Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

নাইজেরিয়ায় বোকোর হামলায় নিহত ৮৬

প্রকাশের সময় : ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : নাইজেরিয়ায় বিদ্রোহীগোষ্ঠী বোকো হারামের হামলায় কমপক্ষে ৮৬ জন নিহত হয়েছে। গত শনিবার রাতে রাজধানী মাইদিগুরি থেকে মাত্র ৫ কিলোমিটার দূরে দালোরি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সেনাসদস্য বার্তা সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন, তিন নারী আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী প্রতিবেশী গামোরি গ্রামে বেশ কয়েকজনকে হত্যা করে দালোরি গ্রামে চলে আসে। এখানে তারা তিনজনই বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এরপরই বোকো হারামের যোদ্ধারা গুলি ছুড়তে শুরু করে। আলামিন বাকুরা নামে এক প্রত্যক্ষদর্শী টেলিফোনে এএফপিকে জানিয়েছেন, হামলার সময় তিনি একটি গাছের আড়ালে লুকিয়ে ছিলেন। বোকো হারামের যোদ্ধারা গ্রামের কুঁড়েঘরগুলোতে পেট্রলবোমা ছুড়ে মারে। ঘরে থাকা শিশুরা দগ্ধ হয়ে মারা গেছে। চার ঘণ্টা ধরে গ্রামটিতে তা-ব চালায় বোকো হারাম। গ্রামের রাস্তায় সারা রাত অগ্নিদগ্ধ ও গুলিতে ঝাঁঝরা হওয়া মৃতদেহ পড়ে ছিল। হামলায় তার পরিবারের কয়েক সদস্যও নিহত হয়েছে বলে জানান আলামিন। হামলার খবর পেয়ে দালোরি গ্রামে গত শনিবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে সেনাবাহিনী অভিযান শুরু করে। তবে তুলনামূলকভাবে বোকো হারামের অস্ত্রশস্ত্র উন্নত হওয়ায় সেনাবাহিনী তাদের কিছুই করতে পারেনি। গত রোববার সাংবাদিকরা গ্রামটিতে পরিদর্শনে গেলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, রাজধানী মাইদিগুরি থেকে একেবারে কাছে সত্ত্বেও সেনাবাহিনী এখানে আসতে অনেক বেশি সময় নিয়েছে। নাইজেরিয়ার জাতীয় জরুরি ব্যবস্থাপনা সংস্থার আঞ্চলিক সমন্বয়ক মোহাম্মদ কানার জানান, গত রোববার বিকেল পর্যন্ত তারা ৮৬টি মৃতদেহ উদ্ধার করেছেন।
এদিকে, বিবিসি বলছে, ঘটনার পর তোলা ছবিতে দেখা যায়, গ্রামটির বাড়ি-ঘর এবং গবাদি পশু পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। গ্রামটি যখন পুড়ছিল তখন মাইদুগুরি শহর থেকে ধোঁয়া দেখা গেছে। মাইদুগুরি থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে গ্রামটির অবস্থান। একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, কুঁড়েঘরগুলো যখন পুড়ছিল তখন শিশুদের ভয়ার্ত চিৎকার শুনতে পেয়েছেন তিনি। স্থানীয় অধিবাসীরা জানিয়েছেন, হামলাকারীরা মোটরবাইক ও লরিতে করে এসেছিলো। তাদের পরনে ছিল সেনা বাহিনীর পোশাক। ওই হামলা থেকে বেঁচে যাওয়া আলামিন বাকুরা নামের একজন জানিয়েছেন, গত শনিবার সন্ধ্যায় যখন হামলাকারীরা গুলি চালানো শুরু করে তখন একটি গাছের আড়ালে লুকিয়েছিলেন তিনি। আলামিন জানান, হামলাকারীরা কুঁড়েঘরগুলোতে বোমা ছুঁড়ে আগুন ধরিয়ে দিচ্ছিল। তিনি শিশুদের ভয়ার্ত চিৎকার শুনতে পাচ্ছিলেন। মানুষেরা আগুনে পুড়ে মারা পড়ছিল। নিজের পরিবারের বেশ কয়েকজন এই হামলায় নিহত হয়েছেন, আহতও হয়েছেন কয়েকজন।
নাইজেরিয়ার প্রতিবেশী রাষ্ট্র শাদেও গত রোববার বোকো হারাম বিদ্রোহীরা প্রাণঘাতী বোমা হামলা চালিয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। এএফপি, বিবিসি ও রয়টার্স।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নাইজেরিয়ায় বোকোর হামলায় নিহত ৮৬
আরও পড়ুন