Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১৬ কার্তিক ১৪২৭, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

যশোরের মাঠে মাঠে হলুদের বিছানা

শাহেদ রহমান, যশোর থেকে | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

যশোর জেলার মাঠে মাঠে এখন হলুদের বিছানা। সে এক নয়নাভিরাম দৃশ্য। ইতোমধ্যে পাক ধরেছে সরিষায়। কাটার প্রস্ততি চলছে। মাঠ ঘুরে দেখা গেছে চলতি মৌসুমে তুলনামূলকভাবে সরিষার আবাদ বেশি হয়েছে। এবার ফলনও খুবই ভালো হবে বলে আশা করা হচ্ছে। সরিষা চাষি যশোরের পতেঙ্গালীর আব্দুর রশিদ জানান, সরিষা ও সরিষার তেলের চাহিদা বেশি, আর্থিকভাবে লাভবান হওয়া যায়। সেজন্যই সরিষা আবাদে আগ্রহী হয়ে উঠেছে। যার প্রমাণ সরিষার আবাদ বেশি হয়েছে বলে কৃষি সম্পসারণ অধদপ্তরের মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তারা দৈনিক ইনকিলাবকে জানান।
যশোরে অবস্থিত আঞ্চলিক কৃষি স¤প্রসারণ অধিদফতর সূত্র জানায়, চলতি মওসুমে যশোর জেলায় সরিষা আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয় ১২ হাজার ৬০ হেক্টর জমিতে। আর আবাদ হয়েছে ১৩ হাজার ৬শ’ ৪০ হেক্টর জমিতে। এই হিসেবে দেখা যায়, লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে দেড় হাজার হেক্টর জমিতে এবার সরিষার আবাদ হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সরিষার হৃষ্টপুষ্ট হয়েছে। ভালো দানা পাওয়া যাবে। ইতোমধ্যে মাঠে মাঠে সরিষায় পাক ধরেছে। কাটার অপেক্ষায় রয়েছেন কৃষকরা।
সরিষা চাষিরা জানান, পুরাদমে সরিষার পরিচর্যা চলছে। চাষিরা সুন্দরভাবে মাঠ থেকে সরিষা ঘরে তুলতে পারবেন বলে আশা করছেন। তদের দাবি উপযুক্ত মূল্যপ্রাপ্তি নিশ্চিত করা হবে। যশোরের বাঘারপাড়া, কেশবপুর, মনিরামপুর, ঝিকরগাছা ও চৌগাছার বিভিন্ন মাঠের চারিদিকে সবজিসহ অন্যান্য ফসলের সাথে হলুদ ফুলের সরিষা মাঠের চেহারা পাল্টে দিয়েছে।
কৃষক ও কৃষি কর্মকর্তারা জানান, সরিষার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে। মাঠের চেহারায় তার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। এখন বিস্তীর্ণ মাঠ জুড়ে সরিষার ফুল সবার দৃষ্টি কাড়ছে। মৌমাছি মধু সংগ্রহ করছে সরিষা ফুল থেকে। বাজারে সরিষা মধুর চাহিদা ও দাম বেশি। আবার সরিষা শাকেরও ব্যাপক চাহিদা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যশোর

১৮ আগস্ট, ২০২০
২০ এপ্রিল, ২০২০
৮ এপ্রিল, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন