Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

ইসলামের সেবায় অনন্য ইতিহাসে স্থান করেছেন প্রধানমন্ত্রী -বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী

বর্ণাঢ্য আয়োজনে সিলেটে ফুলতলী মাদরাসার শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে সম্পন্ন

সিলেট ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৮:৩০ পিএম

সিলেটের ঐতিহ্যবাহী বাদেদেওরাইল ফুলতলী কামিল (এম.এ) মাদরাসার শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। অযুত স্মৃতি, ইতিহাস, ঐতিহ্য সম্মিলনে শতবর্ষী অনুষ্টানটি নজর কেড়েছে শিক্ষানুরাগী সহ দ্বীনের রাহবারদের। বৃহস্পতিবার সীমান্তবর্তী জকিগঞ্জের ফুলতলীতে মুরশিদে বরহক হযরত আল্লামা ইমাদ উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ, বন ও জলবায়ূ পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন এমপি। তিনি বলেন, মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) শিক্ষার ব্যাপারে অত্যন্ত গুরুত্বারোপ করেছেন। বিশেষত নৈতিক শিক্ষার প্রতি তিনি তাগিদ দিয়েছেন। মহানবী (সা.) বলেছেন, উত্তম চরিত্রের পরিপূর্ণতা বিধানের জন্য আমি প্রেরিত হয়েছি। এখানে যে শিক্ষার প্রতি ইঙ্গিত করা হয়েছে তা হলো নৈতিক শিক্ষা। যে শিক্ষা শৃঙ্খলা, সত্যবাদিতা, মান্যতা, মহানুভবতা সৃষ্টি করে এবং মানবকল্যাণে কাজে আসে তাই প্রকৃত শিক্ষা। দ্রুত নৈতিক ্ও চারিত্রিক অর্ধপতন ঘটছে। অবস্থার উত্তরণে ধর্মী শিক্ষার খুবই দরকার। হযরত আল্লামা ফুলতলী ছাহেব কিবলাহ (র.) এ শিক্ষা প্রচার করে গেছেন। তিনি আমাদের সকলের প্রিয়। আমরা তাঁকে শ্রদ্ধা করি। তিনি সরকারের প্রতি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দাবী জানিয়েছিলেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অঙ্গীকার করেছিলেন ক্ষমতায় গেলে আরবি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করবেন। সেই অঙ্গীকার রক্ষার মধ্যে ইসলামের সেবায় অনন্য ইতিহাসে স্থান করে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
বাদেদেওরাইল ফুলতলী কামিল এম.এ মাদরাসার আরবী প্রভাষক, শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন কমিটির যুগ্ম আহবায়ক মাওলানা মোহাম্মদ নজমুল হুদা খান ও কমিটির সদস্য মাওলানা নজীর আহমদ হেলালেরর যৌথ পরিচালনায় মাহফিলে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ওমানের যুফার ইউনিভার্সিটির প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইয়াহইয়া আল কিত্তানী, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, হাফিজ আহমদ মজুমদার এমপি, গাজী মোহাম্মদ শাহনওয়াজ এমপি, ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আহসান উল্লাহ, শায়খুল হাদীস আল্লামা হবিবুর রহমান, বাদেওরাইল ফুলতলী কামিল মাদরাসার অবসরপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল আল্লামা নজমুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী, দৈনিক ইনকিলাবের নির্বাহী সম্পাদক মাওলানা কবি রূহুল আমীন খান, বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীনের মহাসচিব মাওলানা শাব্বির আহমদ মোমতাজী, বাংলাদেশ আন্জুমানে আল ইসলাহর সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী, ঢাকা বিশ্বদ্যিালয়ের আরবী বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুল কাদির, আন্জুমানে আল ইসলাহর মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা একেএম মনোওর আলী, ফেঞ্চুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কবি কালাম আজাদ, মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র মোঃ ফজলুর রহমান প্রমুখ। সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি এডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব, আন্জুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যক্ষ মাওলানা ছরওয়ারে জাহান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাওলানা আহমদ হাসান চৌধুরী, আনজুমানে আল ইসলাহর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিন্সিপাল মাওলানা মঈনুল ইসলাম পারভেজ, মহাখালী হোসাইনিয়া কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল ড. মাওলানা নজরুল ইসলাম খান আল মারুফ, সৎপুর কামিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা ছালিক আহমদ, ফরিদপুর জেলা পুলিশের এএসপি নোমান আহমদ, জকিগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আব্দুস সালাম, মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের আঞ্চলিক পরিদর্শক জাহিদুল ইসলাম সিদ্দিকী, আনজুমানে আল ইসলাহ’র কেন্দ্রীয় শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাওলানা আজির উদ্দিন পাশা, বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূনুর রহমান লেখন।
অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উজানডিহির পীর ছাহেব মাওলানা সায়্যিদ মোস্তাক আহমদ আল মাদানী, সায়্যিদ জুনাইদ আহমদ আল মাদানী, মাওলানা আব্দুশ শাকুর চৌধুরী ফুলতলী, মাওলানা শিহাব উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী, সোবহানীঘাট কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা কমরুদ্দীন চৌধুরী, ইয়াকুবিয়া হিফযুল কুরআন বোর্ডের জেনারেল সেক্রেটারী হাফিয মাওলানা ফখরুদ্দীন চৌধুরী, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লোকমান উদ্দিন চৌধুরী, জকিগঞ্জ সার্কেলের এডিশনাল এসপি সুদীপ্ত রায়, জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিজন কুমার সিংহ, জালালপুর জালালিয়া কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা জ.উ.ম আব্দুল মুনঈম, জকিগন্জ সিনিয়র মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা নুরুল ইসলাম, উপাধ্যক্ষ মাওলানা এখলাসুর রহমান, সৎপুর কামিল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আবূ জাফর মুহাম্মদ নুমান, বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি আখতার হোসাইন জাহেদ, বিশ্বনাথ আলিয়া মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা নুমান আহমদ, ভারতের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ আজিজুর রহমান তালুকদার, ঢাকা জেলা লতিফিয়া কারী সোসাইটির সভাপতি মাওলানা আবু সাদেক মুহাঃ ইকবাল খন্দকার, মাওলানা কাজী আলাউদ্দিন আহমদ, জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুস সবুর, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুর রহিম। এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় চেয়ারম্যান মাহতাব হোসাইন চৌধুরী। অনুষ্ঠানের প্রথম অধিবেশনে অনুভুতি প্রকাশ করে মাদরাসার বিভিন্ন ব্যাচের সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাথিউরা সিনিয়র মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আবদুল আলিম, চান্দগ্রাম সিনিয়র মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, মিয়ারবাজার আলিম মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা পিয়ার মাহমুদ, সোবহানীঘাট হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ মাওলানা আবূ ছালেহ মুহাম্মদ কুতবুল আলম, জকিগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল খালিক, গোটারগ্রাম দাখিল মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা আব্দুল বাছিত, জকিগঞ্জ সিনিয়র মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা ফদ্বলুর রহমান, হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা জইন উদ্দিন, ফুলতলী কামিল মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা মোহাম্মদ আলী, মাওলানা আব্দুল লতিফ, ইছামতি কামিল মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা আব্দুল লতিফ শামীম, কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়রম্যান মাওলানা ফজলুল হক খান শাহেদ, বিশ্বনাথ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা হাবিবুর রহমান, তালামীযে ইসলামিয়ার সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা ফখরুল ইসলাম, মাওলানা সৈয়দ মুন্তাসির আলী প্রমুখ। অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে সমৃদ্ধ স্মারকও প্রকাশিত হয়। এছাড়া শিক্ষার্থীদের প্রদান করা হয় উপহার সামগ্রি।

কৃতজ্ঞতা প্রকাশ:
এদিকে শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান সফল করায় শতবর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুর রহিম ও সদস্য সচিব মাওলানা মাহমুদ হাসান চৌধুরী রায়হান অনুষ্ঠানের সম্মানিত অতিথিবৃন্দ, মাদরাসার সাবেক শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ, প্রশাসন, পুলিশ বাহিনী, স্বেচ্ছাসেবক, সাংবাদিক ও সর্বস্তরের এলাকাবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ