Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ২০ চৈত্র ১৪২৬, ০৮ শাবান ১৪৪১ হিজরী

বিদায় নিতে যুক্তরাজ্যে ফিরছেন হ্যারি মেগান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০৬ এএম

ব্রিটিশ রাজপরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার চ‚ড়ান্ত আনুষ্ঠানিকতা শেষ করতে যুক্তরাজ্যে ফিরছেন প্রিন্স হ্যারি ও তার স্ত্রী মেগান মার্কেল। তাদের দু’জনের মুখপাত্র এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, আগামি ৩১ মার্চ রাজপরিবারে অফিস বন্ধ হবে। তার পর থেকেই শুরু হবে তাদের পৃথক জীবন।
ডিউক ও ডাচেস অব সাসেক্স হ্যারি ও মেগানকে রাজপরিবারের সদস্য হিসেবে শেষবারের মত কিছু রাজকীয় দায়িত্ব পালণ করতে হবে। ফেব্রæয়ারি মাসের শেষের দিকে এবং মার্চে যুক্তরাজ্যে ছয়টি অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার কথা রয়েছে তাদের। এরপর আগামী ৩১ মার্চ আনুষ্ঠানিকভাবে রাজপরিবারের দায়িত্ব ছাড়বেন এই দম্পতি। এরপর থেকে রানীর পক্ষ থেকে হ্যারি-মেগান আর কোনো দায়িত্ব পালন করবেন না। তবে পদত্যাগপত্র জমা দেয়ার পর ১২ মাস সেগুলো পর্যবেক্ষণ করা হবে।
আলোচিত এই দম্পতি নিজেদের দাতব্য প্রতিষ্ঠান দাঁড় করানোর চেষ্টায় আছেন। আফ্রিকার এইচআইভি আক্রান্ত শিশুদের জন্য তহবিল সংগ্রহ-সহ নানা সামাজিক কাজে যুক্ত হওয়ার পরিকল্পনা করছেন দু’জন। ইতিমধ্যে, হ্যারি এবং মেগান ‘আর্থিকভাবে স্বাধীন’ হওয়ার ইচ্ছায় রাজকীয় পদবি ছেড়ে কানাডায় পাড়ি দিয়েছেন। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের শুরুর দিকে প্রিন্স হ্যারি ও মেগান ঘোষণা দেন, তারা রাজপরিবারের উপাধি ‘রয়্যাল হাইনেস (এইচআরএইচ)’ উপাধি আর ব্যবহার করবেন না এবং রাজকীয় দায়িত্ব পালনের জন্য সরকারি অর্থও গ্রহণ করবেন না।
এক সময় অভিনয় পেশায় থাকা মেগানকে বিয়ের পর পরিবারের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হয় হ্যারির। গত ৮ ডিসেম্বর হ্যারি এবং মেগান ঘোষণা দেন তারা রাজপরিবারের সামনের সারির দায়িত্ব থেকে অবসর নিতে চান। তারা এই ঘোষণা দিয়েছিলেন রানি বা রাজপরিবারের কোনো সদস্যের সঙ্গে আগাম আলোচনা ছাড়াই। এ জন্য এ ঘটনা তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি করে। সূত্র : সিএনএন।

 

 



 

Show all comments
  • Raju Khan ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:২৩ এএম says : 0
    বাংলাদেশে আসেন, গরুর খামারে প্রচুর লাভ
    Total Reply(0) Reply
  • Md Alamgir ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:২৩ এএম says : 0
    অার অামাদের দেশে লাতি মারলেও খমতা ছাড়তে রাজি নয়। টাকা পয়সায় মানুষের সুখ এনে দিতে পারেনা, প্রকৃত মনের সুখেই অাসল সুখ।
    Total Reply(0) Reply
  • হুমায়ূন. আহমেদ. ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:২৪ এএম says : 0
    বাংলাদেশের কিছু মানুষ তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ দেখার অপেক্ষায় বসে আছে, অথচ একটি বার চিন্তা করছেনা মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ মানে বাংলাদেশ সহ এশিয়ার দেশগুলো ধ্বংস হয়ে যাওয়া। বিশেষ করে সৌদিআরব, কুয়েত, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কাতার, ওমানে প্রায় ৬০ লক্ষ বাংলাদেশী বসবাস করছে, একবার চিন্তা করুন যদি যুদ্ধ লেগে যায় তাহলে এই ৬০ লক্ষ লোকের কি হবে? যদি তারা দেশে চলে যায় তাহলে দেশের অর্থনীতির অবস্থা কি হবে?? যে যাই বলুক, আশা করি পরিস্থিতি খুব তাড়াতাড়ি স্বাভাবিক হয়ে যাবে।।
    Total Reply(0) Reply
  • Anowar Hossain Shihab ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:২৪ এএম says : 0
    শুভ কামনা
    Total Reply(0) Reply
  • Lucky Miraz ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:২৪ এএম says : 0
    যেখানে ওরা রাজতন্ত্রের শেষ করতে চায়, সেখানে বাংলাদেশে রাজতন্ত্রের সূচনা করতে নেতারা উঠে পড়ে লাগে। এটাই উন্নত দেশের সাথে বাংলাদেশের নেতাদের মানুষিকতার পার্থক্য।
    Total Reply(0) Reply
  • আমজাদ হুসেন ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:২৫ এএম says : 0
    ব্রিটিশ রাজপরিবারের সদস্যদের মাঝে বিভিন্ন সময় যে ধরনের নিজ ব্যক্তিগত ইচ্ছা পোষণ করেন সেটা অবশ্যই সাধারণ মানুষের মাঝে চলাফেরার মাধ্যমে সেটা দিন দিন পরিবর্তন আসতেছে সারাজীবনে যে রাজপরিবারের থাকামানি জেলখানার একটা কয়েদির মতন জীবনকে বাঁচিয়ে রাখা আর যখন নিজের কর্মদক্ষতার মধ্যে ব্যক্তিগতভাবে রাজপরিবার নিজেকে সম্পূর্ণ আলাদা নিয়ন্ত্রণ করবেন তখন বুঝবেন সাধারণ মানুষের মধ্যে কি ধরনের সমস্যা এবং মানুষের জীবন সম্বন্ধে অবশ্যই রাজপরিবারের হ্যারি উত্তরটা অবশ্যই প্রশংসনীয়
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন