Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ২৯ মার্চ ২০২০, ১৫ চৈত্র ১৪২৬, ০৩ শাবান ১৪৪১ হিজরী

ভোলায় গলায় ফাঁস দিয়ে মন্দির সেবায়েতের আত্মহত্যা

ভোলা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১:২৪ এএম

ভোলার বাণিজ্যিক কেন্দ্র খালপাড়ের কিচেন মার্কেট সংলগ্ন মদন মোহন ঠাকুর জিওর মন্দিরের সেবায়েত শ্রি নির্মল ভট্টাচার্য (৫৫)’র আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। ১৮ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার রাত ৯ টায় মূল মন্দিরের মধ্যে এই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। ঘটনায় মন্দির এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

ঘটনাস্থল গিয়ে জানা যায়, খুলনার পাইকগাছা উপজেলার হরিদাস কাঠি গ্রামের বৌদ্যনাথ ভট্টাচার্য প্রায় ২ বছর ধরে এই মন্দিরের সেবায়েত হিসেবে কাজ করে আসছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পূজো শেষ মন্দিরের রাঁধুনি অঞ্জলি রাণীর কাছে ১০ টাকা প্রণামী চাইলে অঞ্জলি রাণী টাকা দিতে না চাইলে কথার কাটা কাটির এক পর্যায়ে সেবায়েত তাকে মারধর করে। বিষয়টি অঞ্জলি মন্দির কমিটির কাছে জানালে কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক সহ কমিটির সদস্যরা ঘটনা স্থলে এসে বিষয়টি অবগত হয়ে বুধবার সকালে বিচারের উদ্যোগে নিবে বলে তারা চলে যায়। কিন্তু রাত ৯ টার দিকে মূল মন্দিরের ঘর বন্ধ অবস্থায় দর্শনার্থীরা সেবায়েতের মরদেহ দেখতে পায়। ঘটনাটি মন্দির কমিটিকে অবহিত করলে তারা ঘটনা স্থলে এসে ভোলা সদর থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে ভোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনায়েত হোসেন ঘটনা স্থলে এসে লাশ ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এসময় পুলিশ মন্দিরে থাকা সিসি টিভির বক্স নিয়ে যায়।

এই বিষয়ে মন্দির কমিটির সভাপতি দুলাল চন্দ্র বণিক ও কমিটির সম্পাদক বাবু কানাই লাল ঘটনার সত্যতা শিকার করে বলেন, সন্ধায় রান্নাঘরের মাসীর সাথে সেবায়েতের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়েছে। এক পর্যায়ে সেবায়েত মাসীকে মারধর করেছে। ঘটনা স্থলে গিয়ে আমরা উপযুক্ত বিচারের আশ্বাস দিয়েছিলাম। কিন্তু রাঁত ৯টার সময় সেবায়েত আত্বহত্যার ঘটনাটি আমাদের বিচলিত করেছে।

এ বিষয়ে ভোলা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনায়েত হোসেন বলেন, অপমৃত্যুর মামলা নিয়েছি। মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। সিসি টিভির ফুটেজ ও তদন্ত সাপেক্ষে ঘটনার কারন নির্ণয় করা যাবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আত্মহত্যা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ