Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০২ সফর ১৪৪২ হিজরী

বার্সা-লিভারপুলের স্বস্তির রাতে পিএসজির হোঁচট

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

স্প্যানিশ লা লিগায় এবার সমান তালেই চলছে দুই জায়ান্ট। দুর্দান্ত এক জয়ে চিরপ্রতিদ্ব›দ্বী রিয়াল মাদ্রিদকে ছুঁয়ে স্বস্তির নি:স্বাস বার্সেলোনা শিবিরে। পয়েন্ট তালিকার তিন নম্বর দল গেতাফের বিপক্ষে দারুণ এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ল বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। পরশু ন্যু ক্যাম্পে ২-১ গোলে জিতে মাঠ ছাড়ে লিওনেল মেসির দল। বার্সেলোনার জয়ের রাতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে বারুদে ফর্মে থাকা লিভারপুল দিয়েছে ধৈর্য্যরে পরীক্ষা। অবশেষে সে পরীক্ষায় উত্তীর্ণও হয়েছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। একই রাতে নরউইচ সিটির বিপক্ষে বদলি খেলেঅয়াড় সাদিও মানের একমাত্র গোলে জিতেছে অলরেড শিবির। এই গোলের সৌজন্যে ইংল্যান্ডে গোলের সেঞ্চুরি পূর্ণ হল সেনেগালের তারকার। সব টুর্নামেন্টে ধরে সাউদাম্পটনের হয়ে তার গোল ২৫টি। আর লিভারপুলের হয়ে ৭৫। দুই জায়ান্টের জয়ের রাতে অবশ্য হোঁচট খেয়ৈছে ফরাসি লিগ ওয়ানের বর্তমান চ্যম্পিয়ন পিএসজি। অবনমন অঞ্চলে থাকা আমিয়েঁর বিপক্ষে ৪-৪ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে টমাস টুখেলের দল।

বার্সেলোনার হয়ে দুটি গোল করেন অঁতোয়ান গ্রিজমান ও সার্জিও রবের্তো। এই সাফল্যে রিয়াল মাদ্রিদের সমান পয়েন্ট এখন বার্সার। যদিও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে আছে লিওনেল মেসির দল। কোচ কিকে সেতিয়েনের কৌশলে চেনা পথেই থাকছে জায়ান্টরা। এদিন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাঠে থাকলেন রক্ষণভাগের সেরা তারকা জেরার্ড পিকে। ফিরলেন জর্দি আলবা ও আনসু ফাতি। মেসির পাস থেকে বল পেয়ে ৩৩তম মিনিটে নিশানা খুঁজে নেন গ্রিজমান। চলতি লিগে ফ্রান্সের এই মহাতারকার এটি সাত নম্বর গোল। ৩৯ মিনিটে ব্যাবধান দ্বিগুণ করে নেয় স্বাগতিকরা। এবার গোলদাতা রবের্তো। দ্বিতীয়ার্ধের ৬৫তম মিনিটে অ্যাঞ্জেল রদ্রিগেসের দারুণ এক ভলিতে ব্যবধান কমায় গেতাফ। কিন্তু এরপর আর গোলের দেখা পায়নি দলটি। এ অবস্থায় লা লিগায় ২৪ ম্যাচে ১৬ জয় ও চার ড্রয়ে বার্সেলোনার পয়েন্ট ৫২। ৪২ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে গেতাফে। এক ম্যাচ কম খেলে ৫২ পয়েন্ট শীর্ষে যথারীতি রিয়াল।

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের তলানির দল নরউইচ সিটি। যাদের চেয়ে ৫৫ পয়েন্ট ব্যবধান রেখে ম্যাচটি শুরু করেছিল লিভারপুল। প্রিমিয়ার লিগে এমন বিশাল ব্যবধানের নজির এবারই প্রথম। অথচ সেই দলটির বিপক্ষে যান্ত্রিক পরিসমাপ্তি খুঁজে পাচ্ছিলো না ক্লপের দল! বল দখলে এগিয়ে ছিল ঠিকই, এমনকি ১৭টি শটও নিয়েছিল। তবে লক্ষ্য বরাবর থেকেছে মাত্র একটি শট! নরইউচ গোলকিপার টিম ক্রুলেরও অবদান অনেক। দুটি দুর্দান্ত সেভে রুখে দিয়েছেন মোহাম্মদ সালাহ ও নাবি কেইতার শট। ৭৮ মিনিটে গোলের খোঁজে থাকা লিভারপুলের জন্য ত্রাতা হয়ে আসেন মানে। নরউইচের রক্ষণ ভেঙে কাক্সিক্ষত গোলটি করেন বদলি হয়ে মাঠে নামা এই ফরোয়ার্ড। গোলটি সেনেগালিজ তারকার যে কোন প্রতিযোগিতায় শততম গোল। অধিনায়ক হেন্ডারসনের বাতাসে ভাসানো পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোলটি করেছেন মানে। এই জয়ে দুইয়ে থাকা ম্যানসিটির চেয়ে ২৫ পয়েন্ট লিড নিয়ে শীর্ষেই থাকলো ক্লপের শিষ্যরা। ২৬ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ৭৬ পয়েন্ট। একই সঙ্গে আর মাত্র ৫ জয় পেলেই নিশ্চিত হবে লিগ শিরোপা। যার জন্য অপেক্ষা ৩০ বছর।

পিএসজির দলে নেইমার-এমবাপ্পে না থাকলেও শক্তিশালী দল নিয়ে মাঠে নেমেছিলেন টুখেল। তার পরেও প্রথমার্ধে খুব ভুগেছে পিএসজি। পঞ্চম মিনিটেই এগিয়ে যায় আমিয়েঁ। গিরাসির গোলের পর ২৯ মিনিটে কাকুতার গোলে ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় আমিয়েঁ। ১১ মিনিট পর দিয়াবাতের গোলে ৩ গোলের অগ্রগামিতায় পিএসজিকে একেবারে কোণঠাসা করে ফেলে তারা। বিরতির আগে হেরেরা স্কোর করলে একটি গোল শোধ দেয় পিএসজি। দলের এই দশায় কোচ টুখেলও মোটেও স্বস্তি পাচ্ছিলেন না। তাই বিরতির পর টানেলে গিয়ে শিষ্যদের ঘুরে দাঁড়ানোর মন্ত্র দিয়েছিলেন। একই সঙ্গে পরিবর্তন আনেন দুটি। তার পরেই অসাধারণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় পিএসজি। ৬০ ও ৬৫ মিনিটে কোয়াসির জোড়া গোলে সমতা আনে তারা (৩-৩)। ৭৪ মিনিটে ইকার্দি গোল করলে (৪-৩)জয়ের অপেক্ষাতেই ছিল ফরাসি জায়ান্টরা। কিন্তু তাদের হতাশ করে যোগ করা সময়ে নাটকীয়ভাবে সমতাস‚চক গোল আদায় করে নিয়েছেন আমিয়েঁ ফরোয়ার্ড গিরাসি। ২৫ ম্যাচে ৬২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছে পিএসজি। সমান ম্যাচে ২১ পয়েন্ট নিয়ে তলানির দিকে আমিয়েঁ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ফুটবল

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন