Inqilab Logo

ঢাকা, রোববার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৭ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

অভিযোগ শুনতে জম্মু কাশ্মীর যাবেন ভারতের ৪০ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৫:৪৯ পিএম

মানুষের অভাব-অভিযোগের কথা শুনতে জম্মু-কাশ্মীর পরিদর্শনে যাবেন কেন্দ্রের ৪০ জন মন্ত্রী। উপত্যকায় ৩৭০ ধারা রদের পর থেকেই একাধিকবার উত্তপ্ত হয়েছে জম্মু-কাশ্মীর। জনসুরক্ষা আইনে আটক হয়েছেন তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। এই পরিস্থিতিতে এবার সেখানকার মানুষের অভাব-অভিযোগের কথা শুনতে জম্মু-কাশ্মীর পরিদর্শনে যাবেন কেন্দ্রের ৪০ জন মন্ত্রী। ইতিমধ্যেই জানুয়ারিতে উপত্যকা ঘুরে এসেছেন ৩৬ জন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সূত্রে জানানো হয়েছে যে, মন্ত্রীদের এই সফর উপত্যকায় আস্থা ফেরাতে এবং জনগণের অভিযোগ শোনার জন্য। ৩৭০ ধারা অবলুপ্তি জনগণের পক্ষে কতটা উপকারী তা ব্যাখ্যা করবেন এবং কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের বিষয়েও কথা বলবেন। মন্ত্রণালয়ের তরফে বলা হয়, ‘গতবার ভারী তুষারপাতের কারণে কাশ্মীরের অনেক জায়গায় যেতে পারেননি মন্ত্রীরা। আগামী মাসে তুষার গলে যাওয়ার ফলে জায়গাগুলিতে যাওয়া সম্ভব হবে’।
প্রসঙ্গত, গতবার উপত্যকা পরিদর্শনে গিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী (স্বরাষ্ট্র) জি কিশন রেড্ডি, আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ, শ্রীপাদ নায়েক, নিরঞ্জন জ্যোতি এবং মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল। জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদে পাঁচ মাস পরই উপত্যকা পরিদর্শনে গিয়েছিলেন তারা যাত্রা শুরুর আগে তাঁদের সঙ্গে বৈঠকে বসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নির্দেশের সুরে তার মন্ত্রীদের জানান যে, এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে কোনও রাজনৈতিক বার্তা দেয়া যাবে না। বরং হারানো সময়কে ফেরত দিতে হবে জম্মু-কাশ্মীরের বাসিন্দাদের। মনোনিবেশ করতে হবে জনসংযোগে। এমনকি নগর পরিদর্শন শেষে জম্মু বা শ্রীনগরে না ফিরে গ্রামগুলিতেই মন্ত্রীদের রাত্রিবাসের নির্দেশ দিয়েছিলেন নমো। সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাশ্মীর

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন