Inqilab Logo

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ০৭ মাঘ ১৪২৭, ০৭ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

চীনে করোনাভাইরাস কমছে, বাড়ছে অন্যত্র

সিঙ্গাপুরে আক্রান্ত দুই বাংলাদেশি ফিরেছেন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ মার্চ, ২০২০, ১২:০১ এএম

নতুন করোনভাইরাস আতঙ্কে যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে আয়োজিত ‘আসিয়ান’ শীর্ষ সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ১৪ মার্চ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলো জোট আসিয়ান’র শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। একই সঙ্গে আগামী মঙ্গলবার হোয়াইট হাউজে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে অস্ট্রিয়া’র চ্যান্সেলরের বৈঠকের কথা ছিল। তাও স্থগিত করা হয়েছে। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস আতঙ্কে টকিও অলিম্পিক, ওমরা হজসহ ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাপী ২৪টিরও বেশি প্রদর্শনী ও সম্মেলন স্থগিত বা বাতিল করা হয়েছে। সামনে এই সংকট আরও গুরুতর হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।
এদিকে করোনাভাইরাসে এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে প্রায় তিন হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা লাখের কাছাকাছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ায় সর্বোচ্চ স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সব মিলিয়ে যতই দিন যাচ্ছে করোনা আতঙ্ক ততই বাড়ছে। এ পরিস্থিতি ‘বৈশ্বিক মহামারি’ আকার ধারণ করতে পারে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। ইতোমধ্যে এটিকে ‘সর্বোচ্চ ঝুঁকি’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে তারা। তবে বাংলাদেশে এখনো এই ভাইরাসে আক্রান্তের কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।
সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস সতর্কতা নিয়ে আসিয়ান শীর্ষ সম্মেলনের আহ্বান জানায় ট্রাম্প প্রশাসন। এশীয় নেতাদের নিয়ে যুক্তরাস্ট্রের লাস ভেগাসে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে গত শুক্রবার হোয়াইট হাউজ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ১৪ মার্চ এশীয় নেতাদের সফরের পরিকল্পনা বন্ধ করা হয়েছে। বিবৃতিতে ট্রাম্প জানান, সম্প্রতি করোনাভাইরাস বেশ কিছু দেশে মারাত্মক হারে ছড়িয়ে পড়েছে। এমন অবস্থায় ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বাড়ানোর বিষয়ে বিবেচনা স্বরূপ এই সম্মেলন স্থগিত করা পরিকল্পনা করা হয়েছে।
করোনা আতঙ্কে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে অনুষ্ঠিতব্য একাধিক আন্তর্জাতিক আসর, বাণিজ্য মেলা ও সম্মেলন বাতিল বা স্থগিত করা হয়েছে। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে টোকিও অলিম্পিক বাতিলের চিন্তা করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) একজন সিনিয়র সদস্য গত মঙ্গলবার বলেছেন, যদি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এই গ্রীষ্মে টোকিও অলিম্পিক আয়োজন বিপজ্জনক মনে করা হয়, তবে তা স্থগিত বা স্থানান্তরের চিন্তা বাদ দিয়ে ইভেন্টটি বাতিলই করতে পারেন। আইওসির সিনিয়র কর্মকর্তা ডিক পাউন্ড বলেন, যদি এই রোগটি এতটাই বিপজ্জনক থাকে, তাহলে অলিম্পিক সরাসরি বাতিলই করতে হবে। এটা স্থগিত বা স্থানান্তরের কোনো সুযোগ নেই।
একই কারনে আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা ঢাকা ট্রাভেল মার্ট এর ১৭তম আয়োজন-ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স ঢাকা ট্রাভেল মার্ট ২০২০ সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। পর্যটন মেলাটি আগামী ১২-১৪ মার্চ রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমানের প্রায় ১০০টি প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা এবারের মেলায় অংশগ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করেছে। ট্রাভেল মার্ট ২০২০ স্থগিত ঘোষণা প্রসঙ্গে আয়োজনকারী প্রতিষ্ঠান দি বাংলাদেশ মনিটর সম্পাদক এবং আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান কাজী ওয়াহিদুল আলম বলেন, বর্তমান পরিস্থিতি আমাদের সকলের নিয়ন্ত্রণের বাইরে। দেশ-বিদেশের সকল স পার্টনার, অংশগ্রহণকারী, দর্শনার্থী ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্যদের স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা আমাদের কাছে সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিধায় আমরা কোন ধরণের ঝুঁকি নিতে চাই না।
এই করোনাভাইরাস আতঙ্কে গত ১২ ফেব্রুয়ারি মোবাইল ফোন প্রযুক্তি নিয়ে বৃহত্তম প্রদর্শনী ‘মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস’ স্থগিত ঘোষণা করেন আয়োজকরা। আগামী ২৪ থেকে ২৭ ফেব্রæয়ারি স্পেনের বার্সেলোনা শহরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল বার্ষিক এ প্রদর্শনী। তবে বিটি, এলজি, নোকিয়া, সনি, ভোডাফোনের মতো বড় বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো ভাইরাস সংকটের মধ্যে প্রদর্শনীতে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিলে সেটি বাতিল করতে বাধ্য হয় আয়োজক জিএসএম অ্যাসোসিয়েশন (জিএসএমএ)।
এবারের বার্ষিক সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষও। আগামী মাসে যুক্তরাস্ট্রের সান ফ্রান্সিসকো শহরে তাদের বার্ষিক গ্লোব্যাল মার্কেটিং সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস আতঙ্কের কারণে এই সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এছাড়া আগামী মাসে সান ফ্রান্সিসকোয় অনুষ্ঠিতব্য গেম ডেভেলপার কনফারেন্সও বাতিল করেছে তারা। করোনাভাইরাস আতঙ্কে ডেভেলপার সম্মেলন স্থগিত করেছে চীনা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। এখন ওয়েবকাস্টের মাধ্যমে এ সম্মেলন হবে বলে জানিয়েছে আয়োজকরা। স্থগিত হয়েছে বেইজিং অটো শো। এপ্রিলের শেষ দিকে এ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। ১ হাজার ২০০টিরও বেশি ফ্যাশন ব্র্যান্ডের অংশগ্রহণে আগামী ২৬ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল সাংহাই ফ্যাশন উইক। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে এটিও স্থগিত করা হয়েছে। সিঙ্গাপুরে আগামী মে মাসে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ‘হোটেল রেস্টুরেন্ট অ্যান্ড ক্যাফে এক্সপো’। তবে ভাইরাস সংক্রমণের কারণে এটি আগামী জুলাই মাসে আয়োজনের কথা জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন বাণিজ্য মেলা ও সম্মেলন বন্ধ হওয়ায় এর প্রভাব পড়ছে হোটেল, এয়ারলাইন্স, বিনোদন, বিপণন, রেস্টুরেন্টসহ অন্যান্য শিল্পেও।
ইভেন্টস ইন্ডাস্ট্রি কাউন্সিল ও অক্সফোর্ড ইকোনমিকসের তথ্যমতে, ২০১৭ সালে এ খাত থেকে ২ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন ডলার আয় হয়েছিল। ওই বছর বৈশ্বিক জিডিপিতে এর অবদান ছিল প্রায় ১ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন ডলার এবং বিশ্বব্যাপী অন্তত ২ কোটি ৬০ লাখ মানুষ এতে কর্মরত ছিলেন।
মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯২২: বিশ্বজুড়ে নতুন করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়েই চলেছে। আগের তুলনায় চীনে এ রোগে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কিছুটা কমলেও অন্যান্য দেশে বিপরীত চিত্র লক্ষকরা যাচ্ছে। এরই মধ্যে ইরান, ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়ায় ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। আতঙ্ক বাড়ছে অন্য দেশগুলোতেও। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন জানিয়েছে, শুক্রবার দেশটিতে করোনা আক্রান্ত ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ৮৩৫ জন। চীনে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪২৭ জন। দেশটিতে এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৯ হাজার ২৫১ জন। চীনা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত ভাইরাস আক্রান্ত ৩৯ হাজার ২ জনকে তারা চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করে তুলেছেন। বিশ্বের অনন্ত ৫৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। চীনের মূল ভ‚খন্ডের বাইরে অন্তত ৮৭ জন কোভিড-১৯ রোগী মারা গেছেন।
আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি: চীনের বাইরে ইরানে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। সেখানে এ পর্যন্ত মোট ৩৮৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, মৃত্যু হয়েছে ৩৪ জনের। ইউরোপের মধ্যে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা ইতালিতে। দেশটিতে এ পর্যন্ত ৮৮৮ জন আক্রান্ত হয়েছে, মারা গেছেন ২১ জন। দক্ষিণ কোরিয়ায় শুক্রবার নতুন করে ৫৯৪ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৯৩১ জন, যা চীনের বাইরে সর্বোচ্চ। দেশটিতে মৃতের সংখ্যা ১৬ জন। চীন থেকে ফেরার পর মঙ্গোলিয়ার প্রেসিডেন্ট খলতমা বাতুলগা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সগবাটার দামদিনকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম মন্তসেম। তাদের সঙ্গে সফর করে আসা অন্য কর্মকর্তাদেরও একইভাবে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।
সিঙ্গাপুরে আক্রান্ত দুই বাংলাদেশি সুস্থ: সিঙ্গাপুরে নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দুই বাংলাদেশি সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরেছেন। তবে চীনের বাইরে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বাড়ছে বলে এখন আরও বেশি সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছে সরকারের রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)। গতকাল শনিবার করোনাভাইরাস নিয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, আমাদের জন্য একটি আনন্দের বিষয় যে সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও একজন বাংলাশি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে। এর আগেরদিন আরেকজন বাড়ি ফেরেন। যার অবস্থা জটিল ছিল, তিনি অপরিবর্তনীয় অবস্থায় রয়েছেন। আর বাকীরা স্থিতিশীল অবস্থায় আছেন। তারা যে কোনো সময় হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাবেন। বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় দুজনসহ এ পর্যন্ত মোট ৮৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তবে কারও শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি মেলেনি। ডা. ফ্লোরা বলেন, আক্রান্ত দেশ থেকে কোনো প্রকল্পের জন্য যদি আসার থাকে, সেটাও আমরা নিরুসাহিত করছি। সভা সমাবেশ বা মিটিংয়ে যদি আক্রান্ত দেশ থেকে কোনো অংশগ্রহণকারী আসার কথা থাকে, সেই সভা সেমিনারগুলো স্থগিত বা পরবর্তীতে করার পরামর্শ দিচ্ছি। বর্তমানে চীনের বাইরে অন্যান্য দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি হওয়ায় আরও বেশি সতর্ক থাকার আহ্বান জানান তিনি বলেন, ইরান, ইতালি ও দক্ষিণ কোরিয়াকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ‘হটস্পট’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে।
শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত ওমানফেরত শ্রমিক হাসপাতালে : জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হওয়া ওমানফেরত এক শ্রমিককে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। করোনা আক্রান্ত সন্দেহে গতকাল শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে তাকে হাসপাতালটির সংক্রামক ব্যাধি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের উপপরিচালক ল²ী নারায়ণ মজুমদার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সংক্রামক ব্যাধি ওয়ার্ডের ইনচার্জ ডাক্তার প্রজ্ঞানন্দ জানান, তাকে অবজারভেশনে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
করোনাভাইরাস ডেমোক্র্যাটদের ‘নতুন ধাপ্পাবাজি’: প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে ব্যর্থতার অভিযোগ তোলায় বিরোধী দলের কড়া সমালোচনা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নিজ প্রশাসনের ব্যর্থতা নয়, বরং ডেমোক্র্যাট সরকারের অভিবাসন নীতির কারণেই এই ভাইরাস যুক্তরাস্ট্রে ঢুকতে পারে বলে দাবি করেছেন তিনি। পাশাপাশি, করোনাভাইরাস নিয়ে দেশটিতে চলমান সমালোচনাকে বিরোধীদের ‘নতুন ধাপ্পাবাজি’ বলেও মন্তব্য করেছেন এ রিপাবলিকান নেতা। গত শুক্রবার দক্ষিণ ক্যারোলিনার উত্তর চার্লসটনে এক জনসভায় ট্রাম্প বলেন, ডেমোক্র্যাটরা করোনাভাইরাস নিয়ে রাজনীতি শুরু করেছে। রুশ তদন্ত আর অভিশংসন কান্ডের পর এটি তাদের নতুন ধাপ্পাবাজি। তিনি বলেন, ডেমোক্র্যাটরা সবসময় ভয়ঙ্কর কথাই বলবে। তারা আমাদের চরমভাবে ব্যর্থ বানাতে চায়।#



 

Show all comments
  • Babu Ray ১ মার্চ, ২০২০, ৬:৫৮ এএম says : 0
    কিছু করার নাই। প্রত্যেক দেশ ই চায় না নিজের দেশের মানুষ হুমকীর সম্মুখীন হোক।এটা তাদের সময় উপযোগী সিদ্ধান্ত
    Total Reply(0) Reply
  • Abdul Karim ১ মার্চ, ২০২০, ৭:০০ এএম says : 0
    করোনা ভাইরাস এর লক্ষ্মণ সমূহঃ জ্বর, সর্দি-কাশি, শ্বাসকষ্ট, নিউমোনিয়া। এটি চীন থেকে উৎপত্তি তাই বিশেষজ্ঞদের মতে চীন থেকে আসা ব্যাক্তির মাধ্যমেই একমাত্র এই ভাইরাস ছড়াতে পারে। এছাড়া এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কোন সম্ভাবনা নাই। কারণ এটি একটি ছোঁয়াচে রোগ। আক্রান্ত রোগীর হাঁচি কাশি থেকে এই ভাইরাস অন্যের শরীরে ছড়ায়। বাংলাদেশে চীন থেকে আসা সবাইকে পরীক্ষা করে দেশে প্রবেশ করানো হচ্ছে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত কাউকেই পাওয়া যায়নি। তাই আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নাই। আল্লাহ আমাদের সবাইকে যেন রক্ষা করেন। আমীন।
    Total Reply(0) Reply
  • Lalmonir Pola Lalmonir Pola ১ মার্চ, ২০২০, ৭:০০ এএম says : 0
    বাংলাদেশে এখনো,করোনা ভাইরাস আসেনি,
    Total Reply(0) Reply
  • সাদ্দাম হোসাইন আজানুর মোল্লা ১ মার্চ, ২০২০, ৭:০০ এএম says : 0
    আল্লাহ আমাদের সবাইকে রক্ষা করুন
    Total Reply(0) Reply
  • Md Nur Islam ১ মার্চ, ২০২০, ৭:০১ এএম says : 0
    মহান আল্লাহ তায়ালা নিচ্ছয় আমাদের রক্ষা করবেন আমিন
    Total Reply(0) Reply
  • Ayub Bin Noor ১ মার্চ, ২০২০, ৭:০১ এএম says : 0
    মহানবী (সা.) বলেন, ‘কোথাও মহামারি দেখা দিলে এবং সেখানে তোমরা অবস্থানরত থাকলে সে জায়গা থেকে চলে এসো না। অন্যদিকে কোনো এলাকায় এটা দেখা দিলে এবং সেখানে তোমরা অবস্থান না করলে সে জায়গায় যেয়ো না।’ (সুনানে তিরমিজি, হাদিস: ১০৬৫)
    Total Reply(0) Reply
  • সোনিয়া শারমিন স্মৃতি ১ মার্চ, ২০২০, ৭:০১ এএম says : 0
    আল্লাহ আমাদের সবাইকে রক্ষা করবেন। কারন গজব হোক আর না হোক, ভাইরাসটা অবশ্যই সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টি। কারন তিনি ছাড়া আর কেউ কোন প্রাণ সৃষ্টি করতে পারেন না। তিনি জগতের ভাল মন্দ সকল কিছুর সৃষ্টিকর্তা। তিনি অবশ্যই যা করেন, সেটার পিছনে কোন কারণ থাকে। আমাদের সবারই উচিত নিজ নিজ জায়গা থেকে নিজ নিজ বিশ্বাস থেকে সৃষ্টকর্তার কাছে ক্ষমা ভিক্ষা চাওয়া। তিনি অবশ্যই ক্ষমাশীল। আর মহামারী হলে সে শহরে প্রবেশ এবং সে শহর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ আমাদের নবী মুহাম্মদ (সঃ) দিয়ে গেছেন। তাই আমাদেরও উচিত যত দেশের বাইরে না যাওয়া, যারা দেশের বাইরে থাকেন, তাদেরও উচিত ঐ দেশ থেকে আপাতত বের না হওয়া। শুদ্ধ নিজের জন্য নয়, আপনার থেকে ভাইরাস এমন কারও কাছে যেতে পারে যার উপর নির্ভর করে একটা পরিবার বেঁচে আছে। আপনার জন্য হয়ত একটা পরিবার বিপদে পরতে পারে। নিজের জন্য এবং সবার জন্য সাবধান থাকা আমাদের সবারই কর্তব্য।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

২১ জানুয়ারি, ২০২১
২১ জানুয়ারি, ২০২১

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ