Inqilab Logo

ঢাকা সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে পঞ্চগড়ে তিন দিনব্যাপী জেলা ইজতেমা শেষ

পঞ্চগড় জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৬ মার্চ, ২০২০, ৭:০৯ পিএম

দেশ, জাতি ও মানবতার কল্যাণে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে পঞ্চগড়ে তাবলীগ জামাতের তিন দিনব্যাপী জেলা ইজতেমা শুক্রবার শেষ হয়েছে। পঞ্চগড় জেলার বোদা উপজেলার ময়দানদিঘী ইউনিয়নের মনিরমজোত জেমজুট সংলগ্ন মাঠে গত বুধবার এই ইজতেমা শুরু হয়। জুম্মার নামাজ শেষে দিল্লীর নিযামউদ্দিন মাকার্জের মুরুব্বী হাফেজ মাওলানা মাসুদ হাসান আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন।

বৈরি আবহাওয়া সত্তে¡ও বৃষ্টিতে ভিজে হাজারো ধর্মপ্রাণ মুসল্লী ও তাবলীগের সাথীরা ইজতেমা মাঠে জড়ো হন। দুপুর দেড়টার দিকে জুমআর নামাজ শুরু হয়। বাংলাদেশের মুরুব্বী মুফতি সামছুদ্দীন জুমআর নামাজে ইমামতি করেন। নামাজ শেষে মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা নারীরা নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় আলাদাভাবে মোনাজাতে অংশ নেন। মোনাজাতে বিশ^ মুসলিম জাহানের শান্তি কামনা করে দোয়া করা হয়।

আয়োজক সূত্রে জানা যায়, শান্তিপূর্ণভাবে ইজতেমা অনুষ্ঠানের জন্য কয়েক’শ স্বেচ্ছাসেবক ছাড়াও পুলিশ, আনসার ও অন্যান্য বাহিনীর লোকজন কাজ করেছেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়। মোনাজাতে দিল্লীর নিযামউদ্দিন মাকার্জের মুরুব্বী মাওলানা সফি আহম্মেদ, বাংলাদেশের মুরুব্বী মুফতি নুরুল্লাহ, সাবেক ইউএনও রেজাউল করিম, মাওলানা মুনির, মাওলনা মো. লুৎফর রহমান, প্রভাষক মুক্তার আলী, মোস্তাফিজুর রহমানসহ জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা, পুলিশ প্রশাসনের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ শরিক হন। ইজতেমা মাঠ থেকে ১৬টি তিন চিল্লা জামাত বের হন বলে আয়োজকরা জানিয়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইজতেমা

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ