Inqilab Logo

ঢাকা রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

বিসিবির পীড়াপীড়িতেও যাচ্ছেন না মুশফিক

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৪ মার্চ, ২০২০, ১২:০১ এএম

পাকিস্তান যেতে চান না, বহু আগেই পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। পাকিস্তান সফরে কাউকে জোরাজুরি করা হবে না এমন অবস্থানও একাধিকবার জানিয়ে আসছে বিসিবি। তবু তৃতীয় দফায় পাকিস্তান সফরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আহবান জানিয়েছিল বোর্ড। তাতে রাজী না হয়ে নিজের আগের অবস্থানে অনড় থেকেছেন মুশফিক।

গতকাল প্রথম ওয়ানডের দিন সিলেটে টিম ম্যানেজমেন্টকে মুশফিকের পাকিস্তান সফরে রাজী করাতে চেষ্টা চালাতে বলেন বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান। বোর্ড প্রধানের নির্দেশনা পেয়ে মুশফিককে সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনার আহবান করা হয়। কিন্তু তাতে রাজী হননি মুশফিক।

এ ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, কোনো ধরনের চাপ বা হুমকি দেওয়া হয়নি, ‘আমরা মুশফিককে ডেকেছিলাম, ওর সিদ্ধান্ত জানার জন্য। ও সরাসরি বলে দিয়েছে, যাবে না। এখানেই এটা শেষ হয়ে গিয়েছে। যেসব নিউজের কথা বলছেন (বোর্ড প্রধানের চাপ), আমরাও দেখেছি। এটা ঠিক না। আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে ওকে জিজ্ঞেস করেছিলাম যে যাবে কিনা। টেস্ট ম্যাচের পরে কিছু নিউজ দেখেছিলাম। যেখানে এক পত্রিকায় ছিলো যে ও যাবে, আরেকটায় দেখলাম যাবে না। এজন্য ওকে আনুষ্ঠানিকভাবে জিজ্ঞেস করলাম যে যাবে কিনা, সিদ্ধান্ত বদল করে কিনা। টিম ম্যানেজমেন্ট ও আমরা বসেছিলাম, হেড কোচও ছিলো। মুশফিক সরাসরি বলেছে, সে যাবে না।’

আগামী এপ্রিল মাসে পাকিস্তান সফরে টেস্ট ম্যাচের পাশাপাশি একটি ওয়ানডেও খেলবে বাংলাদেশ। সেই ওয়ানডের কথা মাথায় রেখেই কিছু সিদ্ধান্ত ভেবে রেখেছে টিম ম্যানেজমেন্ট। এক ম্যাচ আগেই জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে সিরিজ জিতে যাওয়ায় অনুমিতভাবেই শেষ ম্যাচে আসবে বেশ কিছু বদল। পাকিস্তান সফরে যারা যাবেন, তাদের নিয়েই খেলা হবে শেষ ম্যাচ বলেও জানালেন মিনহাজুল। সেক্ষেত্রে ওই ম্যাচে বিশ্রাম দেওয়া হতে পারে মুশফিককে, ‘টিম ম্যানেজম্যান্টের সঙ্গে বসে আমরা পরিকল্পনা করেছি যে, যেহেতু পাকিস্তানে একটা ওয়ানডে আছে। তাই জিম্বাবুয়ের সঙ্গে সিরিজটা যদি ২-০ হয়ে যায়, তাহলে পাকিস্তানে যে দলটা খেলবে, শেষ ম্যাচের জন্য সেই এগারো জনকে খেলানোর চিন্তাভাবনা করছি।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচটির যদিও ঢের বাকি এখনও। ৬ মার্চ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ ওয়ানডে খেলবে বাংলাদেশ। এরপর আছে দুই ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। বাংলাদেশ দল পাকিস্তানে খেলতে যাবে এপ্রিল মাসে। ৩ এপ্রিল করাচিতে একমাত্র ওয়ানডে খেলার পর ৫ এপ্রিল থেকে একই ভেন্যুতে টেস্ট ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিসিবি


আরও
আরও পড়ুন