Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের ঋণ দিতে এসএমই ফাউন্ডেশন-মাইডাস ফাইন্যান্সিং চুক্তি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৭:২৪ পিএম

দেশের এসএমই ক্লাস্টারের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা এবং সারাদেশের নারী উদ্যোক্তাদের বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান মাইডাস ফাইন্যান্সিং-এর মাধ্যমে ১৫ কোটি টাকা ঋণ দেবে এসএমই ফাউন্ডেশন। গত দশ বছরের ধারাবাহিকতায় এবারো এই ঋণের বিপরীতে সর্বোচ্চ শতকরা মাত্র ৯ ভাগ সুদ নিতে পারবে প্রতিষ্ঠানটি। বাংলাদেশ ব্যাংকের পুনঃঅর্থায়ন কর্মসূচীর আওতায় এসএমই ফাউন্ডেশনের ক্রেডিট হোলসেলিং কর্মসূচী সম্প্রসারণের লক্ষ্যে মাইডাস ফাইন্যান্সিং-এর সাথে আলাদা ২টি চুক্তি সই করে এসএমই ফাউন্ডেশন। বৃহষ্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) ফাউন্ডেশনের নির্বাহী সভাকক্ষে ফাউন্ডেশনের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সফিকুল ইসলাম এবং মাইডাস ফাইন্যান্সিং-এর পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক মুস্তাফিজুর রহমান চুক্তি সই করেন। চুক্তি অনুযায়ী আগামী ৫ বছরে সারাদেশের উৎপাদন সেবা খাতের নারী উদ্যোক্তারা পাবেন ১০ কোটি টাকা এবং বগুড়া লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং ক্লাস্টারের উদ্যোক্তারা ঋণ পাবেন ৫ কোটি টাকা। প্রত্যেক উদ্যোক্তা সর্বনি¤œ ১ লাখ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২৫ লাখ টাকা পর্যন্ত জামানতবিহীন ঋণ নিতে পারবেন। চলতি মূলধন, মূলধনী যন্ত্রপাতি ক্রয়, টেকনোলজি উন্নয়ন ও সিজনাল এই ঋণের মেয়াদ ৩ বছর। এখন পর্যন্ত এসএমই ৭টি চুক্তির আওতায় মাইডাস ফাইন্যান্সিং ঢাকার ধোলাইখাল ও বগুড়া লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং ক্লাস্টার এবং তরুণ ২১১ উদ্যোক্তাকে ১০ কোটি ৬৬ লাখ টাকা ঋণ দিয়েছে এসএমই ফাউন্ডেশন। সম্প্রতি এসএমই ফাউন্ডেশনের ক্রেডিট হোলসেলিং প্রোগ্রাম সম্প্রসারণের লক্ষ্যে এসএমই ফাউন্ডেশনের অনুকূলে ৫০ কোটি টাকার পুনঃঅর্থায়ন তহবিল অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক এবং এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের মধ্যে চুক্তিনামা স্বাক্ষর করা হয়েছে। গত ১১ বছরে এসএমই ফাউন্ডেশনের ক্রেডিট হোলসেলিং প্রোগ্রামের আওতায় দেশের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থিত ৩১টি ক্লাস্টার ও ক্লায়েন্টেল গ্রুপের ১৮৫৭ উদ্যোক্তাকে ১২টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ৯২ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে এসএমই ফাউন্ডেশন। এর মধ্যে ১৩৪৫ জন পুরুষ উদ্যোক্তা এবং বাকি ৫১২ জন নারী উদ্যোক্তা। যে ১০টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ঋণ বিতরণ করা হয় সেগুলো হলো, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, এনসিসি ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক, ট্রাস্ট ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, ঢাকা ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক, এনআরবি ব্যাংক, ইউনাইটেড কমার্সিয়াল ব্যাংক, সাউথইস্ট ব্যাংক আর ২টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান হলো মাইডাস ফাইন্যান্সিং আইডিএলসি ফাইন্যান্স।



 

Show all comments
  • মোঃ হাফিজুর রহমান ২ জুলাই, ২০২০, ২:৪৫ এএম says : 0
    আমি মোঃ হাফিজুর রহমান 2003সাল থেকে এলাকায় ভিবিন্ন সমাজ সেবামূলক কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখছি। 2003 সালে পল্লী উন্নয়ন সংসহা (পউস) একটি সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে যাএা শুরু করে। 2006 সালে উক্ত সংসহার মাধ‍্যমে "পউস মডেল সকুল"" নামে একটি সকুল প্রতিষ্ঠিত করি। সকুলটি নার্সারি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত পাঠদান কার্যক্রম বর্তমানে চালু আছে। এখন শিশুদের লেখাপড়ার পাশাপাশি শারীরিক ও মানসিকভাবে বেড়ে ওঠার জন‍্য শিশু উদ‍্যান সেই সাথে সাতার শেখানোর জন‍্য সুইমিং পুল প্রতিষঠিত করার পরিকল্পনা আমার আছে আমার ব‍্যক্তিগত করার মত জমিআছে।প্রয়জোনীয় অর্থ না থাকার কারনে করতে পারছিনা। এই জন‍্য সরকারী ঋনের পয়োজন।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: চুক্তি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ