Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ শাবান ১৪৪১ হিজরী

ফুলদহ গ্রাম এখন পুরুষশূন্য মানুষ রাত হলেই ছাড়ে বাড়িঘর

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) উপজেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০৩ এএম

সরিষাবাড়ী উপজেলার ভাটারা ইউনিয়নের ফুলদহ গ্রামের কাঠ ব্যবসায়ী ফজলুল হক (ফজুল) হত্যাকান্ডের এক বছর পর নতুন করে ধরপাকড় শুরু হলে রাত হওয়ার আগেই গ্রামবাসি ঘরবাড়ি ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নেয়ায় গ্রামটি এখন পুরুষশুন্য।

বৃহস্পতিবার ঐ গ্রামে সরেজমিনে জানা গেছে, ফুলদহ গ্রামের নিহত ফজলুল হক ও মামলার ১নং বিবাদী গাবতলী বাজারের মুদী ব্যবসায়ী এরশাদ গত বছর ১৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় দুই বন্ধু ব্যবসার কাজে জামালপুর যাওয়ার কালে রাস্তায় সিএনজি দুর্ঘটনায় আহত হয়। ময়মনসিংহ নেয়ার পথে ব্যবসায়ী ফজুল মারা যায়। রাতেই মৃত ফজলুল হকের লাশ বাড়ি এনে পরের দিন পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়। এ ঘটনার এক সপ্তাহ পর নিহত ব্যবসায়ী ফজলুল হকের স্ত্রী আন্জুয়ারা বাদি হয়ে জামালপুর পেনাল কোর্টে মামলা দায়ের করে, যার নং-৩০২/৩৪।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রায় এক বছর তদন্তশেষে গত ১২/১১/২০১৯ তারিখে চুড়ান্ত রিপোর্ট পেশ করে। রিপোর্টে মামলার বাদি সন্তুষ্ট না হলে আবার ঐ মামলায় সিআইডির কাছে তদন্ত চাইলে পিবিআই জামালপুর এর তদন্ত কাজে হাত বাড়ায়। পিবিআই জামালপুরের কর্মকর্তারা ফুলদহ গ্রামে তদন্ত শুরু করলে প্রতিনিয়ত দু’চার জনকে ধরে নিয়ে ছেড়ে দেয় বা কাউকে আটকেও রাখে। এ ঘটনায় গ্রামের অর্ধেক লোক আতঙ্কে ঘরবাড়ি ছাড়া শুরু করে। ইতিমধ্যে গ্রামের দু’তিন জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটকও করে।

এ ব্যাপারে পিবিআই জামালপুর ইনচার্জ ফিরোজ হোসাইনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, মামলার ব্যপারে আমি এখন পর্যন্ত অবগত নই। বৃহস্পতিবার বিকেলে ফুলদহ গাবতলী বাজারের জাকির হোসেন নামে এক ডাক্তারকে গ্রেফতার করলে সন্ধ্যা থেকে ঐ গ্রাম পুরুষশুন্য হয়ে পড়ে।

সরিষাবাড়ী থানার ওসি তদন্ত জোহায়েরুল হক জানান, মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদনে আমরা যা পেয়েছি তাই দাখিল করেছি। বাদিপক্ষ কখন কিভাবে আবার এটা নিয়ে অভিযোগ করে তা আমার জানা নেই। ফুলদহ গ্রামে প্রতিদিন যে সিআইডি বা পিবিআইয়ের লোকজন আসা যাওয়া করে তাও আমাদের জানা নেই। জনমনে প্রশ্ন, তাহলে সাদা পোশাকধারী ওরা কারা। যারা গ্রামের দু’তিন জনকে ইতিমধ্যে গ্রেফতারও করেছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মামলা


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ