Inqilab Logo

ঢাকা, বুধবার, ০৫ আগস্ট ২০২০, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

সু চির সংবিধান সংশোধন প্রস্তাব রুখে দিল সেনাবাহিনী

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১১ মার্চ, ২০২০, ১২:৩২ পিএম

মিয়ানমারের পার্লামেন্টে সেনাবাহিনীর বিশেষ ক্ষমতা হ্রাসের লক্ষ্যে স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চির সংবিধান সংশোধনের একটি প্রস্তাব রুখে দিয়েছে দেশটির প্রভাবশালী সেনাবাহিনী। গতকাল মঙ্গলবার পার্লামেন্টে এক ভোটাভুটিতে বাতিল হয়ে যায় প্রস্তাবটি। ৬৩৩ এমপির মধ্যে ৪০৪ জনই এর বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছেন।

ফলে সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে পার্লামেন্টে সেনা প্রভাব কমানোর সু চির স্বপ্ন গোড়াতেই ভেঙে গেল। সেই সঙ্গে আসন্ন নির্বাচনকে সামনে সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে তার দ্বদ্ব আরও প্রকট হয়ে উঠল। খবর এএফপির।

মিয়ানমারে ২০১৫ সালের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আংশিক গণতান্ত্রিক শাসন ফিরে আসার পর চলতি বছরে শেষ দিকেই দ্বিতীয়বারের নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। নির্বাচনকে সামনে রেখে পার্লামেন্টে সেনাবাহিনীর একাধিপত্য খর্ব করার লক্ষ্যে সংবিধান সংশোধনের জোর চেষ্টা শুরু করে সু চির দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি)। এ নিয়ে গত প্রায় এক বছর বেসামরিক সরকার ও সামরিক নেতাদের মধ্যে চরম বিতর্ক চলছিল। শুরু থেকেই সু চির প্রস্তাব মানতে নারাজ সেনা কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে গত রোববারই (৮ মার্চ) দেয়া এক হুশিয়ারি বার্তায় সেনাবাহিনী বলে, এ ধরনের পরিস্থিতি কখনই কাম্য নয়। এই পরিস্থিতি মিয়ানমারের ভঙুর গণতন্ত্রের জন্য হুমকিস্বরূপ। শেষ পর্যন্ত পার্লামেন্টের ভোটাভুটিতে সু চির সেই চেষ্টা ভন্ডুল হয়ে গেল।

মিয়ানমারে মূলত সেনা শাসন জারি রয়েছে। ২০০৮ সালের আইন অনুযায়ী, সংবিধান সংশোধনের যেকোনো প্রস্তাব পার্লামেন্টে পাস হতে হলে ৭৫ শতাংশের বেশি সমর্থন প্রয়োজন।

দেশটির পার্লামেন্টের এক-চতুর্থাংশ আসন সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণে। এছাড়া জাতীয় প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা পরিষদের ১১টি আসনের মধ্যে ছয়টি আসনেও রয়েছেন সেনাবাহিনী মনোনীত ব্যক্তিরা। গণতান্ত্রিক সরকার বাতিলের ক্ষমতা রয়েছে তাদের। এছাড়া ক্ষুণœ করে রাখা হয়েছে সু চির প্রেসিডেন্ট হওয়ার অধিকার।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মিয়ানমার


আরও
আরও পড়ুন