Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, ১১ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

আড়াইহাজারে বাবা হত্যা মামলার আসামীকে গ্রেফতার

ক্ষিপ্ত হয়ে ছেলের হাতের কব্জি কেটে নিয়েছে প্রতিপক্ষ

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ)উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৫:১৩ পিএম

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় হত্যা মামলার আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করায় বাদীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে পরিবারের লোকজনকে কুপিয়ে রক্তাক্ত করেছে প্রতিপক্ষ। এ সময় মামলার বাদীর ছোট ভাই কলেজছাত্রকে কুপিয়ে হাতের কবজি দ্বিখন্ডিত করে ফেলে তারা। এ ঘটনায় বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারী) হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আড়াইহাজার থানায় অভিযোগ দিয়েছে ভুক্তভোগী পরিবার। এর আগে মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয়। ঘটনার ২ দিন হলে বুধবার বিকাল পর্যন্ত মামলা হয়নি।

জানা যায়, আড়াইহাজার উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের ইজারকান্দি গ্রামে আট বছর আগে খুন হন রব মিয়া। এ ঘটনায় মামলা করেন নিহতের ছেলে মাঈন উদ্দিন। শনিবার ওই মামলার এক আসামিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মঙ্গলবার ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা সাদ্দাম হোসেন তার সহযোগি ইয়ানুছ আলী, রাসেল, জুয়েল, জাকির, আলী হোসেন, হালিম ও আলামিনসহ ১৫-১৬ জনের একটি দল বাদীর বাড়িতে হামলা চালায়।

এ সময় মামলার বাদী মাঈন উদ্দিনের ঘরে ঢুকে মাঈন উদ্দিন, তার স্ত্রী, ছোট ভাই মোহাম্মদ রনি ও মা জাহানারা বেগমকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে । এলোপাতাড়ি কোপানোর সময় বাদীর ছোট ভাই কলেজছাত্র রনির মাথায় গুরুতর আঘাত ও বাম হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ নিয়ে আতঙ্কে রয়েছে নিহত রব মিয়ার পরিবার। ঘটনা অস্বীকার করে ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম জানান, আমি ঘটনাস্থলে ছিলাম না।

আড়াইহাজার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, হত্যা মামলার আসামিকে পুলিশ গ্রেফতার করায় বাদীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে আহত করা হয়েছে। আহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার


আরও
আরও পড়ুন