Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৯ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

মাগুরা হাসপাতালের গেটে অবৈধ স্থাপনা

স্টাফ রিপোর্টার, মাগুরা থেকে | প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১২:০২ এএম

মাগুরা আড়াইশ’ বেডের হাসপাতালের গেটে অবৈধ দোকান আর যত্রতত্র অটো রিকশার ভীড়ে জরুরি প্রয়োজনে হাসপাতালে প্রবেশ করতে চরম বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে রোগীসহ সাধারণ জনগণের। হাসপাতালের প্রবেশ দ্বারের দু’পাশে দোকান বসিয়ে দিব্বি ব্যবসায় চালিয়ে যাচ্ছে। অথচ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ সমস্যা সমাধানে কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। হাসপাতালে কর্মরত দু’জন কর্মচারী এসব ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা নিয়ে হাসপাতাল গেটে হোটেল চায়ের দোকানসহ প্রায় ২০টি দোকান বসিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এসব হোটেলে রিকশা চালকরা খেতে আসলে তাদের অটো এবং রিকশার মূল গেট ও ফুটপাত বন্ধ হয়ে যায়। সৃষ্টি হয় জটের।
রাস্তার পাশে এসব দোকান বসানোর কারণে যান চলাচলে সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। অথচ ট্রাফিক বিভাগ ও সড়ক জনপথ বিভাগ কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। বর্তমানে সাধারণ মানুষ ভেতরে ঢুকতে সমস্যার পাশাপাশি অ্যাম্বুলেন্স প্রবেশ করো দুষ্কর হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে জেলা পপ্রশাসনের এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে সমস্যা তুলে ধরে স্থায়ী সমাধান দাবি করা হয়।
জানা গেছে, মাগুরা সদর হাসপাতালে এনটিসিতে ও হোমীয় চিকিৎসকের দফতরে কর্মরত দু’জন কর্মচারী মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে এসব দোকানীদের বসিয়ে ফায়েদা নিয়েছে। তারা সরকারি চাকরি করলেও দফতরের কাজ ফাকি দিয়ে এসব দোকানের ব্যবসা নিয়ে ব্যস্ত রয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। রোগীদের অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, হাসপাতালের সামনে যেখানে ফুলগাছ লাগানোর কথা সেখানে তা করা হয়নি। এমনকি ফুটপাত দোকানিরা দখল করায় সাধারণ জনগণ মূল সড়ক দিয়ে চলাচল করতে বাধ্য হচ্ছে আর দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত।
এ ব্যাপারে মাগুরা আড়াইশ’ বেডের হাসপাতালের তত্বাবধায়ক স্বপন কুমার কুন্ডু জানান, হাসপাতাল গেটে এ অবস্থা কেউ চায় না। কিন্তু ইচ্ছা থাকলেও এদের উচ্ছেদ করা যাচ্ছে না। কেন করা যাচ্ছে না জানতে চাইলে তিনি প্রভাবশালী ব্যাক্তির অনুরোধ এর কথা বলেন। তবে তিনি বলেন, কয়েকবার মোবাইল কোর্ট এদের উচ্ছেদ করলেও দু’এক দিনের মধ্যে আবার দোকান বসিয়ে এ সমস্যার সৃষ্টি করছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হাসপাতাল


আরও
আরও পড়ুন