে, তার শরীরে করোনাভাইরাসের অন্তিত্ব রয়েছে ।
এমনিতেই উত্তর কোরিয়ায় প্রশাসন চলে কিমের কথায়। সেখানে কিমের কথাই আইন। করোনাভাইরাসের কারণে চীন থেকে আসা কোন বিমান উত্তর কোরিয়ায় প্রবেশ করতে পারবে না বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এমনকি উত্তর কোরিয়ার কোন নাগরিক চীন থেকে দেশে ফিরলেও তাদের জন্য রয়েছে কঠিন ব্যবস্থা। বাইরে থেকে আসা নাগরিকদের আইসোলেশন ক্যাম্পে অন্তত ৩০ দিন থাকতে হবে। কিন্তু জানা গেছে, নিহত ব্যাক্তি সরকারের এই নিয়ম ভঙ্গ করে আইসোলেশন ক্যাম্পে থাকেনি। এই অপরাধের জন্য তাকে প্রকাশ্যে গুলি করে মারা হলো।
উত্তর কোরিয়ায় এখনও পর্যন্ত ঠিক কতজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে সেই খবর নেই। তবে জানা গেছে, সেখানে নিয়ম করা হয়েছে, যাদের শরীরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হবার লক্ষণ দেখা গেছে, তাদের অন্তত ৩০ দিন আইসোলেশন ক্যাম্পে থাকতে হবে। সমন্ত সরকারি সংস্থা আর উত্তর কোরিয়ায় থাকা বিদেশীদের জন্য এই নিয়ম চালু করা হয়েছে ।
বর্তমানে উত্তর কোরিয়ায় সরকার চীন থেকে তাঁদের দেশে যাওয়া সমন্ত বিমানে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এছাড়াও সাবধানতার জন্য বাইরে থাকে প্রত্যেক বিদেশীর জন্য অন্তত সাত দিনের জন্য আইসোলেশনে থাকা বাধ্যতামূলক ঘোষণা করা হয়েছে। এমন কি আন্তর্জাতিক পর্যটনে নিষেধাজ্ঞা জারি করার সাথে সাথে তাঁরা নিজেদের আন্তর্জাতিক সীমাও বন্ধ করে দিয়েছে।
ডেইলি মেইল আরও জানিয়েছে, অপর এক কর্মকর্তা চীন ভ্রমণের কথা বলার পর তাকে উত্তর কোরিয়ার একটি খামারে নির্বাসিত করা হয়েছে। উত্তর কোরিয়ায় এখনো করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। তবে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় চীনের সঙ্গে থাকা সীমান্তে দেশটির পক্ষ থেকে বিশেষ সতর্কতা নেওয়া হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত ডিসেম্বরে চীনের মধ্যাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। এরপর থেকে চীনে মহামারি আকার ধারণ করে ভাইরাসটি। চীনের ৩১ প্রাদেশিক পর্যায়ের অঞ্চল ছাড়াও বিশ্বব্যাপী ছড়িয়েছে ভাইরাসটি। এতে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত এক হাজার ৩৫৭ জন মারা গেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ