Inqilab Logo

ঢাকা, সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৮ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

লক্ষ্মীপুরে বনিক সমিতির কার্যালয়ে হামলার ঘটনায় আ.লীগ নেতাসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা

লক্ষ্মীপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০২০, ১২:১৬ পিএম
লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার মান্দারী বাজার বণিক সমিতি কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুর  ঘটনায় শুক্রবার (৬ মার্চ) রাতে আওয়ামী লীগ নেতা সোহরাব হোসেন রুবেল পাটওয়ারী ও তার অনুসারী চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আবু তালেবসহ প্রায় ২৯ জনকে আসামি করে  সংগঠনটির সভাপতি সামছুদ্দিন সাজু বাদী হয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।    বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে মান্দারী বাজার বণিক সমিতি কার্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনাটি ঘটে।
 
মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ১৪২৭ বাংলা সনের জন্য মান্দারী বাজার ইজারা পেতে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে দরপত্র সংগ্রহ করেন মান্দারী বাজার বণিক সমিতির সভাপতি সামছুদ্দিন সাজু। তিনি ব্যবসায়ী সংগঠনটির পক্ষ থেকে দরপত্র সংগ্রহ করেছিলেন।
 
গত বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) বেলা ১১টার দিকে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে একদল সন্ত্রাসী মান্দারী বাজার বণিক সমিতি কার্যালয় ঘেরাও করে। সন্ত্রাসীদের নেতৃত্ব দেন স্থানীয়ভাবে কথিত আওয়ামী লীগ নেতা সোহরাব হোসেন রুবেল পাটওয়ারী ও চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আবু তালেব। এসময় তারা বাজার ইজারা ইস্যুতে বণিক সমিতির কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিতে পারলে বাজার ইজারা বণিক সমিতি নয়, তারা নেবে বলে জানিয়ে দেয়।
 
তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবসায়ী সংগঠনটির নেতারা প্রস্তাবটি প্রত্যাখ্যান করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রুবেল ও তালেবসহ তাদের বাহিনীর সন্ত্রাসীরা মান্দারী বাজার বণিক সমিতি কার্যালয়ে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। এতে বাধা দিতে গিয়ে ব্যবসায়ী সংগঠনটির সভাপতি সামছুদ্দিন সাজু ও সাধারণ সম্পাদক আলতাফ উদ্দিন মাহমুদসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী আহত হন। পরে সংগঠনটির সংগৃহীত বাজার ইজারা ফর্ম ও নগদ ২ লাখ ২৩ হাজার টাকা লুট করে পালিয়ে যায় হামলাকারী সন্ত্রাসীরা।
 
মান্দারী বাজার বণিক সমিতি কার্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। তারা অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। এর আগে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসীম উদ্দীন।
 
মান্দারী বাজার বণিক সমিতির সভাপতি সামছুদ্দিন সাজু বলেন, রুবেল ও তালেব পরিকল্পিতভাবে তাদের বাহিনীর সন্ত্রাসীদের সঙ্গে নিয়ে বণিক সমিতি কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে কম্পিউটারসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাঙচুর করে। এসময় তারা বণিক সমিতির সংগৃহীত বাজার ইজারার দরপত্র ফর্ম ও নগদ ২ লাখ ২৩ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। আমরা এই সন্ত্রাসীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করছি।
 
অভিযোগের বিষয়ে জানতে মোবাইলে একাধিকবার চেষ্টা করেও স্থানীয় ‘আওয়ামী লীগ নেতা’ সোহরাব হোসেন রুবেল পাটওয়ারীর সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি।
 
চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আবু তালেব জানান, মান্দারী বাজার ইজারা পেতে আমরা ১৮টি ফরম সংগ্রহ করেছি। মান্দারী বাজার বণিক সমিতি একটি ফরম সংগ্রহ করে। সকালে ওই ফরমের বিষয়ে কথা বলতে গেলে বণিক সমিতি ফরমের বিনিময়ে আমাদের কাছে ২০ লাখ টাকা দাবি করে। এনিয়ে তাদের সাথে একটু বাকবিতন্ডা হয়েছে। তবে কোন হামলার ঘটনা ঘটেনি। উত্তেজিত লোকজন কয়েকটি চেয়ার ভাঙচুর করেছে। টাকা এবং ইজারার ফর্ম ছিনিয়ে নেওয়ার বিষয়টি সাজানো বলে দাবি করেছেন তিনি।
 
চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসীম উদ্দীন বলেন, মান্দারী বাজার বণিক সমিতি কার্যালয়ে হামলা, ভাঙচুর, বাজার ইজারার ফর্ম ও নগদ টাকা লুটের অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলার আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান চলমান রয়েছে।


 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আ.লীগ নেতা
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ