Inqilab Logo

ঢাকা শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১ আশ্বিন ১৪২৭, ০৮ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

একুশে টেলিভিশনে বাংলায় ডাবিংকৃত চীনা ড্রামা সিরিজ মূ

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

একুশে টেলিভিশনে আজ থেকে প্রচারিত হবে বাংলায় ডাবিংকৃত চীনা ড্রামা সিরিজ ‘মূ’। প্রতিদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা ও রাত সাড়ে ১০টায় ড্রামা সিরিয়ালটি প্রচার হবে। ১০০ পর্বের এই সিরিজে চীনা মিং সাম্রাজ্যের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ, ষড়যন্ত্র, ঘৃনা ও ভালোবাসার ঘটনা প্রবাহ তুলে ধরা হয়েছে। চীনের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটে নির্মিত ড্রামা সিরিজটি পরিচালনা করেছেন রিংগো ইয়ু। ওয়াং জুয়ানের চিত্রনাট্যের এই সিরিজ ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। উল্লেখ্য, মিং সাম্রাজ্য ১৩৬৮ সাল থেকে ১৬৪৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ৩০০ বছর চীন শাসন করে। ২০১২ সালে সিরিজিটি প্রথম চীনের সরকারি স্টেশন সিসিটিভিতে ‘টার্বুলেন্স অব দ্যা মু ক্লেন’ নামে প্রচারিত হয়। ‘মূ’ ড্রামা সিরিজটি মূলত চীনা সাম্রাজ্যের রাজপরিবারের দ্বন্দ্ব ও ঘটনা প্রবাহ নিয়ে নির্মিত। সিরিজের কাহিনী চিত্রে দেখা যায়, রাজ পরিবারের সদস্যরা ক্ষমতার লোভে নিজেদের মধ্যে সর্বদা যুদ্ধ-বিগ্রহে লিপ্ত থাকতো। সাধারণ পরিবার থেকে আসা আলেকু পাঁচ বছর বয়সে হৃদয়ে প্রতিশোধের আগুন নিয়ে ‘মূ’ পরিবারকে ধ্বংস করার লক্ষ্যে রাজ-পরিচারিকা হিসেবে প্রাসাদে প্রবেশ করে। দীর্ঘ বিশ বছর ‘মূ’ পরিবারের সঙ্গে অতিবাহিত করেও তার প্রতিশোধের আগুন নেভেনি। কিন্তু এই দীর্ঘ পরিক্রমায় আলেকু রাজপরিবারের অন্যতম সদস্য মূ জেং-এর সঙ্গে গভীর প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে, যা রাজপরিবার কোনও ভাবেই মেনে নিতে পারে না। রাজপরিবারের দুর্বিষহ প্রতিবন্ধকতার মুখে একসময়ে আলেকু ও মূ জেং একসঙ্গে আত্মহননের পথ বেছে নেয় এবং পরে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে নানা ঘাত-প্রতিঘাতের পর আলেকু’র দূরদর্শিতা ও বুদ্ধিমত্তায় তারা বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়। অত:পর ধীরে ধীরে রাজপরিবারের সকল অর্ন্তদ্বন্দ্ব দূর করে আলেকু হয়ে ওঠে ‘মূ’ রাজপরিবারের অন্যতম ক্ষমতাধর ও গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: একুশে টেলিভিশন


আরও
আরও পড়ুন