Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬, ১২ শাবান ১৪৪১ হিজরী

যৌতুকের জন্য নির্যাতিত

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০৩ এএম

ভারতের জাতীয় নারী হকি দলের সাবেক অধিনায়ক ওয়াইখম সুরাজ লতা দেবী পারিবারিক সহিংসতা, শারীরিক আঘাত ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ এনে মামলা করেছেন। স্বামী শান্ত সিংকে মামলার প্রধান আসামি করেছেন তিনি।

পাঞ্জাবের সুলতানপুর থানায় গত বুধবার মামলা দায়েরের পর নিজের এলাকা মনিপুরের ইমফলে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত তুলে ধরেন লতা দেবী। তিনি অভিযোগ করেন, ২০০৫ সালে শান্তর সঙ্গে বিয়ে হওয়ার পর থেকেই তিনি নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছেন এবং এই নির্যাতনের প্রধান কারণ যৌতুক।
লতা দেবীর নেতৃত্বেই ভারতীয় হকি দল ২০০২ সালে কমনওয়েলথ গেমস, ২০০৩ সালে আফ্রো-এশিয়ান গেমস এবং ২০০৪ সালে হকি এশিয়া কাপে স্বর্ণপদক জেতে। মনিপুরের মতো পিছিয়ে পড়া অঞ্চল থেকে উঠে এসে ভারতীয় নারী হকি দলকে গুছিয়ে এমন সম্মাননা এনে দেয়ার ক্ষেত্রে তিনি যে সংগ্রাম করেছেন, সেই প্রেরণাদায়ক কাহিনির ওপরই নির্মিত হয়েছিল বলিউড সিনেমা ‘চাক দে! ইন্ডিয়া’।
সংবাদ সম্মেলনে লতা অভিযোগ করে বলেন, বিয়েতে এবং বিয়ের পরে আমি যত পুরস্কার-পদক পেয়েছি, সেগুলো নিয়ে আমার স্বামী শান্ত সিং উপহাস করেছে। এগুলো কী কাজে লাগবে বলে কটাক্ষ করেছে। এমনকি ক্রীড়াক্ষেত্রে অবদানের জন্য আমি যে অর্জুন পুরস্কার পেয়েছি, সেটাও নাকি অনৈতিক কার্যকলাপের কারণে পেয়েছি বলে অপমান করেছে সে। কয়েকটি টুর্নামেন্ট চলাকালেও স্বামী শান্ত সিং তাকে শারীরিকভাবে আঘাত বা নির্যাতন করেছেন বলে দাবি করেন তিনি। সূত্র : এনডিটিভি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ