Inqilab Logo

শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধে মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন জারি

প্রকাশের সময় : ১২ জুলাই, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করল সরকার। গতকাল সোমবার তথ্য মন্ত্রণালয় পিস টিভির ডাউন লিংকের অনুমতি বাতিল করেছে বলে এক প্রজ্ঞাপনে জানিয়েছে। এই টিভির উদ্যোক্তা ভারতের ইসলামী বক্তা জাকির নায়েক। ভারতের বিতর্কিত ইসলামী বক্তা জাকির নায়েকের পিস টিভির ডাউন লিংকের অনুমতি বাংলাদেশ সরকার বাতিল করায় সারাদেশে ওই টেলিভিশনের সম্প্রচার বন্ধ করে দিচ্ছেন ক্যাবল অপারেটররা।
গত রোববার আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। গতকালই এক অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছিলেন, সোমবার এ বিষয়ে প্রশাসনিক পদক্ষেপ নেয়া হবে। এখন প্রজ্ঞাপন জারি করে সেই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হলো।
প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়, মন্ত্রিসভা কমিটির সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে ডাউন লিংকের শর্ত ভঙ্গ করায় বিদেশী ফ্রি-টু-এয়ার টিভি চ্যানেল পিস টিভির ডাউন লিংকের অনুমতি বাতিল করা হলো। সেই সঙ্গে বাংলাদেশের ভেতরে পিস টিভির সব ধরনের সম্প্রচার বন্ধের ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ করা হয় প্রজ্ঞাপনে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, তথ্য অধিদপ্তর, বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) ও ক্যাবল অপারেটরদের সংগঠন কোয়াবকেও পাঠানো হয়েছে এই প্রজ্ঞাপনের অনুলিপি।
জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে ‘জঙ্গিবাদে উৎসাহ জোগানোর’ অভিযোগ ওঠায় গত রোববার আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধের এ সিদ্ধান্ত দেয়।
ক্যাবল অপারেটর্স বাংলাদেশের সাবেক সভাপতি এস এম আনোয়ার পারভেজ গতকাল সোমবার জানান, গত রোববারই দেশের অনেক জায়গায় আনঅফিসিয়ালি পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। আজ (সোমবার) প্রজ্ঞাপন জারির পর আমরা অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ এ বিষয়ে বৈঠক করেছি। বিভাগীয় শহরগুলোতে ইতোমধ্যে সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। আজকের মধ্যেই সারাদেশে সম্প্রচার বন্ধ হয়ে যাবে। বৈঠকের সিদ্ধান্ত আমরা দেশের অন্য ক্যাবল অপারেটরদের জানিয়ে দিচ্ছি।
সুবক্তা হিসেবে পরিচিত ইসলামী বক্তা জাকির নায়েককে ঘিরে বিতর্ক বহু দিনের। জাকির নায়েক পরিচালিত মুম্বাইভিত্তিক ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের একটি প্রতিষ্ঠান হলো এই পিস টিভি।
গত ১ জুলাই গুলশানে বাংলাদেশের ইতিহাসে ভয়াবহতম জঙ্গি হামলার সঙ্গে জড়িতদের মধ্যে অন্তত দুইজন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে জাকির নায়েকের মতো ইসলামী বক্তাদের নিয়মিত অনুসরণ করতেন। তার কথায় প্ররোচিত হয়ে ভারতের কয়েকজন তরুণ আইএসে যোগ দিতে সিরিয়ায় পাড়ি জমিয়েছে বলেও খবর এসেছে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর জাকির নায়েকের বিষয়ে উদ্যোগী হয় ভারত সরকার। মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকার তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে। মুম্বাইয়ে তার অফিস ঘিরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
ভারতের সম্প্রচারমন্ত্রী বেঙ্কাইয়া নাইডু গত শুক্রবার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, আমরা অভিযোগ তদন্ত করছি। কারণ এটা আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা, সেই সঙ্গে সামাজিক সম্প্রীতির জন্যও হুমকি।
এদিকে বাংলাদেশেও পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধের দাবি জোরালো হয়ে উঠতে থাকে। এই প্রেক্ষাপটে সরকারের ভেতরেও নড়াচড়া শুরু হয়। গত রোববার আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।
একই দিনে প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ মিলনায়তনে টেলিভিশনের মালিক ও প্রধান নির্বাহীদের সঙ্গে এক বৈঠকের শুরুতে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, পিসি টিভি বহু ক্ষেত্রে মুসলমান সমাজের কুরআন, সুন্নাহ, হাদিস, বাংলাদেশের সংবিধান, দেশজ সংস্কৃতি, রীতিনীতি, আচার-অনুষ্ঠানের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়।



 

Show all comments
  • kazi ১২ জুলাই, ২০১৬, ২:৫৪ পিএম says : 0
    jara pece Tv bondo korlo ba bonder somorthon korlo ses bicharar din bujba ja vul korasilo.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধে মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন জারি
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ