Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬, ১২ শাবান ১৪৪১ হিজরী

হরল্যান্ডের জোড়া গোলে পিএসজিকে হারাল ডর্টমুন্ড

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:১৯ এএম | আপডেট : ৪:২১ এএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

প্রথমার্ধ কোন দলই দেখাতে পারল না দাপট। দ্বিতীয়ার্ধে পাল্টে যায় ম্যাচের মোড়। মাত্র ৮ মিনিটে তিনটি গোল হয়। যার দুটি দিয়েছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে হরল্যান্ড। একটি পিএসজির হয়ে নেইমার। ঘরের মাঠে মঙ্গলবার রাতে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে ২-১ গোলে জিতেছে ডর্টমুন্ড। আগামী ১১ মার্চ পিএসজির মাঠে হবে ফিরতি লেগ।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে শুরু থেকে জমে ওঠা লড়াইয়ের ২৭তম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো ডর্টমুন্ড। তবে ডি-বক্সে ঢুকে ইংলিশ মিডফিল্ডার জেডন স্যানচোর নেওয়া কোনাকুনি শট ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক কেইলর নাভাস। আট মিনিট পর আরেকটি ভালো সুযোগ পেয়ে জোরালো শটে পাশের জাল কাঁপান জানুয়ারির দলবদলে ডর্টমুন্ডে আসা হরল্যান্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম পাঁচ মিনিটে দুবার প্রতিপক্ষের রক্ষণে ভীতি ছড়ায় ডর্টমুন্ড; কিন্তু শেষে তালগোল পাকিয়ে সুযোগ হাতছাড়া করে তারা। পাল্টা আক্রমণে ৬৪তম মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ পায় পিএসজি। তবে গোলরক্ষক বরাবর শট নিয়ে হতাশ করেন এমবাপে।

৬৯তম মিনিটে সাফল্যের দেখা পায় ম্যাচ জুড়ে দাপুটে ফুটবল খেলা ডর্টমুন্ড। গেররেইরোর শট প্রতিপক্ষের পায়ে লেগে গোলমুখে বল পেয়ে যান হরল্যান্ড। ঠাণ্ডা মাথায় আলতো টোকায় গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন নরওয়ের এই স্ট্রাইকার।

৭৫তম মিনিটে খেলার ধারার বিপরীতে সমতায় ফেরে পিএসজি। গোলটির কারিগর এমবাপে; দুই ডিফেন্ডারের বাধা এড়িয়ে ফরাসি ফরোয়ার্ডের বাড়ানো বল গোলমুখে পেয়ে অনায়াসে জালে ঠেলে দেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমার।

ডর্টমুন্ডের জার্সিতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে অভিষিক্ত হরল্যান্ডের একক নৈপুণ্যে পিএসজির স্বস্তি দুই মিনিটও স্থায়ী হয়নি। সতীর্থের পাস প্রথম ছোঁয়ায় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ২২ গজ দূর থেকে বুলেট গতির শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ১৯ বছর বয়সী স্ট্রাইকার। ডর্টমুন্ডের হয়ে সাত ম্যাচে তার গোল হলো ১১টি।

ইউরোপ সেরার মঞ্চে তরুণ হরল্যান্ডের গোল হলো সাত ম্যাচে ১০টি। বায়ার্ন মিউনিখের রবের্ত লেভানদোভস্কির সঙ্গে যুগ্মভাবে উঠে বসলেন আসরের গোলদাতার তালিকার শীর্ষে। হরল্যান্ড আগের আট গোল করেছিলেন সাবেক দল সালসবুর্কের হয়ে।

পিছিয়ে পড়ার খানিক পরেই আরেকটি ভালো সুযোগ পান নেইমার। কিন্তু তার জোরালো শট পোস্টে বাধা পেয়ে তেতো স্বাদ নিয়ে ফিরতে হয় ফরাসি চ্যাম্পিয়নদের। এ জয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠার পথে এক ধাপ এগিছে জার্মান ক্লাবটি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন