Inqilab Logo

শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৮ মাঘ ১৪২৮, ১৮ জামাদিউস সানি ১৪৪৩ হিজরী

সহস্রাধিক কোয়ারেন্টাইনে

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ মার্চ, ২০২০, ১২:০২ এএম

বাংলাদেশে তিনজন করোনা আক্রান্ত হলেও হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছে সহস্রাধিক। এদের কারো শরীরে এখনো করোনাভাইরাস শনাক্ত করা হয়নি। অধিকাংশ বিদেশ ফেরত হওয়ায় সর্তকতামূলকভাবে তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
স্টাফ রিপোর্টার, চাঁদপুর থেকে জানান, করোনাভাইরাস থেকে সতর্কতার জন্য বিদেশ থেকে চাঁদপুরে ফেরা ৬০৮ জনকে বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দিয়েছে চাঁদপুর জেলা প্রশাসন। হোম কোয়ারেন্টাইনে নিজ দায়িত্বে থাকার ক্ষেত্রে তদারকির খবর নিশ্চিত করা যায়নি। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত বিভিন্ন দেশ থেকে চাঁদপুরে ফিরেছেন ৬০৮ জন। তাদের প্রত্যেককে করোনাভাইরাস থেকে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে নিজ নিজ বাড়িতে নিজ দায়িত্বে কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চাঁদপুর সিভিল সার্জন কার্যালয় বিদেশ থেকে চাঁদপুরে ফেরা ৪৮০ জনের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে। তাদের বেশির ভাগই এসেছেন সউদী আরব, দুবাই, লেবানন, ওমান, কাতার, কুয়েত, বাহরাইন ও ইতালি থেকে। বেশ কয়েকজন এসেছেন লিবিয়া, স্পেন, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া ও আমেরিকা থেকে। তালিকায় আরও নাম যুক্ত হবে বলে জানিয়েছে সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র। উপজেলা পর্যায় থেকে নামগুলো সংগ্রহ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।
কুড়িগ্রাম জেলা সংবাদদাতা জানান, কুড়িগ্রামে করোনা ভাইরাস সংক্রমণে সতর্কতাম‚লক ব্যবস্থা হিসেবে সৌদে আরব ও দুবাই ফেরত ৬ ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। গতকাল সদর উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নজরুল ইসলাম জানান, হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা সবাই সদর উপজেলার বাসিন্দা। তাদের মধ্যে গত ৪ ও ৫ মার্চ সউদী আরব থেকে ওমরাহ পালন করে দেশে ফিরেছেন ৫ জন। তাদের বয়স ৪০ থেকে ৫৯ বছরের মধ্যে। এছাড়া ৮ মার্চ দুবাই থেকে ৩৫ বছর বয়সী এক যুবক দেশে এসেছেন। তবে তারা প্রত্যেকেই সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছেন।
শরীয়তপুর : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কিনা জানার জন্য ১৬২ জন প্রবাসীকে স্বেচ্ছায় হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের প্রত্যেককে ১৪দিন বাড়িতে একা একা বসবাস করার নির্দেশ দিয়েছে শরীয়তপুর স্বাস্থ্য বিভাগ। গতকাল শরীয়তপুর সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. আবদুর রশিদ জানান, ‘করোনা রোগী শনাক্তকরণের লক্ষ্যে বিদেশফেরত ১৬২ জন প্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তাদের ওপর নিবিড় পর্যবেক্ষণ রাখা হবে। তিনি জানান, কোয়ারেন্টাইনে যাওয়া এসব প্রবাসীদের মধ্যে মরিশাস, কাতার, কুয়েত, জর্দান, ওমান, মালদ্বীপ, দ. আফ্রিকা, বাহরাইন, ফ্রান্স,ইতালী, সউদী আরব, ব্রনাই, মালয়েশিয়া, দুবাই, গ্রীস, ও সিঙ্গাপুর ফেরত যাত্রী রয়েছে।
বরিশাল : বরিশাল বিভাগে ১৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পায়রা তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মরত চার চীনা শ্রমিক রয়েছেন। বাকি ১১ জন বিদেশফেরত প্রবাসীর বাড়ি বিভাগের বিভিন্ন জেলায়। বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর স‚ত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে ওই ১৫ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের মধ্যে বরিশাল জেলার সাতজন। ঝালকাঠির রয়েছেন চারজন। এছাড়া পায়রা তাপবিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মরত চীনা শ্রমিক রয়েছেন চারজন।
নোয়াখালী : নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীর বজরা ইউনিয়নে আব্দুস শাকের (৩৪) নামে ইতালি ফেরত এক যুবককে কোভিট-১৯ সন্দেহে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রবাসী জ্বর নিয়ে বজরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উপসর্গগুলো দেখে কোভিট-১৯ সন্দেহে তাকে হাসপাতালের কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন।
নাটোর : নাটোরে বিদেশফেরত চারজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তবে তাদের শরীরে করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ দেখা যায়নি। অতিরিক্ত সতর্ককতার জন্য তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন নাটোরের সিভিল সার্জন ডা. মিজানুর রহমান। সিভিল সার্জন অফিস স‚ত্রে জানা যায় , বিদেশ থেকে এ পর্যন্ত ছয়জন নাটোরে ফিরেছেন। তাদের শরীরে কোভিড-১৯ ভাইরাস আছে কি-না তা যাচাই বাছাইয়ের জন্য হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল।
মানিকগঞ্জ : গত চারদিনে মানিকগঞ্জের বিভিন্ন উপজেলায় বিদেশ ফেরত ১৬৯ জন ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ না থাকলেও বিদেশ ফেরত হওয়ার কারণে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। গতকাল নতুন করে আরও ৬০ জন বিদেশ ফেরত ব্যক্তিকে নিজ নিজ বাড়িতে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডা. আনোয়ারুল আমিন আখন্দ।
নন্দীগ্রাম (বগুড়া) : করোনাভাইরাস আক্রান্ত সন্দেহে ওমরা পালন শেষে বাড়ি ফেরা বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার এক দম্পতিকে নিজ বাড়িতেই ‘ হোম কোয়ারেন্টাইনে’ রাখা হয়েছে। গতকাল দুপুরে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখার কথা নিশ্চিত করেছেন নন্দীগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. তোফাজ্জল হোসেন মন্ডল। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্র জানায়, গত ১১ মার্চ ওমরাহ পালন শেষে সউদী আরব থেকে ফেরা নন্দীগ্রাম উপজেলার থালতা মাঝগ্রাম ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মাজগ্রামে গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা একরাম হোসেন (৬৫) ও তার স্ত্রী হাসনা বানু (৫৫) কে নিজ বাড়িতে ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’ রাখা হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: করোনাভাইরাস

২২ জানুয়ারি, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন