Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬, ০৮ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

আমার দাদা মারা গেছে আজ দু’দিন। দাদা মারা যাওয়ার পর থেকে পাড়া-প্রতিবেশী বাড়িতে রান্না করার জন্য দিচ্ছে না। একেক বেলা একেক জনের বাড়ি থেকে খাবার পাঠাচ্ছে? তারা বলছে, চারদিন নাকি বাড়িতে চুলা জ্বালানো যাবে না। এ রীতি কি ইসলামসম্মত?

আজিজুল ইসলাম
ইমেইল থেকে

প্রকাশের সময় : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৬:৫২ পিএম

উত্তর : মৃত ব্যক্তির বাড়ীতে চুলা জ্বালানো বা রান্নাবান্না করা ইসলামে নিষিদ্ধ নয়। যেদিন বাড়ীতে কোনো মুরব্বী বা অন্য কেউ মারা যাবেন, সেদিনই রান্নাবান্না করা যাবে। ইসলামে মৃত ব্যক্তির জন্যে শোক পালনের সময়সীমা তিনদিন। এ তিনদিন তার জন্যে বিশেষ দোয়া, সদকা-খয়রাত, স্মৃতিচারণ এবং নিকটাত্মীয়দের শোকতাপ অত্যন্ত স্বাভাবিক। এ তিনদিন কোনো কার্যক্রম বন্ধ রাখা বা চালু রাখা বাধ্যতামূলক নয়। এ সময় স্বাভাবিক জীবনাযাত্রার কোনো কিছু স্থগিত রাখা বা চালু রাখা উভয়ই অনুমোদিত। অবশ্য বাংলাদেশের গ্রাম ও শহরে একটি নিয়ম চালু আছে যে, মৃত ব্যক্তির বাড়ীতে দু’একবার অন্যান্য বাড়ী থেকে খানা পাক করে উপহারস্বরূপ পাঠানো হয়। এটা ইসলামী ভ্রাতৃত্ববোধ ও সমবেদনারই বহিঃপ্রকাশ মাত্র। এতে দোষের কিছু নেই বরং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের রান্নাবান্নার ঝামেলা থেকে মুক্ত রাখার একটি প্রশংসনীয় মানবিক উদ্যোগ।
উত্তর দিয়েছেন : আল্লামা মুফতি উবায়দুর রহমান খান নদভী
সূত্র : জামেউল ফাতাওয়া, ইসলামী ফিক্হ ও ফাতওয়া বিশ্বকোষ।
প্রশ্ন পাঠাতে নিচের ইমেইল ব্যবহার করুন।
inqilabqna@gmail.com

ইসলামিক প্রশ্নোত্তর বিভাগে প্রশ্ন পাঠানোর ঠিকানা
inqilabqna@gmail.com



 

Show all comments
  • ** হতদরিদ্র দীনমজুর কহে ** ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৯:১৫ পিএম says : 0
    আপনার উত্তর আমাদের মনের দিদাদ্বন্দটা দুর হলো।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মৃত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ