Inqilab Logo

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১১ সফর ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

বাগে আনা যাচ্ছে না বিদ্রোহীদের

চসিকে আ.লীগের কাউন্সিলর প্রার্থী

চট্টগ্রাম ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৬ মার্চ, ২০২০, ১২:০২ এএম

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে ৫৫টি কাউন্সিলর পদে বিদ্রোহীদের বাগে আনতে পারছে না ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। দল সমর্থিত প্রার্থীদের সমর্থনে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিতে গতকাল বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত সভা শেষ হলো কোন সিদ্ধান্ত ছাড়াই।
সিনিয়র নেতারা দলের সিদ্ধান্ত মেনে বিদ্রোহীদের সরে যেতে বললেও তাতে কোন সাড়া মেলেনি। উল্টো বিদ্রোহী প্রার্থীরা ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে সব প্রার্থীতা উন্মুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন। এদিকে পরিস্থিতি সামাল দিতে আগামী রোববার চট্টগ্রাম আসছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের একটি টিম। ওইদিন মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন হওয়ায় একক প্রার্থী নির্ধারণে শেষ পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে যাবেন আওয়ামী লীগের নেতারা।
গতকাল নগরীর থিয়েটার ইনস্টিটিউট হলে সমঝোতা সভা চলাকালে সভার ভেতরে-বাইরে বিদ্রোহী প্রার্থীদের মিছিল -স্লোগান দিতে দেখা গেছে। সভা শেষে বিদ্রোহী প্রার্থীদের অনেকে মঞ্চে নেতাদের সামনে গিয়ে ক্ষোভ অসন্তোষ প্রকাশ করেন। সভাস্থলের বাইরে দল সমর্থিত প্রার্থীর বিরুদ্ধে -স্লোগান দেন বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকেরা। ৪১টি সাধারণ ও সংরক্ষিত ১৪টি মহিলা কাউন্সিলরসহ মোট ৫৫টি কাউন্সিলর পদে দল মনোনীত ও বিদ্রোহীদের নিয়ে ওই সভা আহ্বান করেন চসিক নির্বাচনের সমন্বয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। সভায় দেড় শতাধিক কাউন্সিলর প্রার্থী যোগ দেন। রুদ্ধদ্বার সভা শেষে একে একে বেরিয়ে আসা সিনিয়র নেতাদের বেশিরভাগই সভার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।
ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে মনোনয়ন বোর্ড যে মনোনয়ন দিয়েছেন সেটাকেই আমরা ফলো করবো। সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আওয়ামী লীগের যারা প্রার্থী হতে ইচ্ছা প্রকাশ করে মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন তাদের সাথে আমরা বসেছি, উনাদের বোঝানোর চেষ্টা করেছি। তাদের বলেছি- দল মানে নীতি আদর্শ। তাই মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্তকে প্রাধান্য দেয়ার আহ্বান জানিয়েছি। নগর কমিটির সহ-সভাপতি ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল বলেন, বলেছি যারা (বিদ্রোহী) আছেন তাদের প্রত্যাহার করে নিতে। আশাকরি তারা আহ্বানে সাড়া দেবেন।
তবে সভায় উপস্থিত দল মনোনীত একাধিক কাউন্সিলর প্রার্থী জানান, সভার শেষ দিকে সিনিয়র নেতারা বলেছেন যারা মনোনয়ন চেয়েও পাননি তারা যেন দলের সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেন। পাশাপাশি আগামী ৮ মার্চ দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এবং বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন আসবেন। সেদিনও কাউন্সিলর প্রার্থীদের নিয়ে আলোচনা হবে বলে আশ্বাস দেয়া হয় সভায়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: কাউন্সিলর


আরও
আরও পড়ুন