Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

নোয়াখালী বিভিন্ন স্থানে নরেন্দ্র মোদি বিরোধী বিক্ষোভ ও সমাবেশ

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৬ মার্চ, ২০২০, ৭:০৫ পিএম

ভারতের রাজধানী দিল্লিতে মুসলিমদের গণহত্যা, ঘর বাড়ী উচ্ছেদ, মসজিদ ভাঙচুর, বসত ঘরে অগ্নিসংযোগ এবং নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আসার প্রতিবাদে নোয়াখালীর বিভিন্ন উপজেলায় বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে তাওহিদী জনতা ও হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। এসময় তারা মোদি বিরোধী স্লোগান দেন।
শুক্রবার জুমার নামাজের পর জেলার চৌমুহনী, চাটখিল, কোম্পানীগঞ্জ ও হাতিয়ায় বিক্ষোভ মিছিল করে।

জুম্মার নামাজের পর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে জননেতা নুরুল হক মিলনায়তনের সামনে থেকে শুরু সর্বস্তরের তৌহিদী জনতার ব্যানারে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পূণরায় ওই মিলনায়তনে গিয়ে সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়।

এসময় মাওলানা নিজাম উদ্দিনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন। পরে ভারতের মুসলিমসহ সারা বিশ্বের মুসলিমদের জন্য বিশেষ মুনাজাত করা হয়।

একই সময় কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট বঙ্গবন্ধু চত্বরে বিক্ষোভ মিছিল শেসে সমাবেশ করে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। সমাবেশে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি মাওলানা মোস্তফা সুফির সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আলী আহম্মদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদ মাদানী প্রমুখ।

জুম্মার নামাজের পর হাতিয়া উপজেলা ওছখালি এমরাত আলী জামে মসজিদের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন মুসল্লিরা। পরে মিছিলটি ওছখালি প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বিক্ষোভ সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। অপরদিকে গত বুধবার সন্ধ্যায় হাতিয়ার চৌমুহনী বাজারে মোদি বিরোধী বিক্ষোভ মিছিলকালে পুলিশের সাথে মুসল্লিদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছিল। সংঘর্ষে চার পুলিশসহ অন্তত ১২জন আহত হয়, ভাঙচুর করা হয়ে পুলিশের ব্যবহৃত ভাড়া গাড়ী। ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছে।

বক্তারা বলেন, মুসলিমদের রক্তখেকো কসাইখ্যাত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে দেয়া হবেনা। বিষয়টি সরকারকে বিবেচনার জন্য আহবান জানানো হয়। অন্যথায় কঠোর হুশিয়ারী উচ্চারন করেন বক্তারা।

নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আগমন প্রত্যাখ্যান ও তা প্রতিহত করতে দেশবাসীর প্রতি আহŸান জানিয়ে বক্তারা বলেন, দিল্লি, শাহীনবাগে গণআন্দোলন ঠেকাতে মোদি সরকার নির্বিচারে মুসলিম গণহত্যা, অগ্নিসংযোগও মুসলিম জনগোষ্ঠীকে উচ্ছেদের নীল নকশা করছে। স¤প্রতি দিল্লিতে দাঙ্গায় প্রায় অর্ধশতাধিক মুসলিম নিহত হয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিক্ষোভ মিছিল


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ