Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬, ০২ শাবান ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

মীরসরাইয়ে অগ্নিকাণ্ডে ১৪ বসতঘর পুড়ে ছাই

মীরসরাই (চট্টগ্রাম) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ মার্চ, ২০২০, ৬:১০ পিএম

মীরসরাইয়ে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ১৪টি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। শুক্রবার (১৩ মার্চ) দুপুর ১টা সময় উপজেলার ১১ নং মঘাদিয়া ইউনিয়নের মহানন্দাবাদ, মাতাইয়া চৌধুরী বাড়িতে এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে নগদ টাকাসহ প্রায় ৭০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তরা হলেন, মিজানুর রহমান, হক সাহেব, আবু সুফিয়ান, আইয়ুব খাঁন, শেখ ফরিদ, দিদারুল আলম, আজিজুল হক, ওয়ারেত উল্লাহ, মোহাম্মদ বাচ্চু, নুরনবী, শাহজাহান, বাদশা ও মোঃ হাসান। ক্ষতিগ্রস্থ দিদারুল আলম বলেন, হকসাহেবের ঘর থেকে বৈদ্যুতিক শর্টসাকির্ট এর মাধ্যমে আগুনের সূত্রপাত হয়।
ক্ষতিগ্রস্থরা ওয়ারেত উল্লাহ্ জানান, আগুনের লেলিহান শিখা মুহুর্তের মধ্যে পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। একে একে ১৪টি বসতঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, ফ্রিজ, টিভি, মোবাইল, আসবাবপত্র, পাসপোর্ট, জায়গা জমির দলিল সহ প্রয়োজনীয় কোন কাগজপত্র রক্ষা করা সম্ভব হয়নি। ক্ষতিগ্রস্থ আবু সুফিয়ান বলেন, তিনি নতুন ঘর নির্মাণের জন্য রক্ষিত নগদ ৪ লাখ টাকা পুড়ে গেছে। ঘরের দরজায় তালা লাগিয়ে পরিবারের সবাই দাওয়াতে ছিলেন। কিছুই রক্ষা করা যায়নি।

এই বিষয়ে ১১ নং মঘাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসাইন মাষ্টার বলেন, আমি বিষয়টি ইউএনও স্যারকে অবহিত করেছি। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার গুলোরকে ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে যতটুকু সম্ভব সহায়তা করা হবে।

এই বিষয়ে মীরসরাই ফায়ার ষ্টেশন ও সিভিল ডিফেন্সের ষ্টেশন তানভীর আহমেদ বলেন, আগুন লাগার খবর পেয়ে দ্রæত ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হই। সময় মতো পৌছাতে না পারলে ওই বাড়ির অন্য ঘরগুলো রক্ষা করা সম্ভব হতো না।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অগ্নিকাণ্ড


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ