Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১, ০৪ মাঘ ১৪২৭, ০৪ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

পরিবেশ দূষণ প্রতিরোধে সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে : পরিবেশ মন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১০:০৬ পিএম

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন পরিবেশ দূষণ প্রতিরোধে সরকারের পাশাপাশি সকলকে একযোগে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন।
তিনি বলেন,‘সরকারের সাথে সকলে মিলে দূষণ রোধে কাজ করলে আমরা ফিরে পাবো বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ প্রাকৃতিক পরিবেশ সমৃদ্ধ সুজলা-সুফলা,শস্য-শ্যামলা সোনার বাংলাদেশ।’
মন্ত্রী আজ ধামরাইয়ের আলাদিনস পার্কে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয় আয়োজিত ‘বার্ষিক বনভোজন-২০২০’র পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

সরকার পরিবেশ দূষণে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি বাস্তবায়ন করছে উল্লেখ করে পরিবেশমন্ত্রী বলেন,গত এক বছরে ক্ষতিকর ধোঁয়া নিঃসরণকারী প্রায় ৫ শত অবৈধ ইটভাটা ও কারখানা ধ্বংস করা হয়েছে। ক্ষতিকর ধোঁয়া নিঃসরণকারী যানবাহনের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের লক্ষ্যে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, ইটভাটার দূষণ থেকে স্থায়ীভাবে মুক্তির জন্য ইটের বিকল্প ব্ল¬কের ব্যবহার শুর ু করা হচ্ছে। সকল কারখানায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সিস্টেম বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।
মন্ত্রী বলেন, অন্যতম দূষণকারী পলিথিন ও প্লাস্টিকের বর্জ্য রিসাইক্লিংয়ের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি জানান, পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে মুজিববর্ষে দেশের ৪শ’ ৯২টি উপজেলায় একযোগে এককোটি গাছের চারা রোপণ করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, শুধু প্রাকৃতিক পরিবেশ ঠিক করলেই হবে না, মনোজাগতিক দূষণ রোধে সন্তানদের সাহিত্য চর্চা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত করতে হবে।

সূত্র: বাসস



 

Show all comments
  • Robi ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০, ১১:০৯ পিএম says : 0
    পরিবেশের যে দশা আপনারা করেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের দায়িত্ব আপনাদের.
    Total Reply(0) Reply
  • শেখ মোহাম্মদ সেলিম উদ্দিন ৮ ডিসেম্বর, ২০২০, ১২:৩৮ এএম says : 0
    ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলাধীন কানিহারী ইউনিয়নের এলাংজানি গ্রামের গনবসতিপূর্ন একটি মহল্লাই ৭/৮টি ইট ভাটা। ইতোপূর্বে পরিবেশ অধিদপ্তর ইট কালো ধূয়ায় জন জীবন বিপর্যস্ত হওয়ায় ও মারাত্মকভাবে পরিবেশ দুষনের কারনে অতি ভয়ানক দুটি ইট ভাটা বন্ধ করে দেয়। চলতি অর্থ বছরে গাজীপুরে যেসব ইট ভাটা সমূহ কারনে বন্ধ করা হয় সেসব ২টি ভাটা মালিক যথা একতা ব্রিকস্ ও মদিনা ব্রিকস্ নামীয় প্রতিষ্ঠান উক্ত বন্ধ ইট ভাটার স্থানে এসে বন্ধ ইট ভাটাগুলি সচল করে পুনরায় অবৈধভাবে পরিচালনা করছে। এতে ফসলি জমির ব্যাপক ক্ষতিসাধন,স্থানীয় বাজার, স্কুল,মক্তব,মাদ্রাসা, মসজিদ পাশেই থাকায় এলাকাবাসী অসস্থিকর পরিবেশে বাস করছে। উপযুক্ত কারন উল্লেখ পূর্বক স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা, স্কুল ও মাদ্রাসা প্রধান, বাজার কমিটির সভাপতি মাননীয় মন্ত্রী, এমপি, ডিসি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পরিবেশ অধিদপ্তর বরাবর অবৈধ ইট ভাটা বন্ধ করে পরিবেশ বান্ধব হলো ব্লক উৎপাদন অনুমতি প্রদান এবং উদ্ভুদ্ধ সমস্যার সমাদান ও আশু প্রতিকারের জন্য লিখিত আবেদন করার পরও কোন কার্যকর ব্যবস্থা গৃহীত হয়নি। এহেন পরিস্থিতিতে, সংক্ষুদ্ধ জনতা ও ভূক্তভোগীরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বরাবর আশু প্রতিকার ও পরিত্রানের জন্য আবেদন-নিবেদন জানানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে তথ্যাভাস রয়েছে। দুদর্ষ,ভয়ঙ্কর ও প্রভাবশালী ভাটা মালিকরা পুড়া মাটির ইট প্রস্তুতের জন্য উক্ত মহল্লার প্রায় ৯৯% ভাগ টপ সয়েল জোর পূর্বক কেটে নিয়েছে। যাতে আগামী ৫০ বছরেও ফসলি জমির উর্বরতা বৃদ্ধি সম্ভব নয় মর্মে ভূক্তভোগীদের কাছ থেকে জানা যায়। এমতাবস্থায়, মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় সমীপে সদাসয় নিবেদন ও সর্নিবন্ধ অনুরোধ উক্ত মহল্লার অতি ভয়ঙ্কর বায়ূ দুষনকারী অবৈধ মেসার্স একতা ব্রিকস্ বন্ধ করত: আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনে সদয় মর্জি হয়। গভীর শ্রদ্ধাসহ, এলাকাবাসীর পক্ষে-শেখ মোহাম্মদ সেলিম উদ্দিন, ডেপুটি এক্সিকউটিভ ডিরেক্টর, পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগ, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহ।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পরিবেশ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ