Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০২ এপ্রিল ২০২০, ১৯ চৈত্র ১৪২৬, ০৭ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

গান্ধীর আশ্রমে চরকা কাটলেন ট্রাম্প

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:৪৪ পিএম

ব্যস্ততার মধ্যেও মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতি বিজড়িত ঐতিহাসিক সবরমতী আশ্রম দেখতে গেলেন ট্রাম্প দম্পতি। শুধু ঘুরেই দেখলেন না তারা, স্বামী-স্ত্রী পাশাপাশি বসে চরকাও কাটলেন সেখানে।

সোমবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে স্ত্রী মেলানিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ভারতের আহমেদাবাদে পা রাখেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। বড় মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্প এবং জামাতা জ্যারেড কুশনারও একই সঙ্গে সেখানে পৌঁছন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজে বিমানবন্দরে তাদের স্বাগত জানাতে গিয়েছিলেন।

বিমানবন্দরে ভারতীয় প্রতিনিধিদলের সঙ্গে আলাপচারিতা সেরে আলাদা আলাদা গাড়িতে উঠে সবরমতীর উদ্দেশে রওনা দেন ডোনাল্ড ট্রাম্প, মেলানিয়া ট্রাম্প এবং নরেন্দ্র মোদি।

আট কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে আশ্রমে পৌঁছন তারা। সরাসরি আশ্রম চত্বরে গাড়ি গিয়ে থামে। সেখানে উত্তরীয় পরিয়ে তাদের স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী। তার পর পায়ে হেঁটেই আশ্রমের ভিতর পৌঁছন ট্রাম্প ও মেলানিয়া।

সবরমতী আশ্রমের ভিতর জুতা পরে ঢোকার অনুমতি নেই। আশ্রমের বারান্দায় ওঠার আগে জুতো খুলে রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। হিলজুতা খুলে মোজা পরে নেন মেলানিয়াও। তার পর বারান্দায় ওঠেন তারা।

আশ্রমে ঢুকে প্রথমে মহাত্মা গান্ধীর ছবিতে মালা পরান ট্রাম্প ও মোদি। এর পর আশ্রমের যে ঘরে মোহনদাস গান্ধী এবং স্ত্রী কস্তুরবা থাকতেন, সেই ‘হৃদয়কুঞ্জ’ ট্রাম্প দম্পতিকে ঘুরিয়ে দেখান মোদি। এর পরে বারান্দার এক কোণে রাখা চরকার সামনে ট্রাম্প দম্পতিকে নিয়ে আসেন তিনি। প্রথমে তাদের কাছে চরকার তাৎপর্য ব্যাখ্যা করা হয়। পরে ডেকে নেন এক আশ্রমিককে। তিনি তাদের চরকা কী ভাবে কাটে হাতে কলমে বুঝিয়ে দেন। সব মিলিয়ে সাবরমতী আশ্রমে ১৫-২০ মিনিট কাটান ট্রাম্প ও মেলানিয়া। চরকা কাটার পর নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আশ্রমের বারান্দায় বসে ছবিও তোলেন তারা। গান্ধীর বিখ্যাত ‘তিন বাদর’-এর একটি শ্বেতপাথরের মূর্তি উপহার হিসেবে দেয়া হয় ট্রাম্পকে। তার পর তারা সই করেন ভিজিটর্স বুকে। তাতে ইংরেজিতে ট্রাম্প লেখেন, ‘এই অভূতপূর্ব সফরের জন্য আমার ভাল বন্ধু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ধন্যবাদ।’ স্বামীর সঙ্গে ভিজিটর্স বুকে সই করেন মেলানিয়া ট্রাম্পও। তার পর সেখান থেকে মোতেরা স্টেডিয়ামের উদ্দেশে রওনা দেন তারা। সূত্র: এনডিটিভি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ