Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬, ০৮ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

রাজশাহী পর্যটন বার দুই ছাত্রনেতার মাতলামি-ভাঙচুর

রাজশাহী ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম

রাজশাহী পর্যটন মোটেল বারে মদ খেয়ে মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এবং ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি মাতাল হয়ে পর্যটন মোটেলের বার ভাঙচুর করেছেন। এ অভিযোগে দুই নেতাসহ চারজনকে গ্রেফতার করে গত মঙ্গলবার বিকেলে তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে একটি মহল। তবে গতকাল বুধবার দুপুরে বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীদের মধ্যে জানাজানি হয়। মাতাল হয়ে ভাঙচুরের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত মহানগর ছাত্রলীগের সহসভাপতির নাম জনি (৩০)। তার বাবার নাম একতার হোসেন। বাড়ি রাজশাহী মহানগরীর লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়া এলাকায়।

অপরদিকে মহানগর ছাত্রমৈত্রীর সভাপতির নাম জুয়েল (২৮)। তার বাবার নাম মোসলেম উদ্দিন। তার বাড়ি মহানগরীর নগরের উপরভদ্রা এলাকায়। এ ঘটনায় এ দুই ছাত্রনেতার দুই সহযোগীকেও ঘটনাস্থল থেকেই পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তারা হলেন- জসিম (২৩) ও তারেক (২২)। জসিমের বাবার নাম আবদুল হামিদ এবং তারেকের বাবার নাম মাহবুবুর রহমান। তাদের দু’জনের বাড়িই মহানগরীর লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়া এলাকায়।

তখন এ নেতারা ফোন করে আরও ১০-১২ জন কর্মীকে ডেকে আনেন। তারা এসে একযোগে বারের দরজা জানালা ও মদপানের গ্লাস ভাংচুর করতে শুরু করেন। বিপদ বুঝতে পেরে বারের ব্যবস্থাপক আবদুর রাজ্জাক নিকটবর্তী রাজপাড়া থানায় ফোন করেন। কিন্তু পুলিশ ফোন ধরতে দেরি করায় তিনি সরাসরি রাজপাড়া থানায় গিয়ে পুলিশ নিয়ে আসেন।

পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে দুই নেতাসহ চারজনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় বারের ব্যবস্থাপক আবদুর রাজ্জাক বাদী হয়ে ওই থানায় দুইটি মামলা করেন। একটি মামলা মদপান করে মাতলামি করার অভিযোগে মাদকদ্রব্য আইনে এবং অপরটি ভাংচুর করার অভিযোগে দায়ের করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাসান বলেন, জনি তাদের সহসভাপতি। এর আগেও তিনি এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছেন। তাদের অনেকবার সতর্ক করা হয়েছে। ছাত্রমৈত্রীর মহানগর শাখার সাবেক সভাপতি ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের সাত নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মতিউর রহমান বলেন, ছাত্রমৈত্রীর মহানগর শাখার সভাপতির মাতলামির ঘটনাটি আমি শুনেছি। এটি একটি দুঃখজনক ঘটনা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ