Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

চট্টগ্রাম অর্থনীতির লাইফ লাইন : আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা উদ্বোধনকালে বাণিজ্যমন্ত্রী

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৬ মার্চ, ২০২০, ১২:০২ এএম

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এমপি চট্টগ্রামকে অর্থনীতির লাইফ লাইন ও আন্তর্জাতিক গেটওয়ে উল্লেখ করে বলেছেন, উত্তর-পূর্ব ভারত চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারের জন্য তাকিয়ে আছে। নেপাল, ভুটানও চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহার করতে চায়। যত বিদেশি আসেন তারা ব্যবসার কথা বলেন। চট্টগ্রামের একটি বিদেশি প্রতিনিধি দল ঘুরে গেছেন। চট্টগ্রামকে বিদেশিদের জন্য আকর্ষণীয় করতে হবে। বিশ্বমানের আধুনিক মহানগরে পরিণত করতে হবে।
গতকাল (বৃহস্পতিবার) নগরীর পোলোগ্রাউন্ডে চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের মাসব্যাপী ২৮তম আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। তিনি চট্টগ্রামে আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার নির্মাণের যৌক্তিকতা তুলে ধরে এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলাপ করবেন বলে জানান।
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, পাকিস্তান আমলে ব্যবসার ধারে কাছে ছিলো না বাঙালিরা। বাংলাদেশ হয়েছে বলে আমরা ব্যবসায়ী হয়েছি। বিন্দু থেকে বাংলাদেশ নামের বৃত্ত সৃষ্টি করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। জীবনটা দিয়ে দেশটা দিয়ে গেছেন বঙ্গবন্ধু। সোনার বাংলা না করতে এবং এ দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, জয় বাংলা কিভাবে বাংলাদেশ জিন্দাবাদ হয়ে গেলো, বাংলাদেশ বেতার রেডিও বাংলাদেশ হয়ে গেলো।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী এমপি বলেন, এবারের সিআইটিএফ ঐতিহাসিক। মুজিব বর্ষে এ মেলা হচ্ছে। যিনি না হলে বাণিজ্য দূরে থাক দেশের অস্তিত্বই থাকতো না। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে এগিয়ে দেয়াই হোক মুজিব বর্ষের ফোকাস। তাহলে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ হবে। তিনি বলেন, বৃত্তিমূলক ও কারিগরি শিক্ষার পাশাপাশি দক্ষ মানব সম্পদ গড়ে তুলতে হবে। ২০২১ সাল থেকে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে মেশিন টুলস সম্পর্কে জানবে শিক্ষার্থীরা।
চিটাগাং চেম্বারের সাবেক সভাপতি এম এ লতিফ এমপি বলেন, চট্টগ্রামে টানেল, বে-টার্মিনাল, বঙ্গবন্ধু শিল্পনগরসহ বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। অথচ দেশের বাণিজ্যনগরী হিসেবে আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার নেই। তিনি এ ব্যাপারে বাণিজ্যমন্ত্রীর জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এম এ লতিফ বলেন, একসময় চাক্তাই, খাতুনগঞ্জ ব্যবসার হাব ছিল, এখন নেই। জনাকয়েক মানুষের কাছে ভোগ্যপণ্য মজুদ থাকে। এ কারণে ব্যবসায়ীদের দুর্নাম হচ্ছে।
এফবিসিসিআই’র সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, ২৪ বছরে বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতা দিয়েছেন। সাড়ে তিন বছরের শাসনামলে জিডিপি গ্রোথ ছিল ৯.২ শতাংশ। তার স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাজ করে যাচ্ছেন। ব্যবসায়ীদের জন্য পরিবেশ সৃষ্টি করেছেন। আসন্ন রমজান মাসে মানুষের যাতে ভোগান্তি না হয় সেজন্য ব্যবসায়ীদের প্রতি আহŸান জানান। তিনি অর্থমন্ত্রীকে ব্যবসাবান্ধব উল্লেখ করে আগামী মাস থেকে ব্যাংকের সুদহার ৯ শতাংশ কার্যকর করার উদ্যোগ নেয়ায় সাধুবাদ জানান।
সভাপতির বক্তব্যে চিটাগাং চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, হাঁটি হাঁটি পা পা করে বাণিজ্য মেলা বৃহত্তর পরিসরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ মেলার উদ্দেশ্য দেশীয় পণ্য দেশ ও আন্তর্জাতিকভাবে পরিচিত করা। এটি প্রাইভেট সেক্টরে বড় মেলা। তিনি বলেন, বে-টার্মিনাল হলে বন্দরের সক্ষমতা বাড়বে। ব্যবসায়ীরা অর্থনীতির প্রাণশক্তি। তারা সুন্দর পরিবেশ চায়। ব্যবসায়ীরা টিকে থাকলে দেশ টিকে থাকবে।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মেলা কমিটির চেয়ারম্যান সৈয়দ জামাল আহমেদ। পরে অতিথিবৃন্দ ফিতা কেটে মাসব্যাপী মেলার উদ্বোধন করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বাণিজ্যমন্ত্রী


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ