Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, ১১ শাবান ১৪৪১ হিজরী

ঢাকায় পানির মূল্যর বৃদ্ধির প্রস্তাব অযৌক্তিক : টিআইবি

ওয়াসার কর্মকর্তাদের একগুঁয়েমি-স্বেচ্ছাচারিতা বন্ধের আহ্বান

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

পরিচালনা ব্যয়, ঘাটতি ও ঋণ পরিশোধের অজুহাতে আবাসিক ও বাণিজ্যিক খাতে ঢাকা ওয়াসার ৮০ শতাংশ পর্যন্ত পানির ম‚ল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব অযৌক্তিক। একই সঙ্গে গ্রাহকের ওপর নির্যাতনমূলক-অগ্রহণযোগ্য মনে করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কাছে পাঠানো মূল্যবৃদ্ধির এই প্রস্তাব অগ্রাহ্য করে সংশ্লিষ্ট খাতে বিশেষজ্ঞসহ গণশুনানির মাধ্যমে ওয়াসা আইন ও সেবার মান, বিশেষ করে পানির পর্যাপ্ত সরবরাহ ও গুণগত মান নিশ্চিত করা সাপেক্ষে যৌক্তিক ও সহনীয় মাত্রায় মূল্য বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।
দুর্নীতি বিরোধী আন্তর্জাতিক সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান গতকাল এক বিবৃতিতে বলেছেন, ঢাকা ওয়াসা আবাসিক গ্রাহক পর্যায়ে প্রতি ইউনিট পানির দাম ১১.৫৭ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০ টাকা এবং বাণিজ্যিক গ্রাহক পর্যায়ে ৩৭.০৪ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৬৫ টাকা বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে। এতে মূল্য সার্বিকভাবে ৮০ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাবে। ওয়াসার এ ধরণের প্রস্তাব সম্পূর্ণ অযৌক্তিক ও অগ্রহণযোগ্য।

তিনি বলেন, ওয়াসা আইন ১৯৯৬ অনুযায়ী বাৎসরিক সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ পর্যন্ত মূল্য বৃদ্ধির বিধানের সাথে এই প্রস্তাব সাংঘর্ষিক। প্রস্তাব অনুযায়ী ম‚ল্য বৃদ্ধি করলে তা ইতোমধ্যেই ওয়াসা ন্যায্য পরিমাণে পানি সরবরাহ বিশেষ করে পানির গুণগত মান নিশ্চিতে ব্যর্থতার কারণে হতাশ নগরবাসীর জন্য অধিকতর নির্যাতন ও বিড়ম্বনার কারণ হবে। বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষের ওপর অন্যায্য চাপ আরো বৃদ্ধি করবে।
ইফতেখারুজ্জামান বলেন, উন্নয়ন ব্যয় বহনের নামে সেবার মান উন্নত ও পানির বিশুদ্ধতা নিশ্চিত না করে মূল্য বৃদ্ধির এই অন্যায্য প্রস্তাব ঢাকা ওয়াসার একগুঁয়েমি ও স্বেচ্ছাচারিতার বহিঃপ্রকাশ। যে পানি ওয়াসার শীর্ষ কর্মকর্তারা নিজেরাই পান করতে নিরাপদ বোধ করেন না, তার মূল্য বৃদ্ধির এই প্রস্তাব সম্পূর্ণরূপে অগ্রাহ্য করে ওয়াসার সুশাসন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।

ঢাকা ওয়াসা নিয়ে ২০১৯ সালের এপ্রিলে প্রকাশিত টিআইবির গবেষণার তথ্য তুলে ধরে ড. ইফতেখারুজামান বলেন, ঢাকা ওয়াসার অধীনে জরিপে অন্তর্ভুক্ত ৪৪.৮ শতাংশ সেবাগ্রহীতা চাহিদা অনুযায়ী পানি পান না। ৫১.৫ শতাংশ সেবাগ্রহীতার কাছে সরবরাহকৃত পানি অপরিষ্কার এবং ৪১.৪ শতাংশের কাছে সরবরাহকৃত পানি দুর্গন্ধযুক্ত।

ওয়াসার সেবার মান ও অনিয়ম-দুর্নীতির কারণে সার্বিকভাবে ৩৭.৫ শতাংশ সেবাগ্রহীতাই অসন্তুষ্ট। তাই সেবাগ্রহীতাদের মতামত না নিয়ে এবং অভ্যন্তরীন দুর্নীতি ও সিস্টেম লস নিরসনে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা ছাড়াই একতরফাভাবে পানির মূল্যবৃদ্ধির এই প্রস্তাব গ্রাহকের ওপর অন্যায্য বোঝা চাপিয়ে দিবে, যা অগ্রহণযোগ্য।
গ্রহক সেবার মান বাড়াতে উন্নয়ন প্রকল্পে গৃহীত ঋণ পরিশোধ ও ভর্তুকি মেটাতে অতিরিক্ত অর্থের প্রয়োজনীয়তা স্বীকার করে তিনি আরো বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য অর্থ প্রবাহ বাড়ানোর নামে অযৌক্তিকভাবে পানির মূল্য বৃদ্ধির আগে ঢাকা ওয়াসার ক্রয় প্রক্রিয়া, প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং গ্রাহক পর্যায়ের মিটার রিডিংসহ নানা ক্ষেত্রে অনিয়ম-দুর্নীতি বন্ধ করে অভ্যন্তরীণ সুশাসন নিশ্চিত করা জরুরি।
একটি বড় প্রকল্প বাস্তবায়নে অবহেলা ও ধীরগতির কারণে অনুমোদিত মেয়াদ অতিক্রম করলেই কোটি কোটি টাকা অতিরিক্ত ব্যয় হয়, যা জনগণের অর্থের অপচয়। আবার গ্রাহক পর্যায়ে বিল আদায়ে অবহেলা ও দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণসহ ওয়াসার জবাবদিহিহীন ব্যবস্থাপনায় স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা নিশ্চিত করতে পারলে ওয়াসার অর্থের যোগান অনেক বাড়বে।



 

Show all comments
  • Md Masud Hawlader ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪৯ এএম says : 0
    ওয়াসা তার কর্মীদের চুরি দুর্নীতি রোধে ব্যর্থ।
    Total Reply(0) Reply
  • Jamil Hosen Jon ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৪৯ এএম says : 0
    Every three months after either Gas or electricity or water or ither essential cooking items must increase. No authority to see it . But how many people have power to pay the excessive bill.
    Total Reply(0) Reply
  • নাজারেথ স্বনন ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৫১ এএম says : 0
    পানির মূল্য বাড়ানো হলে আবারও বাসা ভাড়া বেড়ে যাবে। যত কষ্ট সাধারণ মানুষের।
    Total Reply(0) Reply
  • চাদের আলো ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৫২ এএম says : 0
    পানির মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসা হোউক।
    Total Reply(0) Reply
  • জাহিদ খান ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৫২ এএম says : 0
    টিআইবিকে ধন্যবাদ প্রতিবাদ করার জন্য্ কিন্তু সরকার কোনো আমলে নেবে বলে মনে হয় না।
    Total Reply(0) Reply
  • মেহেদী ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৩ এএম says : 0
    দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতিতে মানুষের এমনিতেই নাভিশ্বাস অবস্থা, তারওপরে আাবার পানির মূল্য বৃদ্ধি!!!
    Total Reply(0) Reply
  • জন্মভুমি ছাতক ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:৫৪ এএম says : 0
    জনগণের ওপর দিয়ে সরকার সব ক্যারামতি করতে চাই। এটা নাকি উন্নয়ন
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: টিআইবি


আরও
আরও পড়ুন