Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৫ আগস্ট ২০২০, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

অস্ট্রেলিয়াকে হোয়াইটওয়াশ করল দক্ষিণ আফ্রিকা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ মার্চ, ২০২০, ৯:৩৯ পিএম | আপডেট : ১২:০৬ এএম, ৮ মার্চ, ২০২০

ওয়ানডে ক্রিকেটে দ্বিতীয়বারের মতো অস্ট্রেলিয়াকে হোয়াইটওয়াশ করার সুযোগ ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে। এই সুযোগটি কাজে লাগালও প্রোটিয়ারা। প্রথম দুই ওয়ানডে জিতে ইতোমধ্যে সিরিজ জয় নিশ্চিত করে রেখেছে স্বাগতিকরা। আজ শনিবার (৭ মার্চ) তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে অজিদের ৬ উইকেটে হারায় স্বাগতিকরা। ২০১৬ সালে দেশের মাটিতে প্রথম ও শেষবার অস্ট্রেলিয়াকে হোয়াইটওয়াশ করেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা।

আজ (শনিবার) পচেফস্ট্রমের সেনওয়েজ পার্কে টস জিতে দক্ষিণ আফ্রিকা কেন ফিল্ডিং বেছে নেন তা দেখিয়ে দেন তাদের বোলাররা। শুরুতেই অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যানদের নাভিশ্বাস তুলে দেন স্বাগতিক বোলাররা। এরপর মিডল অর্ডারে মার্নাস লাবুশানের দুর্দান্ত সেঞ্চুরির ওপর ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৫৪ রান সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া। লাবুশানে ছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন ডি আর্কি শট।

এই ইনিংসের আগে লাবুশানের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস ছিল ৫৪। হাফ সেঞ্চুরি একটিই। এমনকি প্রোটিয়াদের বিপক্ষে আগের ম্যাচেই ডাক মেরেছিলেন তিনি। যদিও আগের তিন ইনিংসে রান করেন ৪৬, ৫৪ এবং ৪১। অভিষেক ম্যাচে ব্যাট করতে হয়নি তাকে।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার আউট হন মাত্র ৪ রান করে। অ্যারোন ফিঞ্চ করেন ২২ রান। এছাড়া স্টিভেন স্মিথ করেন ২০ রান। লাবুশানে এবং ডি আর্কি শট ছাড়া ৩২ রান করেন শন মার্শ। অ্যালেক্স ক্যারে আউট হন কোনো রান না করেই। জিয়ে রিচার্ডসন করেন অপরাজিত ২৪ রান।

রান তাড়ায় ৪৭ রানের উদ্বোধনী জুটিতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ভালো সূচনা এনে দেন কুইন্টন ডি কক ও ইয়ানেমান মালান। নিজের টানা দুই ওভারে দুই ওপেনারকে ফেরান একাদশে ফেরা জশ হেইজেলউড।

আলগা শটে বোল্ড হওয়া ডি কক করেন ২৬ রান। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান মালান এবার ২৩ রান করে হন কট বিহাইন্ড।

তৃতীয় উইকেটে ৯৬ রানের জুটিতে স্বাগতিকদের জয়ের পথে এগিয়ে নেন স্মাটস ও কাইল ভেরেইন। ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি করার পরই অ্যাডাম জ্যাম্পাকে ছক্কায় ওড়াতে গিয়ে ফেরেন ভেরেইন। ৫০ বলে ৩টি করে চার-ছক্কায় ডানহাতি ব্যাটসম্যান করেন ৫০ রান।
স্মাটস ৬২ বলে ফিফটি করার পর টেনে নিয়েছেন ইনিংস। সেঞ্চুরির হাতছানিও ছিল। কিন্তু কেন রিচার্ডসনকে ছক্কায় ওড়াতে গিয়ে ক্যাচ দেন ৮৪ রানে। ৯৮ বলে ১২ চারে সাজান ইনিংস। তার বিদায়ে ভাঙে হাইনরিখ ক্লাসেনের সঙ্গে ৭৯ রানের জুটি।

ডেভিড মিলারকে নিয়ে বাকি কাজটা সারেন ক্লাসেন। মার্শকে টানা তিন বলে দুই চার ও এক ছক্কায় ম্যাচের ইতি টানা ক্লাসেন অপরাজিত থাকেন ৬৮ রানে। ইনিংসে ১০টি চারের সঙ্গে ছক্কা একটি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

অস্ট্রেলিয়া : ৫০ ওভারে ২৫৪/৭ (ওয়ার্নার ৪, ফিঞ্চ ২২, স্মিথ ২০, লাবুশেন ১০৮, শর্ট ৩৬, মার্শ ৩২, কেয়ারি ০, জাই রিচার্ডসন ২৪*, কেন রিচার্ডসন ০*; নরকিয়া ৭-০-৩৫-২, সিপামলা ৮-০-৪০-০, ডুপাভিলন ৬-০-২১-১, ফেলুকওয়ায়ো ৭-০-৪৯-১, মহারাজ ১০-০-৪৫-০, ক্লাসেন ৩-০-১৯-০, স্মাটস ৯-১-৪২-২)।

দক্ষিণ আফ্রিকা : ৪৫.৩ ওভারে ২৫৮/৪ (মালান ২৩, ডি কক ২৬, স্মাটস ৮৪ , ভেরেইন ৫০, ক্লাসেন ৬৮*, মিলার ৩*; জাই রিচার্ডসন ১০-১-৫৮-০, হেইজেলউড ১০-১-৩৭-১, কেন রিচার্ডসন ৯-০-৬৩-১, জ্যাম্পা ১০-০-৪৫-১, মার্শ ১.৩-০-২১-০, ফিঞ্চ ২-০-১১-০, শর্ট ৩-০-২০-০)।

ফল : দক্ষিণ আফ্রিকা ৬ উইকেটে জয়ী।

সিরিজ : তিন ম্যাচের সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জয়ী দক্ষিণ আফ্রিকা।

ম্যাচসেরা : জন-জন স্মাটস।

সিরিজসেরা : হাইনরিখ ক্লাসেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন