Inqilab Logo

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬, ০৫ শাবান ১৪৪১ হিজরী

আরো শক্তিশালী হয়ে কার্যালয়ে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ৪:৫৪ পিএম

গত কয়েক দিনের রাজনৈতিক অস্থিরতার পর মালয়েশিয়ার অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ফের নিজ কার্যালয়ে ফিরেছেন মাহাথির মোহাম্মদ। তার নেতৃত্বাধীন জোটের পতন সত্ত্বেও, ডঃ মাহাথির মোহাম্মদ এখন নতুন সরকার গঠনের পক্ষে সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছেন। কারণ দেশের বেশিরভাগ সাংসদরাই ৯৫ বছর বয়সী এই নেতার পক্ষে সমর্থন ঘোষণা করেছেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যম দ্য স্টার জানিয়েছে, মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী গাড়িকে তার কার্যালয়ে যেতে দেখা গেছে। মাহাথিরের অভ্যন্তরীণ চেনাশোনাগুলির একটি ঘনিষ্ঠ একটি সূত্র জানিয়েছে যে, মন্ত্রিসভার নিয়োগ বাতিল হয়ে যাওয়ায় তিনি ২২২ জন সংসদ সদস্যের মধ্যে থেকে নতুন মন্ত্রীসভা গঠন করতে পারেন।

এর আগে সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় রাজার কাছে নিজের পদত্যাগপত্র পাঠান মাহাথির। পরে বিকালে তার পদত্যাগপত্র গ্রহণের পর মালয়েশিয়ার রাজা সুলতান আব্দুল্লাহ অধ্যাদেশ জারির মাধ্যমে তাকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ প্রদান করেন। মালয় সরকারের প্রধান সচিব মোহাম্মদ জুকি আলি বলেছেন, দ্য ফেডারেল সংবিধানের ৪৩(২) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাজা সিদ্ধান্তটি নিয়েছেন। বিবৃতির মাধ্যমে তিনি বলেন, নতুন সরকার গঠন ও পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত মাহাথির মোহাম্মদ দেশটির প্রশাসনিক দায়িত্ব পালন করবেন।

বিশ্বের সবচেয়ে প্রবীণতম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে পরিচিত মাহাথির ২০১৮ সালে দ্বিতীয় মেয়াদে মালয়েশিয়ার ক্ষমতায় বসেন। দুই লাইনের এক বিবৃতিতে ৯৪ বছর বয়সী এই মাহাথির বলেছেন, সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ১টায় নিজের পদত্যাগের বিষয়টি তিনি মালয়েশিয়ার রাজাকে জানিয়েছেন।

বিশ্লেষকদের মতে, ২০১৮ সালের নির্বাচনে জয় লাভের পর পাকাতান হারাপান জোটের প্রধান হিসেবে সে বছরের ১০ মে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন মাহাথির মোহাম্মদ। বারিসান ন্যাশনাল দলের প্রধান হিসেবে দীর্ঘ ২২ বছর দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন শেষে ২০০৩ সালে ক্ষমতা থেকে সরে যান তিনি।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিন যাবত ক্ষমতাসীন পাকাতান হারাপান জোটের নেতারা দফায় দফায় বৈঠক করায় জোট ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। তাই বিরোধী দল ‘উমনো অ্যান্ড পার্টি ইসলাম সে-মালয়েশিয়া’-এর (পিএএস) নেতৃত্বে শিগগিরই দেশটিতে নতুন সরকার আসতে পারে বলেও ধারণা করছেন অনেকে। মূলত এসব কারণেই মাহাথির মোহাম্মদ পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে দাবি দেশটির রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের। সূত্র: ফ্রি মালয়েশিয়া টুডে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মালয়েশিয়া

১৮ মার্চ, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ