Inqilab Logo

ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ মে ২০২০, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৫ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

মাটির গর্তে পুরো শরীর সমাহিত রেখে জমির উপযুক্ত মূল্যের দাবিতে বিক্ষোভ

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ মার্চ, ২০২০, ৫:৩০ পিএম

ভারতের রাজস্থানের নিন্দার গ্রামের ২১ জন কৃষক মাটির গর্তে নিজেদের পুরো শরীর পুতে রেখে মাটির ওপরে কেবল মাথাটি জাগিয়ে রেখেছেন। সঙ্গে আছেন আরো পাঁচ নারী। পেশায় তারা কৃষক। এই ব্যক্তিরা অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে এমনটা করছেন। তারা এই আন্দোলনের নাম দিয়েছেন ‘জমিন সমাধি সত্যাগ্রহ’।
জানা যায় ভারতের রাজস্থানের নিন্দর গ্রামের কৃষকদের জমি কেড়ে নিয়েছে জয়পুর ডেভেলপমেন্ট অথরিটি। একটি গৃহনির্মাণ প্রকল্পের জন্য তাদের চাষের জমি কেড়ে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু তার বদলে দিচ্ছে না উপযুক্ত মূল্য। আর তাই উপায় না পেয়ে এমন অভিনব আন্দোলনে নেমেছেন তারা।
প্রতিবাদী এক কৃষকের দাবি, তাদের চাষের জমি দখল করে কোনো সরকারি প্রজেক্ট চলবে না। আর জমি যদি নিতেই হয় তবে সংশোধিত জমি আইন মেনে নিতে হবে এবং উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিতে হবে সরকারকে।
এর আগে জানুয়ারি মাসে তারা এই জমি সমাধি সত্যাগ্রহ করেছিলেন জমি দখলের প্রতিবাদে। সে সময় ৫০ দিনের মধ্যে তাদের দাবি খতিয়ে দেখার সরকারি আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত করেন তারা। নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও সরকার থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে আবারও একই পদ্ধতিতে আন্দোলন শুরু করেছেন তারা।
নিন্দার বাঁচাও যুব কিষাণ সমিতির নেতা নগেন্দ্র সিং দেবনাথ বলেন, ‘রবিবার থেকে ২১ জন কৃষক প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন। সরকার যদি দাবি না মানে তবে ৫১ জন এভাবেই সমাহিত হবেন। কৃষক সুরক্ষার অধিকার যতক্ষণ না সরকার নিশ্চিত করছে, ততক্ষণ এই আন্দোলন চলবে।’
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের অক্টোবরে জয়পুর ডেভেলপমেন্ট অথরিটির ১ হাজার ৩০০ বিঘা জমি অধিগ্রহণের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছিলেন কৃষকরা। তাদের মধ্যে কেউ কেউ আমরণ অনশনও করছিলেন।
২০১১ সালে জয়পুর ডেভেলপমেন্ট অথরিটির আওতায় এই গৃহনির্মাণ প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছিল সরকার। প্রকল্পের আওতায় ১০ হাজার বাড়ি তৈরির কথা ছিল। জমি সমস্যার সমাধান না হওয়ায় সেটি এখনো ঝুলে রয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ